• সোমবার   ০৬ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২২ ১৪২৭

  • || ১৫ জ্বিলকদ ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
করোনায় আরও ৪৪ মৃত্যু, শনাক্ত ৩২০১ ভিসার মেয়াদ বাড়ালো সৌদি আরব: পররাষ্ট্রমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ২৭৩৮, মৃত্যু ৫৫ কাউকেই ভূতুড়ে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে হবে না: বিদ্যুৎ সচিব আজ থেকে অধস্তন আদালতে আত্মসমর্পণ করা যাবে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ২৯ মৃত্যু, শনাক্ত ৩২৮৮ বেতন-ভাতা পরিশোধে মালিকরা সহমর্মিতার নজির দেখাবেন : কাদের পাটকল শ্রমিকরা দুই ধাপে সব পাওনা পাবে: পাটমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৪০১৯, মৃত্যু ৩৮ চালের বাজার অস্থিতিশীল করলে কঠোর ব্যবস্থা : খাদ্যমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৩৭৭৫, মৃত্যু ৪১ যত্রতত্র পশুরহাটের অনুমতি দেওয়া যাবে না- ওবায়দুল কাদের জঙ্গিবাদ দমনে সফলতা ধরে রাখতে কাজ করে যাচ্ছি: র‌্যাব ডিজি ৩৮তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৬৪ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৬৮৩ শিগগিরই আরও ৪ হাজার নার্স নিয়োগ: প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৪৫ মৃত্যু, শনাক্ত ৪০১৪ অর্ধশত যাত্রী নিয়ে বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি, উদ্ধার কাজ চলছে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৪৩ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৮০৯ ফ্লাইট পরিচালনার অনুমোদন পাচ্ছে ৪ বিদেশি এয়ারলাইন্স
৩৬

করোনা থেকে বাঁচতে হাত শুধু ধুলেই হবে না, শুকিয়ে নিতে হবে

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২৫ মার্চ ২০২০  

করোনাভাইরাসের মতো শ্বাসতন্ত্রে আক্রমণকারী ভাইরাসগুলো তখনই ছড়ায় যখন তা চোখ, নাক বা গলার শ্লেষ্মার মধ্য দিয়ে শরীরে প্রবেশ করে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে তা হাতের মাধ্যমেই হয়ে থাকে। ভাইরাসটি একজন থেকে আরেকজনে সংক্রমণের প্রধান মাধ্যমও হাত। বিশ্ববাপী মহামারী আকারে যখন ভাইরাসটি ছড়ায় তখন এর বিস্তার রোধের সবচেয়ে সহজ, সাশ্রয়ী ও কার্যকর উপায়গুলোর একটি হল ঘনঘন সাবান ও পানি দিয়ে হাত ধোয়া। তবে শুধু হাত ধুলেই হবে না, ধোয়ার পর শুকিয়ে নিতে হবে। কোন কিছু স্পর্শ করার আগে হাত শুকিয়ে না নিলে সংক্রমণের সম্ভাবনা থেকে যাবে।

যখনই সম্ভব, এবং বিশেষত কোনও পাবলিক বাথরুমের সেটিংয়ে, হ্যান্ড ড্রায়ার ব্যবহার করার আগে দু'বার চিন্তা করুন, কারণ, সদ্য ভেজা হাত বাতাস থেকে ভাইরাস চুষতে পারে। এতে সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যাবে। তাই হাত ধোয়ার পর শুকনা কাপড় বা টিস্যু দিয়ে ভালোভাবে শুকিকে নিতে হবে।

পিএম পেডিয়াট্রিক্সের সিনিয়র চিকিৎসক ও মুখপাত্র ক্রিস্টিনা জোনস বলেছিলেন,'আমরা যা জানি তা হল বাথরুমে বায়ুর সঙ্গে জীবাণু, ব্যাকটোরিয়া চারপাশে ছড়িয়ে পড়ে এবং এটা আমাদের স্বাস্থের জন্য ভালো নয়। অবশ্যই, কোনও ধরণের জীবাণু যা মাটিতে দীর্ঘদিন বৃদ্ধি পেয়েছে তা সবসময়ই আপনার জন্য বড় হুমকি। বিশেষ করে যখন এগুলো ভালোভাবে ব্লিচ করে জীবাণুমুক্ত করা হয়নি।'

