বুধবার   ২০ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৬ ১৪২৬   ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
ক্রিকেটের সঙ্গে টেনিসও এগিয়ে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী রিফাত হত্যা : চার্জ গঠন ২৮ নভেম্বর চালের দাম বাড়ানোর চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা: খাদ্যমন্ত্রী র‌্যাব-৮ এর অভিযানে শীর্ষ সন্ত্রাসী গ্রেফতার ৭ ডিসেম্বর বিচারবিভাগীয় সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী বরিশাল বোর্ডে এসএসসিতে বৃত্তি পাচ্ছেন ১৪১৭ শিক্ষার্থী কবি সুফিয়া কামালের মৃত্যুবার্ষিকী আজ জাতীয় অর্থনীতিতে নারীর অবদান সবচেয়ে বেশি: পলক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ট্রাক মালিকদের ফের বৈঠক আজ চক্রান্তকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে: ওবায়দুল কাদের দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী লবণের দাম বাড়ালে জেল-জরিমানা : বাণিজ্যমন্ত্রী লবণ নিয়ে গুজবে কান দিবেন না: শিল্প মন্ত্রণালয় ২০২১ সালের মধ্যে ১০০০ উদ্যোক্তা তৈরিতে সহায়তা দেবে সরকার পদ্মাসেতুর প্রায় আড়াই কিলোমিটার দৃশ্যমান সেনা কল্যাণ সংস্থার চারটি স্থাপনা উদ্বোধন মালিতে জঙ্গি হামলায় ২৪ সেনা নিহত কন্যা সন্তানের জনক হলেন তামিম কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সভা আজ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী : ৫৪ স্থানে বসছে ক্ষণ গণনার ডিসপ্লে
১৬৯

ইঁদুর-বাদুড় খেয়েই দিন কাটে এই অভাবীদের

প্রকাশিত: ২৭ নভেম্বর ২০১৮  

অভাব তাদের নিত্যসঙ্গী। জঙ্গলে শিকার ও ভিক্ষাবৃত্তি করে তাদের জীবন চলে।

বনের ইঁদুর, বাদুড় বা কোনো পাখির মাংস আর ভিক্ষা করে পাওয়া চালের ভাত তাদের আহার।

হতদরিদ্র হওয়ার কারণেই এসবের ওপর নির্ভর করতে হয় ভারতের খয়রাশোলের রসা গ্রামের বেদ সম্প্রদায়ের পাঁচ পরিবারকে।

ওই পরিবারের সদস্যরা জানান, অভাব এখনও রয়েছে। শিকার ও ভিক্ষাবৃত্তি এখনও তাদের খিদে মেটানোর প্রধান উপায়।

তবে কিছুটা হলেও পরিবারগুলোর পাশে থাকার চেষ্টা করছে প্রশাসন।

পঞ্চায়েত সদস্য বিদ্যুৎ ঘোষ বলেন, যাতে তারা দুবেলা খেতে পায়, সেদিকে প্রশাসন নজর রেখেছে। তবে মূল সমস্যা হল- আর্থ-সামাজিক ও জাতিগত সমীক্ষায় ওই পরিবারগুলোর নাম না থাকা।

ওই কারণেই খাদ্য সুরক্ষার আওতায় তাদের আসার সুযোগ মিলছে না।

তবে বিষয়টি প্রশাসন দেখছে বলে জানান তিনি।