সোমবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৬   ১১ রবিউস সানি ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ সালমান-ক্যাটরিনার বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে সনু নিগমের গান এনডিসি গ্র্যাজুয়েটদের জ্ঞান উন্নয়নের কাজে লাগানোর আহ্বান ভিপি নুরকে কাজে লাগিয়ে চলছে বিএনপির অপরাজনীতি! চাঞ্চল্যকর মামলা নিবিড় তদারকির নির্দেশ আইজিপির বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী মাছ দিয়ে পদ পাওয়া যাচ্ছে সিংড়া বিএনপিতে, কমিটি নিয়ে অসন্তোষ চরমে! মাদক সেবনকালে নয়াপল্টন এলাকা থেকে ৭ বিএনপি কর্মী আটক! পরকীয়ায় ব্যস্ত খালেদার আইনজীবী, জামিনে মনোযোগ নেই! বরগুনায় তিন দিনব্যাপি কৃষি প্রযুক্তি মেলা শুরু নারীরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে এগিয়ে যাবেন  নারীর স্বনির্ভরতা অর্জনে সকলকে একযোগে কাজ করতে রাষ্ট্রপতির আহবান সচিবালয়ের আশপাশে হর্ন বাজালেই জেল-জরিমানা পরস্পরের সালাম শুভেচ্ছা বিনিময়ের শ্রেষ্ঠ প্রথা মানবাধিকার দিবসে প্রকাশ্যে আসছেন এসিডদগ্ধ দীপিকা দেশের প্রথম আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর নির্মাণকাজের উদ্বোধন   শুরু হলো বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বিজয়ীদের চলচ্চিত্র পুরস্কার তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী বিপিএল উদ্বোধনীতে সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফ মঞ্চ প্রস্তুত, অপেক্ষা কিছুক্ষণের
৩৮

গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের কাজ হবে বৈধ সফটওয়্যার ব্যবহার করে`

প্রকাশিত: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

 

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম বলেছেন, ভবিষ্যতে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন গণপূর্ত অধিদপ্তর, রাজউকসহ অন্যান্য দপ্তরে আইনগত প্রক্রিয়ায় প্রাপ্ত সফটওয়্যার ব্যবহার করা হবে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান আইটেক আনলিমিটেডের উদ্যোগে স্থাপত্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের ‘অ্যাডভান্সড ট্রেনিং অন লাইসেন্সড অটোক্যাড’ বিষয়ক প্রশিক্ষণের সনদপত্র প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, আইনসঙ্গত কাজ করাই আইনের শাসন। সে আঙ্গিকে অন্যভাবে সংগৃহীত সফটওয়্যার ব্যবহার করা আইনসঙ্গত নয়। বাংলাদেশে বিদ্যমান আইন অনুযায়ী পাইরেসি করা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এ অপরাধে সর্বোচ্চ সাত বছরের সাজা হতে পারে। তথ্য প্রযুক্তি সংক্রান্ত সাইবার অপরাধও এর অন্তর্ভুক্ত। আমরা এখন আইনসম্মত প্রক্রিয়ায় আইনানুগ উপায়ে স্থাপত্য অধিদপ্তরে সফটওয়্যার এনেছি। এটা অত্যন্ত ভালো একটা দিক।
আইটেক আনলিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কে এম এইচ শহীদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শহীদ উল্লা খন্দকার এবং আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন স্থাপত্য অধিদপ্তরের প্রধান স্থপতি কাজী গোলাম নাসির। 

মন্ত্রী বলেন, “প্রযুক্তি নির্ভরতা বাংলাদেশকে উন্নত, সমৃদ্ধ, আধুনিক ও বিশ্বমানের একটি রাষ্ট্রের জায়গায় নিয়ে যেতে সহায়তা করেছে। বাংলাদেশ এখন ডিজিটাল বাংলাদেশে পরিণত হয়েছে। এই ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি শুধু স্বপ্ন দেখেন না, স্বপ্ন বাস্তবায়নও করেন। বাংলাদেশে ডিজিটাল রাষ্ট্রব্যবস্থা আজ সরকারি, বেসরকারি ও সাধারণ নাগরিকের কর্মকান্ডে সর্বত্র পৌঁছে গেছে। 

স্থাপত্য অধিদপ্তরের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত স্থপতিদের উদ্দেশে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী বলেন, স্থাপত্য অধিদপ্তর স্বল্প জনবল নিয়ে সারা বাংলাদেশে কাজ করে যাচ্ছে। স্থাপত্য অধিদপ্তরের স্থপতিদের বিরুদ্ধে সরকারি দায়িত্ব পালনে বড় কোন অভিযোগ নেই। এটি প্রতিষ্ঠানটিকে একটি স্বাতন্ত্র্য দিয়েছে, বিশেষায়িত হিসেবে চিহ্নিত করেছে। অধিদপ্তরের স্থপতিদের এ জায়গা ধারণ করতে হবে, বিশ্বাস করতে হবে এবং চর্চা করতে হবে যাতে আরো বেশি উৎকর্ষ সাধন করা যায়। সৃষ্টির ভেতর থেকে স্থপতিদের টিকে থাকতে হবে। রক্ত মাংসের দেহ নশ্বর, কিন্তু কীর্তি অবিনশ্বর। অবিনশ্বর কীর্তির ভেতরে টিকে থাকার জন্য আমি চাই স্থপতিদের মধ্যে প্রতিযোগিতা হোক।

এই বিভাগের আরো খবর