• মঙ্গলবার   ২৪ নভেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ৯ ১৪২৭

  • || ০৮ রবিউস সানি ১৪৪২

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২৮, শনাক্ত ২৪১৯ শিক্ষার্থী সাওদা হত্যাকাণ্ডে আসামির যাবজ্জীবন করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৮, শনাক্ত ২০৬০ স্বাধীনতার ইতিহাস বিকৃত করাই বিএনপির গণতন্ত্র: কাদের প্রখ্যাত আলেম পীরজাদা গোলাম সারোয়ার সাঈদী আর নেই মানুষের কঙ্কালসহ গ্রেফতার বাপ্পী তিন দিনের রিমান্ডে শ্রাবন্তীকে কুপ্রস্তাবের অভিযোগে খুলনায় যুবক গ্রেফতার ডিসেম্বরের মাঝামাঝিতে বসবে পদ্মাসেতুর অবশিষ্ট ৪ স্প্যান: কাদের করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৩৬৪ ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মজনুর যাবজ্জীবন ২০২১ সালের মধ্যে ১২৯ নতুন ফায়ার স্টেশন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এএসপি আনিসুল হত্যা মামলা: রিমান্ড শেষে কারাগারে আরও ৪ টিউশন ফি ছাড়া অন্য খাতে অর্থ নিতে পারবে না স্কুল-কলেজ বিএনপির রাজনীতিতে হতাশা আর ব্যর্থতা ভর করেছে: কাদের শাহজালালে যাত্রীর কাছ থেকে ৫ কোটি টাকার স্বর্ণের বার উদ্ধার নেপালের বিপক্ষে সিরিজ জয় বাংলাদেশের বিএনপি বাসে আগুন দিয়ে অবলীলায় মিথ্যা বলছে: তথ্যমন্ত্রী ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম ২৭ নভেম্বর সাবেক ডেপুটি স্পিকার শওকত আলী আর নেই মিথ্যা বলায় পুরস্কার থাকলে প্রথমটি পেতেন ফখরুল: তথ্যমন্ত্রী

অবশেষে সুশান্তের মৃত্যুর কারণ জানালেন ফরেনসিক চিকিৎসকরা

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৩ অক্টোবর ২০২০  

বলিউড অভিনেতা সুশান্তের পরিবারের আইনজীবী বিকাশ সিং দাবি করেছিলেন, তাকে এইমসের এক চিকিৎসক জানিয়েছেন যে, অভিনেতাকে গলা টিপে হত্যা করা হয়েছিল। কিন্তু এই দাবি যথার্থ নয় বলে জানালেন এইমসের ফরেনসিক টিমের প্রধান। এবার দিল্লি এইমসের একদল চিকিৎসকই জানালেন সুশান্তের মৃত্যুর আসল কারণ।

এইমসের চিকিৎসকরা সিবিআইকে জানান, সুশান্ত সিং রাজপুতকে হত্যা করা হয়নি, তিনি আত্মহত্যাই করেছেন। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের। বিষক্রিয়ায় সুশান্তের মৃত্যু বা তাকে শ্বাসরোধ করে খুন করার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছেন এইমসের ওই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দল।

গত ১৪ জুন বান্দ্রার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় সুশান্ত সিং রাজপুতের মরদেহ। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে প্রাথমিকভাবে মুম্বাই পুলিশ জানায়, গলায় ফাঁস লাগার ফলে দমবন্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে সুশান্তের। তবে পুলিশের একথা মানতে পারেননি অভিনেতার পরিবার এবং অনুরাগীরা। বলিউডের অনেক তারকাও সুশান্তের মৃত্যু প্রসঙ্গে প্রশ্ন তুলেছিলেন।

এরপর মুম্বাই ও বিহার পুলিশের ঠাণ্ডা লড়াই এবং নানা ঘটনার পর তদন্তভার যায় সিবিআইয়ের হাতে। পাশাপাশি সুশান্তের ময়নাতদন্তের রিপোর্ট খতিয়ে দেখতে দিল্লি এইমসের চারজন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ নিয়ে গঠিত হয় তদন্ত কমিটি। কমিটির প্রধান করা হয় এইমসের ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের প্রধান ড. সুধীর গুপ্তাকে। এর আগেও সিবিআইয়ের সঙ্গে একাধিক হাইপ্রোফাইল মামলায় কাজ করেছেন তিনি।

হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, এইমসের প্যানেল তাদের যাবতীয় বিষয় খতিয়ে দেখে তদন্ত রিপোর্ট সিবিআইয়ের হাতে জমা দিয়েছে। মৃত্যুর পর মুম্বাইয়ের কুপার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল সুশান্তকে। সেখানেই তার ময়নাতদন্ত হয়েছে। সেই প্রতিবেদনের সঙ্গে এইমসের চিকিৎসকদের কমিটি একমত পোষণ করেছে।

 

বরগুনার আলো