শনিবার   ২৩ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৮ ১৪২৬   ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
সরকার আলেমদের সঙ্গে নিয়ে দেশের উন্নয়ন করতে চায়: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী নরসিংদীর এমপি বুবলীকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার চালের বাজার অস্থিতিশীল করলে কাউকে ছাড় নয়: খাদ্যমন্ত্রী ভারত মুক্তিযুদ্ধের সময় পাশে ছিল তা ভুলিনি: প্রধানমন্ত্রী চিকিৎসকদের নৈতিক শিক্ষা খুবই প্রয়োজন: পরিকল্পনামন্ত্রী সামাজিক মাধ্যমে গুজব বন্ধে বিধিমালা হচ্ছে- তথ্যমন্ত্রী শুক্রবারের মধ্যে যান চলাচল স্বাভাবিক হবে: কাদের ঘণ্টা বাজিয়ে খেলার উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সশস্ত্র বাহিনীকে গড়ে তোলা হবে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে সশস্ত্র বাহিনীকে কাজ করার আহ্বান সড়ক পরিবহন আইনের অসঙ্গতি দূর করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ‘বিএনপি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুজব সৃষ্টি করছে’- কাদের অনার্স ২য় বর্ষের ২৫ নভেম্বরের পরীক্ষা স্থগিত কোন অপপ্রচারে কান না দিতে জনগণের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান ‘গোলাপি’ যাত্রা রাঙ্গাতে কাল মাঠে নামছে বাংলাদেশ সারাবিশ্বে বাংলাদেশ এখন সম্মানের দেশ: প্রধানমন্ত্রী সশস্ত্র বাহিনী দিবসের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী আজ সন্ধ্যায় আ. লীগের অভ্যর্থনা উপকমিটির সভা ইউনেস্কোর সাধারণ অধিবেশনে অংশ নিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী শিখা অনির্বাণে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
১৬৩

এই বৃদ্ধের ১৮৪ বয়সেও হয়নি মৃত্যু, ছেড়ে দিয়েছেন মৃত্যুর আশা!

প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

প্রত্যেক মানুষকেই মৃত্যু স্বাদ গ্রহণ করতে হবে। এই কথাটা অমোঘ সত্য। তবে সুন্দর এ ভুবনে কে-ই বা মরতে চায়। কিন্তু অবাক হলেও সত্য, এক বৃদ্ধ ১৮৪ বছর বয়সেও মারা যাননি। তিনি মৃত্যুর আশা ছেড়েও দিয়েছেন!

এ বৃদ্ধের নাম মহাশতা মুরাসি। ১৮৩৫ সালে ভারতের বেঙ্গালুরুতে জন্ম। তার সন্তানরা, এমনকি নাতি-নাতনিরাও বেঁচে নেই। কিন্তু মৃত্যু এখন পর্যন্ত তাকে গ্রাস করতে পারেনি। বৃদ্ধ বলেন, যম বোধ হয় আমাকে নিতে ভুলে গেছে।

ওই বৃদ্ধ এক সংবাদমাধ্যমকে দুঃখ করে বলেন, আমার চোখের সামনে আমার বহু নাতি-নাতনিদের মরে যেতে দেখেছি। কিন্তু আমাকে আজ পর্যন্ত মৃত্যু গ্রাস করতে পারেনি। 

বর্তমানে এই বৃদ্ধ মৃত্যুর আশা ছেড়ে দিয়েছেন! তবে শেষ জীবনে তার ইচ্ছে, বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক ব্যক্তি হিসেবে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পাওয়া। 

রেকর্ড বলছে, এর আগে গিনিস ওয়ার্ল্ড বুকে প্রবীণ ব্যক্তি হিসেবে ফ্রান্সের জিয়ানে লুইস কালমেন্ট নাম লিখিয়েছেন। ১২২ বছর বেঁচে এ রেকর্ড গড়েন তিনি। ১৮৭৫ সালে জন্ম নেয়া জিয়ানে লুইস কালমেন্ট ১৯৯৭ সালে মারা যান।

এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মহাশতা মুরাসির জন্ম ১৮৩৫ সালের ৬ই জানুয়ারি। এই হিসাব অনুযায়ী তার বয়স ১৮৪। তবে তার জন্মের কোনো প্রমাণপত্র পাওয়া যায়নি। 

এই ব্যক্তি শেষবার ১৯৭১ সালে চিকিৎসকের কাছে গিয়েছিলেন। তিনিও মারা গেছেন। বৃদ্ধ বয়সে তার শুধু একটাই চাওয়া- বিশ্বের সবচেয়ে বৃদ্ধ ব্যক্তির স্বীকৃতি পাওয়া।

এই বিভাগের আরো খবর