• মঙ্গলবার   ২৪ নভেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ৯ ১৪২৭

  • || ০৮ রবিউস সানি ১৪৪২

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২৮, শনাক্ত ২৪১৯ শিক্ষার্থী সাওদা হত্যাকাণ্ডে আসামির যাবজ্জীবন করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৮, শনাক্ত ২০৬০ স্বাধীনতার ইতিহাস বিকৃত করাই বিএনপির গণতন্ত্র: কাদের প্রখ্যাত আলেম পীরজাদা গোলাম সারোয়ার সাঈদী আর নেই মানুষের কঙ্কালসহ গ্রেফতার বাপ্পী তিন দিনের রিমান্ডে শ্রাবন্তীকে কুপ্রস্তাবের অভিযোগে খুলনায় যুবক গ্রেফতার ডিসেম্বরের মাঝামাঝিতে বসবে পদ্মাসেতুর অবশিষ্ট ৪ স্প্যান: কাদের করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৩৬৪ ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মজনুর যাবজ্জীবন ২০২১ সালের মধ্যে ১২৯ নতুন ফায়ার স্টেশন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এএসপি আনিসুল হত্যা মামলা: রিমান্ড শেষে কারাগারে আরও ৪ টিউশন ফি ছাড়া অন্য খাতে অর্থ নিতে পারবে না স্কুল-কলেজ বিএনপির রাজনীতিতে হতাশা আর ব্যর্থতা ভর করেছে: কাদের শাহজালালে যাত্রীর কাছ থেকে ৫ কোটি টাকার স্বর্ণের বার উদ্ধার নেপালের বিপক্ষে সিরিজ জয় বাংলাদেশের বিএনপি বাসে আগুন দিয়ে অবলীলায় মিথ্যা বলছে: তথ্যমন্ত্রী ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম ২৭ নভেম্বর সাবেক ডেপুটি স্পিকার শওকত আলী আর নেই মিথ্যা বলায় পুরস্কার থাকলে প্রথমটি পেতেন ফখরুল: তথ্যমন্ত্রী

ঈদের পর বাড়ি যেতে চাওয়ায় খালেদার গৃহকর্মী ফাতেমাকে মারধর

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৮ মে ২০২০  

দুর্নীতি মামলায় ২ বছরের অধিক সময় জেলখাটার পর গত ২৫ মার্চ সরকারের মহানুভবতায় মুক্তি পেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। বিএনপি নেত্রীর সেবায় নিয়জিত ও স্বেচ্ছায় কারাবন্দী গৃহকর্মী ফাতেমাও বেগম জিয়ার সাথে গুলশানের ভাড়াবাড়িতে উঠেছেন।

কিন্তু কারাগার থেকে মুক্ত হলেও এখনই বেগম জিয়ার কাছ থেকে মুক্তি পাচ্ছেন না ফাতেমা। এমনকি পরিবারের সদস্যদের সাথে দেখা কিংবা কথা বলারও সুযোগ পাচ্ছেন না তিনি।

গোপন সূত্রে জানা গেছে, সেবা দিতে ব্যাঘাত ঘটবে এমন চিন্তা থেকেই বেগম জিয়া ও তার পরিবারের সদস্যদের নিষ্ঠুরতার কারণে নিজ সন্তান ও বাবার সাথে কোন রকম যোগাযোগ করতে পারছেন না ফাতেমা। বাড়িতে যেতে চাইলে করোনার ভয় দেখানো এবং ঈদের পর ছুটি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে তাকে দমিয়ে রাখা হচ্ছে। তাই পরিবারের কথা চিন্তা করে আনমনে বেগম জিয়ার সেবা-শশ্রুসায় ভুল করছেন ফাতেমা। যার কারণে বেগম জিয়ার ছোট বোন সেলিমা ইসলামের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন তিনি। বাড়ি যাওয়ার দাবি করায় ফাতেমাকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ফাতেমার বাড়ি যাওয়া ও নির্যাতনের বিষয়ে জানতে চাইলে পরিচয় গোপন রাখার শর্তে বেগম জিয়ার নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত সিএসএফের এক সদস্য বলেন, জেল থেকে বের হওয়ার পরপর ফাতেমা বাড়ি যেতে চেয়েছিল। কিন্তু ম্যাডাম জিয়ার অনুরোধে সে যায়নি। অবশ্য তার পরিবারের সদস্যদের ঢাকায় আসার কথা ছিল, কিন্তু করোনার কারণে তারা আসতে পারছে না। বাড়ির কাজের লোকরা তো প্রায়শই ভুল করেন, যার কারণে হয়তো ফাতেমাকেও ম্যাডামরা একটু বকেছেন। এটি বড় কোন সমস্যা নয়। আর ফাতেমাকে জোর করে আটকে রাখার তথ্যটি সঠিক নয়। প্রতিমাসে তাকে নিয়মিত বেতন দেয়া হয়। আর গৃহকর্মীরা চাইলেই কি তার সব ইচ্ছা পূরণ করতে হবে, এমনটি কোথায় লেখা নেই।

বরগুনার আলো