রোববার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৬ ১৪২৬   ২২ মুহররম ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
ক্যাসিনো মালিকদের গল্প প্রয়োজনে ঋণ নেব, তবু ডোনেশন নয়-পরিকল্পনামন্ত্রী খেলাধুলার বিকল্প নেই: সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী কুরআনের ১০০ নির্দেশনা গ্রানাদার কাছে বার্সার পরাজয় চলমান অভিযান জনমনে প্রত্যাশার সৃষ্টি করবে: টিআইবি ৪০ কোটি টাকা নিয়ে পালানো সেই টার্কি বাবলু স্ত্রীসহ গ্রেপ্তার নারায়ণগঞ্জে পুলিশের ওপর হামলা, গুলিবিদ্ধ ১ ৪ দিনের সফরে ঢাকায় ভারতের নৌবাহিনী প্রধান ধোনির বাড়িতে প্রতিদিন লোডশেডিং, বিরক্ত স্ত্রী আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করছে সরকার : প্রধানমন্ত্রী পদোন্নতি না নিলে শাস্তি ব্যক্তিগত গাড়ির ওপর নির্ভরশীলতা কমাতে হবে : রাষ্ট্রপতি পাঁচ বছর আফগানিস্তানকে হারাল বাংলাদেশ ভূতের আড্ডায় অভিযান, বাতি জ্বালাতেই অপ্রীতিকর দৃশ্য কথাসাহিত্যিক শরদিন্দুর প্রয়াণ বিষাক্ত মদ পান করে ২ যুবকের মৃত্যু ঠাকুরগাঁওয়ের বাস কাউন্টারে মিলল মানুষের ৪ বস্তা খুলি ও হাড় রিফাত হত্যা মামলার আলামত আদালতে দাখিল, সাক্ষী ৭৫ কুমিল্লায় আগ্নেয়াস্ত্র ও ইয়াবাসহ যুবক আটক

অপরাধ দমনে আসছে ফেস রিকগনিশন ক্যামেরা-জুনাইদ আহমেদ পলক

প্রকাশিত: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯  


অপরাধ দমনে দেশের প্রতিটি শহরে ‘ফেস রিকগনিশন ক্যামেরা’ লাগানো হবে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। 
মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) রাজশাহীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাইটেক পার্কে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের বক্তব্যে এ কথা জানান তিনি। 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশক্রমে দেশের প্রতিটি শহরে ‘ফেস রিকগনিশন ক্যামেরা’ বসানো হবে। একশ’ ফেস রিকগনিশন ক্যামেরা যেন কমপক্ষে দুই হাজার পুলিশের কাজ করতে পারে- সে উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। সম্ভাব্যতা যাচাই শেষে শিগগিরই এর কাজ শুরু হবে।

তিনি বলেন, রাজশাহী শহরে কেউ যেন যৌন হয়রানি বা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের শিকার না হন, সে জন্য এখানেও ওই ক্যামেরা বসানো হবে। সাধারণ সিসি ক্যামেরার চেয়েও অনেক উন্নত প্রযুক্তির হওয়ায় এটি সহজেই অপরাধীকে শনাক্ত করে দেবে। ফেস রিকগনিশন ক্যামেরা বসালে সন্ত্রাসীরা অপরাধ করে নিস্তার পাবে না।  

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাজশাহীর মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, উন্নত রাজশাহীর একটি ছোট্ট সংস্করণ এ বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্ক। এখানে সরাসরি ১৪ হাজার তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হবে। একসময় এ জায়গাটি এত সুন্দর ছিল না। হাইটেক পার্কের নির্মাণকাজ শুরু হওয়ায় পদ্মা নদীর তীরের এ জায়গাটি এরই মধ্যে দর্শনীয় হয়ে উঠতে শুরু করেছে। কাজ শেষ হলে বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্ক পদ্মাপাড়ের একটি অনন্য স্থাপনায় রূপ নেবে। 

এর আগে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাইটেক পার্ক এলাকায় বিভিন্ন প্রজাতির এক হাজার বৃক্ষের চারা রোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন  প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

রাজশাহীর বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর-রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হক, রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার সুজায়েত ইসলাম প্রমুখ।