শুক্রবার   ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১৬ ১৪২৬   ০৪ রজব ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ বঙ্গবন্ধু অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ দিয়েছেন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মশা যেন ভোট খেয়ে না ফেলে, নতুন মেয়রদের প্রধানমন্ত্রী তাপস-আতিককে শপথ পড়ালেন প্রধানমন্ত্রী আমার কাছে রিপোর্ট আসছে, কাউকে ছাড়ব না : প্রধানমন্ত্রী দ্বিতীয় কিস্তির ২৭ কোটি ৬০ লাখ টাকা বিটিআরসিকে দিল রবি মাধ্যমিক পর্যন্ত বিজ্ঞান বাধ্যতামূলকের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ওপর নজরদারি বাড়াতে বললেন প্রধানমন্ত্রী বরগুনায় ওয়ারেন্ট ভুক্ত দুই আসামী গ্রেপ্তার আজকের স্বর্ণপদক প্রাপ্তরা ২০৪১ এর বাংলাদেশ গড়ার কারিগর যে কোন অর্জনের পেছনে দৃঢ় মনোবল এবং আত্মবিশ্বাস গুরুত্বপূর্ণ ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’ পেলেন ১৭২ শিক্ষার্থী আজ ১৭২ শিক্ষার্থী প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক পাচ্ছেন অশান্ত দিল্লিতে কারফিউ, নিহত ১৭ পিকে হালদারসহ ২০ জনের ব্যাংক হিসাব জব্দের আদেশ বহাল ৭ মার্চ জাতীয় দিবস ঘোষণা করে হাইকোর্টের রায় ১৪ দিনেই ভালো হচ্ছেন করোনা রোগী : আইইডিসিআর মুশফিক-নাঈমে ইনিংস ব্যবধানে দূর্দান্ত জয় টাইগারদের পিলখানা ট্র্যাজেডি দিবস আজ রিফাত হত্যা মামলার আসামি সিফাতের বাবা গ্রেফতার
৪৮

অতিরিক্ত ফি নেয়া কলেজের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে সরকার

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে শিক্ষার্থী ভর্তির সময় যেসব বেসরকারি কলেজ অতিরিক্ত সেশন ফি আদায় করেছে তাদের একটি তালিকা পেয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এবার এসব কলেজের বিরুদ্ধে অপরাধের গুরুত্ব বিবেচনা করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) একজন কর্মকর্তা বলেন, যেসব কলেজ এবার শিক্ষার্থী ভর্তির সময় অতিরিক্ত ফি আদায় করেছে আমরা তাদের একটি তালিকা করে মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছি। শিক্ষার্থীদের থেকে বেশি ফি আদায় করা গুরুতর অপরাধ। অনেক প্রতিষ্ঠান অতিরিক্ত ফি আদায় করতে চাপ প্রয়োগ করেছে বলেও অভিযোগে উল্লেখ রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কাছে সুপারিশ পাঠানো হয়েছে।

এর আগে, গত মাসের শেষ সপ্তাহে দেশের অতিরিক্ত ফি আদায় করা বেসরকারি কলেজগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে মাউশি থেকে একটি আদেশও জারি করা হয়। আদেশটি জারি করেন মাউশির সহকারী পরিচালক ফারহানা আক্তার।

সেখানে বলা হয়, দেশের বিভিন্ন স্থানে এমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি ব্যাঙের ছাতার মতো গজিয়ে ওঠা প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানগুলো সীমা অতিক্রম করেছে। এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অতিরিক্ত সেশন ফি ছাড়াও চার-পাঁচগুণ বেশি টাকায় বই, খাতাসহ শিক্ষা উপকরণ কিনতে বাধ্য করা হচ্ছে। অতিরিক্ত ফি আদায় করা এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানানো হয়। 

এ বিষয়ে ফারহান আক্তার বলেন, শিক্ষাকে কোনোভাবেই পণ্যায়ন করা যাবে না। শিক্ষা গ্রহণে বা দানে যতটুকু খরচ প্রয়োজন এর বাইরে কোন ব্যবসা করা যাবে না। কিন্তু অনেক কলেজ আছে যারা শিক্ষার্থীদের নিয়ে ব্যবসা খুলে বসেছে। এ কারণে এসব কলেজের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন। এ ব্যাপারে পরে জানানো হবে। 

এদিকে মাউশির করা তালিকায় কতগুলো কলেজকে অভিযুক্ত করা হয়েছে সে ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি। এসব প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কী ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হবে সে ব্যাপারেও নিশ্চিত করে বলতে পারেনি কেউ। 

প্রসঙ্গত, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নামে ডাকাতি এবং লুটপাট বন্ধ করতে গত ২ জুলাই অতিরিক্ত সেশন ফি নেয়া কলেজগুলোকে বাড়তি টাকা অভিভাবকদের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার আদেশ দেন হাইকোর্ট। এই নির্দেশের পরই দেশের বেসরকারি কলেজে অতিরিক্ত সেশন ফি আদায়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে তালিকা তৈরি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

বরগুনার আলো
এই বিভাগের আরো খবর