জোনস বলেন, যখন বাথরুমে মোটর ছেড়ে দেওয়া হয় তখন বাতাসের সঙ্গে এই জীবাণুগুলো উড়তে শুরু করে। তারপরে শ্বাস-প্রশ্বাস বা হাত দিয়ে যখন আপনি মুখ স্পর্শ করেন তখন এটা শরীরের ভেতরে প্রবেশ করে।

যুক্তরাষ্ট্রের ডেলাওয়্যার রাজ্যের নেমর্স / অ্যালফ্রেড আই-র ডুপন্ট হাসপাতালের পেডিয়াট্রিক্স সার্জন ও সংক্রামক রোগের চিকিৎসক ডা. ক্রেগ শাপিরো বলেছিলেন, শিশুদের বাথরুমগুলি প্রায়শই স্পর্শিত তলদেশে পূর্ণ থাকে,তাই জীবাণু থেকে দূষণের উচ্চ ঝুঁকি রয়েছে। বাথরুমে শিশুদের ক্ষেত্রে অধিক সতর্কতা প্রয়োজন।

করোনাভাইরাস নিয়ে শাপিরো বলেন,করোনাভাইরাস কতক্ষণ পৃষ্ঠে বেঁচে থাকতে পারে তা নিশ্চিতভাবে কেউ জানে না। এটি দুই ঘন্টা বা ২৪ ঘন্টা হতে পারে,আবার কয়েক দিন হতে পারে। ভাইরাসগুলি শ্বাস-প্রশ্বাস এবং এসব পৃষ্ঠের স্পর্শের মাধ্যমে শরীরে ছড়িয়ে পড়ে।

জীবাণুমুক্ত থাকার জন্য হাত ধোয়ার পরে শুকিয়ে নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ, শুকনো হাতের চেয়ে ভেজা হাত জীবাণুগুলিকে সহজেই স্থানান্তর করে।

তবে হাত শুকানোর জন্য শুষ্ক তোয়ালে অথবা কাগজের তোলায়ে ব্যবহার করতে হবে। উষ্ণ বায়ু ড্রায়ার, জেট এয়ার ড্রায়ার এসব ব্যবহার করা যাবে না। তাহলে ভাইরাস আরও দ্রুত ছড়িয়ে পড়বে। তিনটি পদ্ধতি (কাগজের তোয়ালে, উষ্ণ বায়ু ড্রায়ার এবং জেট এয়ার ড্রায়ার) নিয়ে গবেষণায় দেখা গেছে, জেট ড্রায়ার উষ্ণ বায়ু ড্রায়ারের চেয়ে ২০ গুণ বেশি এবং কাগজের তোয়ালের চেয়ে ১৯০ গুণ বেশি ভাইরাস ছড়িয়ে দিয়েছে, এবং একটি ছোট বাচ্চা যে স্তরে দাঁড়িয়ে থাকে সেই স্তরে ভাইরাসের প্রভাব সবচেয়ে বেশি ছিল।

শাপিরো বলেছিলেন, ড্রায়ারের আদর্শ বিকল্পটি হল একক-ব্যবহারযোগ্য কাগজের তোয়ালে। হাত ভালোভাবে সাবান-পানি দিয়ে ধোয়ার পর এটা দিয়ে ভালোভাবে শুকিয়ে নিতে হবে। তাহলেই জীবাণু ছড়ানোর সম্ভাবনা থাকবে না।

শুষ্ক ত্বকের চেয়ে ভেজা ত্বক থেকে জীবাণু সহজে ছড়ায়। তাই হাত পুরোপুরি শুকিয়ে নেওয়াটা গুরুত্বপূর্ণ। অন্য কোথাও জীবাণু ছড়ানোর আগে তা দূর করতে হাত পরিষ্কার কাপড়, টিস্যু বা ব্যক্তিগত ব্যবহার্য তোয়ালে দিয়ে মুছে শুকিয়ে নেওয়াই সর্বোত্তম।

বরগুনার আলো
স্বাস্থ্য বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর