বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬   ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সশস্ত্র বাহিনীকে গড়ে তোলা হবে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে সশস্ত্র বাহিনীকে কাজ করার আহ্বান সড়ক পরিবহন আইনের অসঙ্গতি দূর করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ‘বিএনপি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুজব সৃষ্টি করছে’- কাদের অনার্স ২য় বর্ষের ২৫ নভেম্বরের পরীক্ষা স্থগিত কোন অপপ্রচারে কান না দিতে জনগণের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান ‘গোলাপি’ যাত্রা রাঙ্গাতে কাল মাঠে নামছে বাংলাদেশ সারাবিশ্বে বাংলাদেশ এখন সম্মানের দেশ: প্রধানমন্ত্রী সশস্ত্র বাহিনী দিবসের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী আজ সন্ধ্যায় আ. লীগের অভ্যর্থনা উপকমিটির সভা ইউনেস্কোর সাধারণ অধিবেশনে অংশ নিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী শিখা অনির্বাণে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা দুদকের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ সশস্ত্র বাহিনী নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবেন- প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে আইভোরি কোস্টের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ সশস্ত্র বাহিনী জাতির গর্বের প্রতীক : রাষ্ট্রপতি আজ বিশ্ব টেলিভিশন দিবস সারাদেশের পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন লিখতে হবে স্পষ্ট অক্ষরে: হাইকোর্ট আজ সশস্ত্র বাহিনী দিবস
১৩

কোচিং ব্যবসায় শিক্ষকরা, রাজস্ব আদায়ে ব্যবস্থা নিচ্ছে এনবিআর

প্রকাশিত: ৮ নভেম্বর ২০১৯  


সঠিকভাবে রাজস্ব পরিশোধ করছেন না রাজধানীর কোচিং সেন্টারের শিক্ষকরা। এসব শিক্ষকদের অনেকে মাসে লাখ টাকার বেশি আয় করেন। এ অবস্থায় কোচিং সেন্টারের শিক্ষকদের কাছ থেকে রাজস্ব আদায়ে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) চলতি কর বর্ষে ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান সঠিক হিসাবে রিটার্ন জমা দিচ্ছে কি না, তা জানতে নজরদারি করার আহ্বান করেছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন। 

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, ‘শিক্ষকদের অনেকে স্কুল-কলেজে শিক্ষকতার পাশাপাশি কোচিং করিয়ে মোটা অঙ্কের অর্থ পান। অথচ তা রিটার্নে উল্লেখ করেন না। এবার এ বিষয়ে বিশেষ নজরদারির ব্যবস্থা হচ্ছে।’

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, রাজধানীর নামি-দামি স্কুলের অনেক শিক্ষক-শিক্ষিকা স্কুল বা কলেজে চাকরির বাইরে কোচিং করান। অনেকে পৃথক বাড়ি বা ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে এই কোচিং ব্যবসা চালান। অনেকে আবার কোনো স্কুল-কলেজে চাকরি না করে শুধুই কোচিং করান।

এনবিআরের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা জানান, নামকরা কোচিং সেন্টারগুলোতে একেকজন শিক্ষক মাসে চার-পাঁচ লাখ আয় করে থাকেন। অথচ তাদের অনেকে নামমাত্র রাজস্বও দেন না। এসব কোচিং সেন্টার থেকে হিসাব মতো রাজস্ব আদায়ের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর