• সোমবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ১২ ১৪২৭

  • || ১১ জমাদিউস সানি ১৪৪২

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
দেশে পৌঁছেছে সেরামের ৫০ লাখ টিকা রমজানে টিসিবির পণ্য ৩ গুণ বাড়ানো হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী রেশম শিল্পের উন্নয়নে সমন্বিত উদ্যোগ নেওয়া হবে: পাটমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২০, শনাক্ত ৪৭৩ অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে ঐক‌্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান: কাদের দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির নিয়মিত ক্লাস হবে: শিক্ষামন্ত্রী ঢাকা শুধু বাসযোগ্য নয়, বিনোদন কেন্দ্রে পরিণত হবে: তাজুল করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২২, শনাক্ত ৪৩৬ সবার আগে আমি ভ্যাকসিন নেব : অর্থমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১৬, শনাক্ত ৫৮৪ সার্জেন্টের ওপর হামলাকারী সেই যুবক গ্রেপ্তার পিকে হালদারের দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে দুদক প্রতিক্রিয়াশীলতা বিএনপির রাজনৈতিক চরিত্র: কাদের সরকারের সাফল্যে বিএনপি উদ্ভ্রান্ত হয়ে গেছে : তথ্যমন্ত্রী বাইডেন কমলাকে রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন সীমান্তে শান্তি-শৃঙ্খলা বিরাজ করছে : সংসদে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকায় পৌঁছে গেছে করোনার টিকা ওয়েস্ট ইন্ডিজকে উড়িয়ে শুভ সূচনা টাইগারদের পৌর নির্বাচনে নৌকার বিপক্ষে গেলেই কঠোর ব্যবস্থা: কাদের রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা দিতে ভাসানচরে নতুন থানা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

গোসল কখন ফরজ কখন সুন্নত

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ১৫ ডিসেম্বর ২০২০  

ইসলামী শরিয়ত মতে গোসলের বিধান সব সময় এক নয়। তা কখনো ফরজ, কখনো সুন্নত আর কখনো নফল বা মুস্তাহাব।

গোসল কখন ফরজ

চারটি কারণের কোনো একটি পাওয়া গেলেই গোসল ফরজ হয়ে যায়।

১।   জুনুবি অর্থাৎ কামনা পূরণের পর গোসল ফরজ হয়। যেমন—সহবাস, স্বপ্নদোষ বা যেকোনো উপায়ে বীর্যপাত হলে। (সুরা : মায়িদা, আয়াত : ৬)

২।   নারীদের মাসিক রক্তস্রাব বন্ধ হওয়ার পর পবিত্র হওয়ার জন্য গোসল ফরজ হয়। (বুখারি, হাদিস : ৩০৯)

৩।   মহিলাদের নেফাস বন্ধ হওয়ার পর গোসল ফরজ হয়। (কানজুল উম্মাল : ৯/১১০৯)

৪।   মৃত ব্যক্তিকে গোসল দেওয়া জীবিতদের ওপর ফরজ। (বুখারি, হাদিস : ১১৭৫)

 

গোসল কখন সুন্নত

চার অবস্থায় গোসল সুন্নত :

১।   জুমার নামাজের জন্য গোসল করা সুন্নত। (তিরমিজি, হাদিস : ৪৮৬)

২।   দুই ঈদের নামাজের জন্য গোসল করা সুন্নত। (ইবনে মাজাহ, হাদিস : ১৩০৬)

৩।   ইহরামের জন্য। (তিরমিজি, হাদিস : ৭৬০)

৪।   হাজি সাহেবদের জন্য আরাফায় অবস্থানকালে। (ইবনে মাজাহ, হাদিস : ১৩০৬, আলমুজামুল কাবির : ৯/৩০৭)

 

গোসল কখন মুস্তাহাব

নিম্নোল্লিখিত কয়েকটি অবস্থায় গোসল করা মুস্তাহাব।

১।   শাবানের ১৫ তারিখ রাতে। (জামেউল আহাদিস : ৩৯/৪৮৬, আলফিকহুল ইসলামি : ১/৪৮০)

২।   কদরের রাতে। (বুখারি, হাদিস : ৩৪)

৩।   সূর্য ও চন্দ্রগ্রহণের নামাজ এবং বৃষ্টি প্রার্থনার নামাজের জন্য গোসল করা মুস্তাহাব। (আবু দাউদ, হাদিস : ২৯৯)

৪।   ভীতিকর পরিস্থিতি, ব্যাপক অন্ধকার এবং প্রচণ্ড মেঘের সময়। (সুরা : আল হাক্কা, আয়াত : ৬)

৫।   নতুন কাপড় পরিধানের সময়। (তিরমিজি, হাদিস : ২৭২৩)

৬।   গুনাহ থেকে ক্ষমা চাওয়ার সময়। (ইবনে মাজাহ, হাদিস : ৪২৪০)

৭।   সফর থেকে প্রত্যাবর্তনের সময়। (তিরমিজি, হাদিস : ২৭২৩)

৮।   মদিনায় প্রবেশের সময়। (দারাকুতনি, হাদিস : ২৭২৬)

৯।   মক্কা মুকাররামায় প্রবেশের ইচ্ছা করলে। (বুখারি, হাদিস : ১৪৭০)

১০। কোরবানির দিন সকালে মুজদালিফায় অবস্থানের সময় এবং তাওয়াফে জিয়ারতের জন্য। (আবু দাউদ, হাদিস : ২৯৯, তিরমিজি, হাদিস : ২৭২৩)

১১। মৃত ব্যক্তিকে গোসল দানকারীর জন্য। (আবু দাউদ, হাদিস : ২৭৪৯)

১২।  শিঙ্গা লাগানোর পর। (আবু দাউদ, হাদিস : ২৯৪)

১৩।  মাতাল বা বেহুঁশ ব্যক্তির স্বাভাবিক জ্ঞান ফেরার পর। (মুসান্নাফে আব্দির রাজ্জাক : ১/১৩২, বুখারি, হাদিস : ৬৪৬)

১৪।  ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার সময়, যদি সে পাক থাকে তবু গোসল করা মুস্তাহাব। কিন্তু সে যদি নাপাক থাকে তবে তো গোসল করা ফরজ। (সহিহ ইবনে হিব্বান : ৪/৪২, সুরা : মায়িদা, আয়াত : ৬)

বরগুনার আলো