বৃহস্পতিবার   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১৫ ১৪২৬   ০৩ রজব ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ বঙ্গবন্ধু অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ দিয়েছেন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মশা যেন ভোট খেয়ে না ফেলে, নতুন মেয়রদের প্রধানমন্ত্রী তাপস-আতিককে শপথ পড়ালেন প্রধানমন্ত্রী আমার কাছে রিপোর্ট আসছে, কাউকে ছাড়ব না : প্রধানমন্ত্রী দ্বিতীয় কিস্তির ২৭ কোটি ৬০ লাখ টাকা বিটিআরসিকে দিল রবি মাধ্যমিক পর্যন্ত বিজ্ঞান বাধ্যতামূলকের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ওপর নজরদারি বাড়াতে বললেন প্রধানমন্ত্রী বরগুনায় ওয়ারেন্ট ভুক্ত দুই আসামী গ্রেপ্তার আজকের স্বর্ণপদক প্রাপ্তরা ২০৪১ এর বাংলাদেশ গড়ার কারিগর যে কোন অর্জনের পেছনে দৃঢ় মনোবল এবং আত্মবিশ্বাস গুরুত্বপূর্ণ ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’ পেলেন ১৭২ শিক্ষার্থী আজ ১৭২ শিক্ষার্থী প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক পাচ্ছেন অশান্ত দিল্লিতে কারফিউ, নিহত ১৭ পিকে হালদারসহ ২০ জনের ব্যাংক হিসাব জব্দের আদেশ বহাল ৭ মার্চ জাতীয় দিবস ঘোষণা করে হাইকোর্টের রায় ১৪ দিনেই ভালো হচ্ছেন করোনা রোগী : আইইডিসিআর মুশফিক-নাঈমে ইনিংস ব্যবধানে দূর্দান্ত জয় টাইগারদের পিলখানা ট্র্যাজেডি দিবস আজ রিফাত হত্যা মামলার আসামি সিফাতের বাবা গ্রেফতার
৮৮

একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন বৃষ্টি

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

নোয়াখালী শহরের মাইজদীতে একসঙ্গে চার সন্তানের জন্ম দিয়েছেন নাছরিন আক্তার বৃষ্টি (২৬) নামের এক নারী।

শনিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় শহরের গুডহিল কমপ্লেক্স হাসপাতালের অপারেশন কক্ষে নরমাল ডেলিভারির মাধ্যমে ওই চার সন্তানের জন্ম দেন বৃষ্টি। তিনি নোয়াখালী পৌরসভার উজ্জ্বলপুর এলাকার কাতার প্রবাসী মো. মোহনের স্ত্রী। 

এদিকে এক সঙ্গে চার সন্তানের জন্ম দেওয়ায় বৃষ্টির পরিবার ও আত্মীয়স্বজনদের মধ্যে আনন্দের বন্যা বইছে। তার ভগ্নিপতী ইউছুফ সুমন ও বড় ভাই মো. আজাদ জানান, শনিবার দুপুরে প্রসবযন্ত্রণা উঠলে দ্রুত বৃষ্টিকে গুডহিল কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানেই সন্ধ্যার দিকে ডা. লুৎফুন নাহারের তত্ত্বাবধানে নরমাল ডেলিভারির মাধ্যমে চার সন্তান প্রসব করেন তিনি। প্রথমে এক কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। এরপর একে একে তিন ছেলের জন্ম দেন বৃষ্টি। 

বৃষ্টির মা নাছরিন আক্তার বলেন, ওর প্রবাসী স্বামীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা হয়েছে। সে বেজায় খুশি। আল্লাহ যেন এই সন্তানদের সুস্থ রাখে সে জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছে সে।  

এদিকে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, সদ্যজাত ওই চার শিশু স্বাভাবিক সময়ের আগে জন্ম নেওয়ায় ওজন তুলনামূলক কম। 

হাসপাতালের শিশু চিকিৎসক কর্ণজিৎ মজুমদার জানান, নবজাতকদের স্বাভাবিক ওজন হলো আড়াই কেজি। কিন্তু এই চার নবজাতকের ওজন স্বাভাবিকের তুলনায় কম হওয়ায় তাদের কিছু শারীরিক সমস্যা দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে শ্বাসকষ্টে ভুগছে শিশুগুলো।

‘নবজাতকদের ওজন ১ কেজি আড়াইশ গ্রাম থেকে দেড় কেজির মধ্যে হওয়ায় তাদের স্বাস্থ্যঝুঁকি রয়েছে। তাদের বর্তমানে হাসপাতালের আইসিইউতে রাখা হয়েছে। শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখা দিলে উন্নত চিকিৎসার জন্য এ শিশুদের ঢাকা শিশু হাসপাতালে স্থানান্তরের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

বৃষ্টি-মোহন দম্পতির মুন নামে পাঁচ বছর বয়সী আরও এক মেয়ে রয়েছে। 

বরগুনার আলো
এই বিভাগের আরো খবর