বৃহস্পতিবার   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১৫ ১৪২৬   ০৩ রজব ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ বঙ্গবন্ধু অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ দিয়েছেন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মশা যেন ভোট খেয়ে না ফেলে, নতুন মেয়রদের প্রধানমন্ত্রী তাপস-আতিককে শপথ পড়ালেন প্রধানমন্ত্রী আমার কাছে রিপোর্ট আসছে, কাউকে ছাড়ব না : প্রধানমন্ত্রী দ্বিতীয় কিস্তির ২৭ কোটি ৬০ লাখ টাকা বিটিআরসিকে দিল রবি মাধ্যমিক পর্যন্ত বিজ্ঞান বাধ্যতামূলকের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ওপর নজরদারি বাড়াতে বললেন প্রধানমন্ত্রী বরগুনায় ওয়ারেন্ট ভুক্ত দুই আসামী গ্রেপ্তার আজকের স্বর্ণপদক প্রাপ্তরা ২০৪১ এর বাংলাদেশ গড়ার কারিগর যে কোন অর্জনের পেছনে দৃঢ় মনোবল এবং আত্মবিশ্বাস গুরুত্বপূর্ণ ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’ পেলেন ১৭২ শিক্ষার্থী আজ ১৭২ শিক্ষার্থী প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক পাচ্ছেন অশান্ত দিল্লিতে কারফিউ, নিহত ১৭ পিকে হালদারসহ ২০ জনের ব্যাংক হিসাব জব্দের আদেশ বহাল ৭ মার্চ জাতীয় দিবস ঘোষণা করে হাইকোর্টের রায় ১৪ দিনেই ভালো হচ্ছেন করোনা রোগী : আইইডিসিআর মুশফিক-নাঈমে ইনিংস ব্যবধানে দূর্দান্ত জয় টাইগারদের পিলখানা ট্র্যাজেডি দিবস আজ রিফাত হত্যা মামলার আসামি সিফাতের বাবা গ্রেফতার
৯০

চীনে করোনা আক্রান্ত মৃতদের পোড়ানোর কারণ

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

চীনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে যারা মারা যাচ্ছেন লোকগুলোর লাশ সমাধিস্থ না করে সেগুলো পুড়িয়ে ফেলছে বলে জানা গেছে। কিন্তু কেন পুড়িয়ে ফেলা হচ্ছে সে প্রশ্নই থেকেই যায়।

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম ডেইলি মেইলের খবরে বলা হয়েছে, গত ১ ফেব্রুয়ারি চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের (এনএইচসি) জারি করা আদেশের ভিত্তিতে করোনাভাইরাসে মৃতদের লাশ পুড়িয়ে ফেলার ব্যবস্থা নেয়া হয়।

মূলত, প্রাণঘাতী এই ভাইরাস যাতে আরো ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে না পড়ে সেজন্যই এই পদক্ষেপ নিয়েছে দেশটি।

এনএইচসির ওই আদেশে বলা হয়, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের জন্য বিদায় অনুষ্ঠান বা কোনো ধরনের শেষকৃত্যের অনুষ্ঠান করা যাবে না।

লাশের সৎকার চলাকালে কাউকে সেখানে না থাকারও আদেশ দেয়া হয়। তবে লাশ পুড়িয়ে ফেলার পর দেহাবশেষ সংগ্রহ করতে পারবে স্বজনরা।

এদিকে আদেশ জারির পর থেকে চীনের শবদাহের চুল্লিগুলোতে কাজের চাপে কর্মীদের রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছেন। প্রতিদিনই চুল্লিগুলোতে দাহের জন্য আসা লাশের সংখ্যা বাড়তে থাকায় পরিস্থিতি সামাল দিতে কর্মীদের দিনে প্রায় ২৪ ঘণ্টাই কাজ করতে হচ্ছে।


উল্লেখ্য, চীনে মহামারী আকার ধারণ করেছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। এরই মধ্যে এই ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৭শ' ছাড়িয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৩৪ হাজার মানুষ। চীনের উহান থেকে ভাইরাসটি ছড়িয়েছে বিশ্বের অন্তত ২৫টি দেশে। গোটা বিশ্ব এ ভাইরাসের আতঙ্কে ভুগছে। সেই সঙ্গে চীনে মৃত্যুর মিছিল দিন দিন বেড়েই চলেছে।

বরগুনার আলো
এই বিভাগের আরো খবর