রোববার   ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১১ ১৪২৬   ২৮ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
পতাকার মর্যাদা ধরে রাখতে সেনা সদস্যদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান জুয়ার আসর থেকে আটক ২৬ দুই ইউনিভার্সিটিকে ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা দৃশ্যমান পদ্মা সেতুর পৌনে চার কিলোমিটার সারা দেশে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত ইংরেজি উচ্চারণে বাংলা বলার সমালোচনা প্রধানমন্ত্রীর উন্নত দেশ গড়তে বেসরকারি সহযোগিতা প্রয়োজন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুজিববর্ষে বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে: কাদের ভণ্ডপীরসহ ৯ জনের কারাদণ্ড প্রধানমন্ত্রী সব সময় শিক্ষাকে গুরুত্ব দেন: পরিকল্পনামন্ত্রী মুজিব বর্ষে নতুন শিল্প কারখানা স্থাপন করা হবে: শিল্প প্রতিমন্ত্রী আসন্ন সেচ মৌসুমে লোডশেডিংয়ের শঙ্কা নেই : বিদ্যুৎ বিভাগ একুশে পদক হাতে তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস শুক্রবার একুশে পদক মেধা ও মনন চর্চার ক্ষেত্র সম্প্রসারিত করবে : রাষ্ট্রপতি আজ একুশে পদক প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী এনামুল বাছিরের পদোন্নতির আবেদন হাইকোর্টে খারিজ ডাকঘর সঞ্চয়ের সুদহার পুনর্বিবেচনা করা হবে : অর্থমন্ত্রী মুঠোফোন প্রতারক জিনের বাদশা গ্রেফতার করোনাভাইরাস নিয়ে গুজবে কান দিবেন না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
৬০

আগামীকাল দেখা দেবে ক্ষুদ্রতম চাঁদ

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

দীর্ঘ ১৩ বছর পর দেখা মিলবে ক্ষুদ্রতম চাঁদের। এর আগে দেখা গিয়েছিল ২০০৬ সালের জানুয়ারি মাসে। শুক্রবার পূর্ণিমার রাতেই চাঁদকে সব থেকে ছোট দেখাবে। বিজ্ঞানীদের মতে, মাইক্রো মুনের ক্ষেত্রে চাঁদ ১৪ থেকে ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ছোট দেখায়।

উপবৃত্তাকার কক্ষপথের জন্য চাঁদ কখনও পৃথিবীর সামনে আসে, কখনও দূরে চলে যায়। সে অনুযায়ী, শুক্রবার ১৩ সেপ্টেম্বর চাঁদ পৃথিবী থেকে সবচেয়ে দূরে অবস্থান করবে। পৃথিবী থেকে চাঁদের দূরত্ব দুই লাখ ৫১ হাজার ৬৫৫ মাইল হলেই মাইক্রো ধরা হয়। কিন্তু এবার তার থেকেও ৮১৬ মাইল দূরে থাকবে চাঁদ। আর সুপার মুনের ক্ষেত্রে পৃথিবী থেকে চাঁদের দূরত্ব হয় দুই হাজার ৩৯ মাইল বা তার চেয়ে কম।

কলকাতায় পজিশনাল অ্যাস্ট্রনমি সেন্টারের পরিচালক সঞ্জীব সেন জানিয়েছেন, এবার পূর্ণিমা শুরু হচ্ছে ১৩ সেপ্টেম্বর সকাল ৭টা ৩৬ মিনিটে। আর পূর্ণিমা শেষ হবে ১৪ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টা ৩ মিনিটে। ফলে এই সময়ের মধ্যে চাঁদকে সব থেকে ছোট দেখাবে। ১৩ বছর পর চাঁদকে এতটা ছোট রূপে দেখতে চাইলে শুক্রবার সন্ধ্যা থেকেই আকাশের দিকে নজর রাখতে হবে।

তবে মাইক্রো মুন দেখার ক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে মেঘলা আকাশ। কারণ শুক্রবারও আকাশ মেঘলা থাকতে পারে। সঙ্গে থাকতে পারে বৃষ্টি। তাই ১৩ বছর পর এই মাইক্রো মুন দেখার সুযোগ পাওয়ার সম্ভাবনাও খুব কম। সেক্ষেত্রে এবার দেখা না গেলে পরের বার মাইক্রো মুন দেখতে গেলে অপেক্ষা করতে হবে ২০৩৩ সালের মে মাস পর্যন্ত। সে সময় চাঁদ আবার পৃথিবী থেকে সব থেকে দূরে চলে যাবে।

বরগুনার আলো