বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৬ ১৪২৬   ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
শাহজালালে পৌঁছেছে পাকিস্তানের ৮২ টন পেঁয়াজ ক্রিকেটের সঙ্গে টেনিসও এগিয়ে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী রিফাত হত্যা : চার্জ গঠন ২৮ নভেম্বর চালের দাম বাড়ানোর চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা: খাদ্যমন্ত্রী র‌্যাব-৮ এর অভিযানে শীর্ষ সন্ত্রাসী গ্রেফতার ৭ ডিসেম্বর বিচারবিভাগীয় সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী বরিশাল বোর্ডে এসএসসিতে বৃত্তি পাচ্ছেন ১৪১৭ শিক্ষার্থী কবি সুফিয়া কামালের মৃত্যুবার্ষিকী আজ জাতীয় অর্থনীতিতে নারীর অবদান সবচেয়ে বেশি: পলক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ট্রাক মালিকদের ফের বৈঠক আজ চক্রান্তকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে: ওবায়দুল কাদের দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী লবণের দাম বাড়ালে জেল-জরিমানা : বাণিজ্যমন্ত্রী লবণ নিয়ে গুজবে কান দিবেন না: শিল্প মন্ত্রণালয় ২০২১ সালের মধ্যে ১০০০ উদ্যোক্তা তৈরিতে সহায়তা দেবে সরকার পদ্মাসেতুর প্রায় আড়াই কিলোমিটার দৃশ্যমান সেনা কল্যাণ সংস্থার চারটি স্থাপনা উদ্বোধন মালিতে জঙ্গি হামলায় ২৪ সেনা নিহত কন্যা সন্তানের জনক হলেন তামিম কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সভা আজ

ক্যাম্পাসের বটতলায় গায়ে হলুদ!

প্রকাশিত: ৬ নভেম্বর ২০১৯  

 

বাঁশের ডালা, কুলা, চালুন ও মাটির সরা, ঘড়া, মটকা, কলাগাছের গেটে গ্রামীণ সাজসজ্জায় রঙিন তেকোনা কাগজ দিয়ে বিয়ের বাড়ির আমেজ তৈরির মধ্য দিয়ে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাককানইবি) ফোকলোর বিভাগের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী হাবীবা দিপুর গায়ে হলুদ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

দিপুর বাসা নেত্রকোনা জেলার আটপাড়ায় এবং পাত্রের বাসা মদনে। সমাজসেবা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা মুহিব্বুল্লাহ হক লালনের সঙ্গে পারিবারিক ভাবে বিয়ে ঠিক হয়েছে দিপুর। বিয়ের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ১৪ নভেম্বর।

মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুদ্বীপের বটতলায় কনের সহপাঠীদের আয়োজনে দিপুর গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান শুরু হয়। বন্ধুবান্ধব ছাড়াও বিভাগের সিনিয়র-জুনিয়রদের পাশাপাশি এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিভাগীয় প্রধান সহকারী অধ্যাপক সাকার মুস্তাফা ও মেহেদী উল্লাহ।

বান্ধবী আসমাউল হুসনা শান্তা বলেন, ‘বিয়েতে সবার পক্ষে ওর বাড়িতে যাওয়া সম্ভব না তাই বান্ধবীর বিয়ের মজা করার জন্য ক্যাম্পাসে এই হলুদের ব্যতিক্রমী আয়োজন। বান্ধবীর ভবিষ্যত দাম্পত্য জীবনের জন্য সবার শুভকামনা জানানোই এই আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য ছিল।’

সাজসজ্জা নিয়ে কনের অপর বান্ধবী সেঁজুতি ধর জানান, ‘ফোকলোরের শিক্ষার্থী হিসেবে আমরা গায়ে হলুদ লোকাচারটি চিরায়ত বাংলার যথাযথ আঙ্গিকে ফুটিয়ে তুলতে চেয়েছি। ছিল দেশীয় খাবারের সমাহার।’

এই বিভাগের আরো খবর