বৃহস্পতিবার   ০২ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ১৯ ১৪২৬   ০৮ শা'বান ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
প্রতি উপজেলা থেকে নমুনা সংগ্রহ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সমালোচনা করছে বিএনপি : কাদের দেশে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৬ জন সুস্থ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সেনাবাহিনী কতদিন মাঠে থাকবে সরকার বিবেচনা করবে: সেনাপ্রধান করোনায় খাদ্য ঘাটতি হবে না : কৃষিমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখ‌ছেন প্রধানমন্ত্রী আজ সকালে ৬৪ জেলার কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর কনফারেন্স পিপিই যেন নষ্ট না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা মোকাবিলায় সরকার জনগণের পাশে আছে -প্রধানমন্ত্রী ছুটিতে কর্মস্থল ছাড়া যাবে না : সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন করোনা সংকটকালে জনগণের পাশে থাকবে আ.লীগ: কাদের আমি করোনায় আক্রান্ত হইনি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত নেই : আইইডিসিআর পদ্মা সেতু‌তে বসলো ২৭তম স্প্যান, দৃশ্যমান হলো ৪ হাজার ৫০ মিটার সব পোশাক কারখানা বন্ধের নির্দেশ পবিত্র শবে বরাত ৯ এপ্রিল অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না : প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী মুক্তি পেলেন খালেদা জিয়া সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী
৪৮

অনলাইন ব্যাংকিং জালিয়াতি চক্রের তিনজন আটক

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২২ মার্চ ২০২০  

অনলাইন ব্যাংকে এটিএম কার্ডধারীদের তথ্য চুরি করে জালিয়াতির মাধ্যমে ব্যাংক গ্রাহকদের অর্ধকোটি টাকা হাতিয়ে নেয়া প্রতারক চক্রের তিন হোতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গতকাল রাতভর রাজধানীর যাত্রাবাড়ী, কক্সবাজার ও ফরিদপুরের ভাঙ্গা এলাকায় পৃর্থক অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে কাউন্টার টেরোরিজম এ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) সাইবার নিরাপত্তা ও অপরাধ বিভাগ।

গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে, মামুন তালুকদার, রাজু ফারাজী ও মিঠু মৃধা। সাইবার নিরাপত্তা ও অপরাধ বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) নাজমুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, এডিসি নাজমুল জানান, গত ২০ মার্চ ভোরে কক্সবাজারের একটি হোটেল থেকে প্রতারক চক্রের প্রধান মামুন তালুকদারকে আটক করা হয়। একই দিন সন্ধ্যায় রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থেকে রাজু ও পরদিন ফরিদপুরের ভাঙ্গা থেকে মিঠুকে আটক করা হয়।

এ সময়ে তাদের কাছ থেকে ব্যাংকিং প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত একটি প্রাইভেটকার, সাতটি বিশেষ এ্যাপসযুক্ত মোবাইল ফোন, বেশকিছু ভুয়া রেজিস্ট্রেশন করা সিমকার্ড, একাধিক ব্যাংকের কার্ড, মোবাইল ব্যাংকিং এ্যাকাউন্ট ও স্ক্রিল এ্যাকাউন্ট জব্দ করা হয়।

প্রতারণার ধরন প্রসঙ্গে নাজমুল জানান, এ চক্রের সদস্যরা অভিনব কায়দায় বিভিন্ন ডায়লার এ্যাপস দিয়ে কয়েকটি ব্যাংকের হেড অফিসের কার্ড ডিভিশনের মোবাইল নম্বর স্পুফিং করে শাখা-ম্যানেজারদের কল দিয়ে নতুন কার্ড ব্যবহারকারীদের নাম, কার্ড নম্বর ও মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করতেন।

এরপর তারা ব্যাংকের কাস্টমার কেয়ার এজেন্ট সেজে গ্রাহকদের কল করে নতুন কার্ডটি এ্যাকটিভ করা বা অন্য কিছু ফিক্স করার জন্য কল করেছেন বলে জানাতেন। কৌশলে স্পুফিং মোবাইল কলের মাধ্যমেই গ্রাহকদের কার্ডের মেয়াদ, গোপন কোড ও প্রয়োজন সাপেক্ষে মোবাইলের ওটিপি সংগ্রহ করতেন।

এরপর গ্রাহকদের কার্ড থেকে টাকা/ডলার প্রতারকদের লন্ডন ভিত্তিক ই-কমার্স এ্যাপ স্ক্রিল এ্যাকাউন্ট, মোবাইল ব্যাংকিং এ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করে নিতেন। যা পরবর্তীতে এটিএম বুথ, মোবাইল ব্যাংকিং এজেন্ট থেকে ক্যাশ আউট করে নিতো চক্রটি।

ডিএমপি সূত্রে জানায়, দেশের একাধিক শীর্ষ স্থানীয় ব্যাংকের শতাধিক গ্রাহকের অর্ধকোটি টাকা চুরি গেলে কয়েকটি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ গত ৫ মার্চ ডিএমপি’র সাইবার সিকিউরিটি এ্যান্ড ক্রাইম বিভাগের ডিসি আ ফ ম আল কিবরিয়ার কাছে অভিযোগ জানালে তিনি সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংককে ঘটনাটি অবহিত করেন।

এরপরই ঢাকা, ফরিদপুরের ভাঙ্গা এবং কক্সবাজারের প্রায় লক্ষাধিক মোবাইল নম্বর ও ডায়লার এ্যাপসের আইপি বিশ্লেষণসহ উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে এই প্রতারক চক্রকে শনাক্ত করা হয়।

পরে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা অপরাধের কথা স্বীকার করেছেন। তাদের ধানমন্ডি থানায় দায়ের করা একটি মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান এডিসি নাজমুল।

বরগুনার আলো
এই বিভাগের আরো খবর