শুক্রবার   ০৩ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ২০ ১৪২৬   ০৯ শা'বান ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
প্রতি উপজেলা থেকে নমুনা সংগ্রহ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সমালোচনা করছে বিএনপি : কাদের দেশে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৬ জন সুস্থ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী সেনাবাহিনী কতদিন মাঠে থাকবে সরকার বিবেচনা করবে: সেনাপ্রধান করোনায় খাদ্য ঘাটতি হবে না : কৃষিমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখ‌ছেন প্রধানমন্ত্রী আজ সকালে ৬৪ জেলার কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর কনফারেন্স পিপিই যেন নষ্ট না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনা মোকাবিলায় সরকার জনগণের পাশে আছে -প্রধানমন্ত্রী ছুটিতে কর্মস্থল ছাড়া যাবে না : সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন করোনা সংকটকালে জনগণের পাশে থাকবে আ.লীগ: কাদের আমি করোনায় আক্রান্ত হইনি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত নেই : আইইডিসিআর পদ্মা সেতু‌তে বসলো ২৭তম স্প্যান, দৃশ্যমান হলো ৪ হাজার ৫০ মিটার সব পোশাক কারখানা বন্ধের নির্দেশ পবিত্র শবে বরাত ৯ এপ্রিল অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না : প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী মুক্তি পেলেন খালেদা জিয়া সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী
৯৯

ওজন কমাতে রাতের চেয়ে সকালের খাবার বেশি কার্যকর

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ওজন কমানোর মূল চাবিকাঠি হতে পারে সকালে বেশি করে খাবার গ্রহণ। রাতের খাবারের চেয়ে সকালে বেশি পরিমাণ খেলে দ্বিগুণ পরিমাণ ক্যালরি ক্ষয়ে যেতে সহায়তা করে।

জার্মানির এক গবেষণায় দেখা গেছে, দিনের শুরুতে খাবার খাওয়া ওজন কমানোর জন্য বেশি কার্যকর। মানব শরীরে দিনের প্রথমভাগে নেয়া ক্যালরি ও দিনের শেষভাগে নেয়া ক্যালরির বিপাক প্রক্রিয়া একেবারে আলাদা।

পুষ্টিবিদদের মতে, দিনের শুরুতে যারা খাবার খান, বিকেল আসতে আসতে তারা তৃপ্ত ও কম ক্ষুধার্ত থাকেন। ফলে অকারণে চিপস ও বিস্কুটের প্যাকেট বা আইসক্রিম খাওয়ার প্রবণতা কমে আসে।

জার্মানির লুবেক বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা জানিয়েছেন, এটি রক্তের শর্করার মাত্রা স্থিতিশীল রাখার পাশাপাশি ওজন হ্রাসের মূল বিষয় হতে পারে।

তাদের গবেষণায় দেখা গেছে, সকালে বেশি করে খাদ্যগ্রহণ করলে বিপাক প্রক্রিয়ার কার্যক্রম বাড়ায় যা ডায়েট-ইনডিউসড থার্মোজেনেসিস (ডিআইটি) নামে পরিচিত।

এই ডিআইটি হলো শরীর গরম রাখতে এবং খাদ্য হজম করতে ব্যয় করে এমন ক্যালরির সংখ্যা। যারা রাতের খাবারের চেয়ে প্রাতরাশে বেশি খাদ্যগ্রহণ করেন তাদের ক্ষেত্রে এর মাত্রা দ্বিগুণ।

জার্নাল অব ক্লিনিকাল এন্ডোক্রিনোলজি অ্যান্ড মেটাবলিজমে প্রকাশিত গবেষণাটি ১৬ জন পুরুষের ওপর পরীক্ষা করা হয়েছিল। গবেষকরা স্বীকার করেছেন, কম ক্যালরি সকালে ক্ষুধা বাড়ায়, বিশেষত মিষ্টির জন্য।

গবেষণায় দেখা গেছে, রক্তে শর্করার পরিমাণ এবং ইনসুলিনের ঘনত্ব বৃদ্ধি সকালে খাবার গ্রহণের ফলে যেভাবে কমে, রাতের খাবারের পর সেভাবে কমে না।

গবেষণায় আরও দেখা যায়, সকালে অল্প ক্যালরির খাবার গ্রহণ করলে বেশি মাত্রার ক্ষুধার সঙ্গে মিষ্টির প্রতি মানুষের অভিলাষ সৃষ্টি হয়।

লুবেক বিশ্ববিদ্যালয়ের নিউরো বায়োলজিস্ট ড. জুলিয়ান রিখটার বলেছেন, আমাদের গবেষণাটি সব মানুষের জন্য তাৎপর্যপূর্ণ। তিনি বলেন, নৈশভোজের পরিবর্তে সকালে বেশি খাওয়া স্থূলতা ও রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করতে পারে।

বরগুনার আলো
এই বিভাগের আরো খবর