শনিবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৫ ১৪২৬   ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় সোমবার মান্নানের জানাজা এমপি আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে গভীর শোক রাষ্ট্রপতির পদ্মা সেতুর ২২তম স্প্যান বসছে এ মাসেই আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে ওবায়দুল কাদেরের শোক এমপি মান্নানের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক বয়ানে চলছে দ্বিতীয় দিনের ইজতেমা,কাল আখেরী মোনাজাত বিপিএলে প্রথম শিরোপার স্বাদ পেলো রাজশাহী আদালতে মজনুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাউন্ড সিস্টেমে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা যাবে ১ ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি শুরু প্রথম আলোর সম্পাদকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা আমরা ক্রসফায়ারকে সাপোর্ট করতে পারি না : ওবায়দুল কাদের পোশাক রপ্তানিকে ছাড়িয়ে যাবে আইসিটি : জয় বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু কাল বিশ্ব ইজতেমার ২য় পর্বে ময়দানে আসতে শুরু করেছেন মুসল্লিরা অন্ধকার ভেদ করে আলোর পথে বাংলাদেশ: সংসদে প্রধানমন্ত্রী রিফাত হত্যা : দুই আসামি জামিনে মুক্ত দুর্নীতি মামলা : বিএনপি প্রার্থী ইশরাকের বিচার শুরু কাদেরের বাইপাস পরবর্তী স্বাস্থ্যের উন্নতি, দেশে ফিরছেন রাতেই  এসডিজি অর্জনে বাংলাদেশ সঠিক পথে রয়েছে : প্রধানমন্ত্রী
৫৪

আকস্মিক সামরিক মহড়ায় ইরানের সেনাবাহিনী

প্রকাশিত: ৯ অক্টোবর ২০১৯  

আকস্মিক সামরিক মহড়া শুরু করেছে ইরান। বুধবার পশ্চিম আজারবাইজান প্রদেশের উরুমিয়েতে দেশটির সেনাবাহিনী এ সামরিক মহড়া শুরু করে।

ইরানের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ইরনার খবরে বলা হয়, উন্নত ট্যাংক, কামান ও হেলিকপ্টারসহ বিভিন্ন ধরণের উন্নত অস্ত্র ব্যবহার হচ্ছে এ সামরিক মহড়ায়। সেনাবাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল মুসাভি মহড়াটির উদ্বোধন করেন।

শত্রুর মোকাবেলায় সেনাবাহিনীর পদাতিক ইউনিটের তাৎক্ষণিক জবাবের বিষয়টি এই মহড়ায় গুরুত্ব পাচ্ছে বলে ইরনার খবরে বলা হয়েছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মেজর জেনারেল মুসাভি বলেন, ইরানের সেনাবাহিনীর মূল দায়িত্ব হচ্ছে স্বাধীনতা ও ভৌগোলিক অখণ্ডতা রক্ষা করা। শত্রুদের জেনে রাখা উচিত ইরানের স্থল ও আকাশ সীমা হচ্ছে সেনাবাহিনীর রেড লাইন। ইরানের ভূখণ্ডে যেকোনো আগ্রাসনের কঠোর ও দাঁতাভাঙা জবাব দেয়া হবে।

এ মহড়ায় সেনাবাহিনীর বিভিন্ন ইউনিট তাদের সর্বাত্মক প্রস্তুতির বিষয়টি প্রমাণ করেছে বলেও জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, সেনাবাহিনীর বিভিন্ন ইউনিটকে গত মধ্যরাতে হঠাৎকরে মহড়ার বিষয়টি অবহিত করা হয়। এরপর স্বল্প সময়ের মধ্যে তারা মহড়াস্থলে পৌঁছে যায় এবং নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করতে সক্ষম হয়।

সেনাপ্রধান জানান, হঠাৎ কোনো যুদ্ধ শুরু হলে যাতে কোনো ধরণের ইতস্তত ছাড়াই দেশকে রক্ষার পাশাপাশি উপযুক্ত জবাব দেয়া যায় সাধারণত সে লক্ষ্যেই এ ধরণের মহড়া চালানো হয়ে থাকে।

এই বিভাগের আরো খবর