• শনিবার   ১১ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২৭ ১৪২৭

  • || ২০ জ্বিলকদ ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৩০ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬৮৬ লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিকে হত্যার ঘটনায় চক্রের দুই সদস্য কারাগারে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৪১ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৩০৭ এইচএসসিতে ভর্তি কার্যক্রম শুরু শিগগিরই: শিক্ষামন্ত্রী করোনায় মৃত প্রবাসীর পরিবার পাবে ৩ লাখ টাকা করে: প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৪৬ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৪৮৯ করোনা শনাক্তে প্রতারণায় কঠোর অবস্থানে সরকার : ওবায়দুল কাদের করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৫৫ মৃত্যু, শনাক্ত ৩০২৭ চলে গেলেন বরেণ্য সংগীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোর করোনায় আরও ৪৪ মৃত্যু, শনাক্ত ৩২০১ ভিসার মেয়াদ বাড়ালো সৌদি আরব: পররাষ্ট্রমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ২৭৩৮, মৃত্যু ৫৫ কাউকেই ভূতুড়ে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে হবে না: বিদ্যুৎ সচিব আজ থেকে অধস্তন আদালতে আত্মসমর্পণ করা যাবে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ২৯ মৃত্যু, শনাক্ত ৩২৮৮ বেতন-ভাতা পরিশোধে মালিকরা সহমর্মিতার নজির দেখাবেন : কাদের পাটকল শ্রমিকরা দুই ধাপে সব পাওনা পাবে: পাটমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৪০১৯, মৃত্যু ৩৮ চালের বাজার অস্থিতিশীল করলে কঠোর ব্যবস্থা : খাদ্যমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৩৭৭৫, মৃত্যু ৪১
১৮৮

কাঠ ধ্বংসকারী ঘুন বা উঁইপোকা দূর করার কার্যকরী উপায়

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২৭ নভেম্বর ২০১৯  

সবারই জানা- ঘুন পোকা, উঁইপোকা বা টারমাইট এরা কাঠ ধ্বংসকারী পোকা। ভবনের কাঠের কাজ, আসবাবপত্রে ধ্বংসকারী সাদা পিঁপড়াকে উঁই পোকা বা টারমাইন বলে। এই সকল কাঠ ধ্বংস কারী পোকা ড্রাই উড টারমাইট শ্রেণীর অন্তর্গত।  

দুই ভাবে এসব কাঠ ধ্বংসকারী পোকা প্রতিরোধ করা যায়। যেমন- নির্মাণকাজের পূর্বের ব্যবস্থা ও নির্মাণকাজের পরের ব্যবস্থা।

নির্মাণ কাজের পূর্বের ব্যবস্থা

কাঠ ধবংসকারী পোকা প্রতিরোধক হিসাবে বিভিন্ন প্রকার কীটনাশক পাউডার বাজারে কিনতে পাওয়া যায়। সাধারণত চার লিটার পানিতে নিম্নের যে কোনো একটি রাসায়নিক পদার্থ মিশ্রিত করে দ্রবণ তৈরি করে কাঠে ব্যবহার করা হয়। কাঠে কিটনাশক ব্যবহারের পর কাঠ শুকিয়ে নিয়ে নির্দিষ্ট কাজে ব্যবহার করা হয়।  

 ক্যামিকেল ও পরিমাণ- DDT (৫%), BHC (০.৫%), Aldrin (০.২৫%), Heptachlor (০.২৫%), Chlordane (০.৫%)।  


নির্মাণ কাজের পরের ব্যবস্থা

কাঠের যে স্থানে উঁইপোকা বা টারমাইট আক্রান্ত সে স্থানে কেরোসিন যুক্ত রাসায়নিক ইমালশন (বাজারে কিনতে পাওয়া যায়) এর প্রলেপ দিতে হবে। আর এতে করে টারমাইন বা উঁইপোকার আক্রমণ থেকে কাঠকে রক্ষা সম্ভব। কাঠে কেরোসিন তেল ব্যবহার করলে দীর্ঘ দিন ঘুন থেকে মুক্ত থাকা যায়।

> তাছাড়া রং অথবা আলকাতরা ব্যবহার করলে পোকা ও ঘুন আক্রমণ করতে পারে না।

> আসবাব জাতীয় কাঠে পোকা যেন না লাগে তার জন্য তরল পদার্থ- তারফিন, বিষ, কেরোসিন কাঠের গায়ে লাগানো যেতে পারে। অন্যান্য কাজে ব্যবহৃত কাঠে আলকাতরা বা গাড় রঙ লাগালে অনেক দিন পর্যন্ত পোকা থেকে নিরাপদ থাকা সম্ভব।

> কাঠের ভেতরে যদি একবার পোকা ঢুকে যায় তবে সে পোকা তাড়ানো বা মেরে ফেলা খুবই কঠিন। বিশেষ করে এক ধরণের কাঠ পোকা দেখতে সাদা, আর লম্বা ১ ইঞ্চি ।এই পোকাগুলো কাঠের ভেতরেই বাসা বাধে। এরা যখন কাঠ কাটে তখন শব্দ শোনা যায়। এই পোকা তাড়ানো সম্ভব না। এদেরকে মেরে ফেলতে হয়। তাই ইনজেকশনের সিরিঞ্জ দিয়ে বিষ প্রায়োগ করতে হবে যে ছিদ্র দিয়ে পোকা ঢুকে।

> নিমপাতা প্রকৃতির এক আশ্চর্য দান। এই পাতায় আছে পোকামাকড় দূর করার অনন্য ক্ষমতা। ঘরের কোণায়, আলমারিতে, তোশকের নিচে শুকনো নিমপাতা দিয়ে রাখুন। ঘরে কোনো পোকামাকড়ই আসবে না।

বরগুনার আলো