• সোমবার   ০১ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৮ ১৪২৭

  • || ০৯ শাওয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
পুরোপুরি স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্রেন চলছে: রেলমন্ত্রী দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৫৪৫ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ৪০ জন বাস ভাড়া যৌক্তিক সমন্বয়, প্রজ্ঞাপন আজই: ওবায়দুল কাদের এখনই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবো না: প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে এসএসসির ফল প্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল ১২টার পরিবর্তে ১১টায় প্রকাশ হবে এসএসসির ফল করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ২৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৭৬৪ পদ্মাসেতুর সাড়ে ৪ কি.মি. দৃশ্যমান, বসল ৩০তম স্প্যান পদ্মা সেতুর ৩০তম স্প্যান বসছে আজ একদিনে সর্বোচ্চ আড়াই হাজার শনাক্ত, মৃত্যু ২৩ জনের বিকেল ৪টার মধ্যে বন্ধ করতে হবে দোকান-শপিংমল দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২ হাজার ছাড়ালো, মৃত্যু ১৫ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ৩১ মে থেকে গণপরিবহন চালুর সিদ্ধান্ত দেশে একদিনে নতুন শনাক্ত ১৫৪১, মৃত্যু ২২ জীবন বাঁচাতে জীবিকাও সচল রাখতে হবে: কাদের ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৮৭৩ জন শনাক্ত, মৃত্যু আরও ২০ জনের র‌্যাব-৮ এর অভিযানে মাদারীপুর থেকে জেএমবি’র সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার ২৪ ঘণ্টায় ২৪ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ছাড়াল ৩০ হাজার মমতাকে সহমর্মিতা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফোন মোংলা ও পায়রা বন্দরে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত
৭৫

জঙ্গি হামলার শঙ্কা: নজরদারিতে দিল্লির ৪ শতাধিক স্থাপনা

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২০ অক্টোবর ২০১৯  

 


পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন জয়েশ-ই-মুহাম্মদের সদস্যরা হামলা চালাতে পারে, এমন শঙ্কায় ভারতের রাজধানী দিল্লির চার শতাধিক গুরুত্বপূর্ণ ভবন, মার্কেট ও স্থাপনায় নিরাপত্তা জোরদারসহ ২৪ ঘণ্টার নজরদারি শুরু হয়েছে। দিওয়ালিকে সামনে রেখে এ হামলা হতে পারে বলে ধারণা করছে ভারতীয় পুলিশ।

পুলিশের বরাতে রোববার (২০ অক্টোবর) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, দিল্লির রোহিনি, উত্তর-পূর্ব, উত্তর-পশ্চিম, উত্তর, পূর্ব, সেন্ট্রাল, নয়া দিল্লি ও দ্বারকা- এই আট জেলা বেশি স্পর্শকাতর। ধারণা করা হচ্ছে, এসব জেলার অন্তত ৪২৫টি ভবনকে হামলার লক্ষ্যবস্তু করতে পারে জঙ্গিরা। এক নয়া দিল্লিতেই স্পর্শকাতর ভবন রয়েছে দুই শতাধিক। এসব ভবন বা স্থাপনায় অতিরিক্ত নিরাপত্তা জারি করা হয়েছে।

নয়া দিল্লিতে অবস্থিত প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, সেনা ভবন, পার্লামেন্ট হাউস, রাষ্ট্রপতি ভবনকে এমনিতেই স্পর্শকাতর জায়গা হিসেবে ধরা হয়। কিন্তু, এখন রাজ্যের বড় বড় সব মার্কেট, মসজিদ, পুলিশ সদর দপ্তর, রুজ অ্যাভিনিউ কোর্ট, লক্ষ্মী নগর, প্রীত বিহার, আনন্দ বিহারেরও মতো গুরুত্বপূর্ণ জায়গাগুলোকেও হামলার সম্ভাব্য লক্ষ্যবস্তু বলে মনে করা হচ্ছে।

নয়া দিল্লির ডেপুটি পুলিশ কমিশনার ঈশ সিংহাল বলেন, আমাদের কাছে জঙ্গি হামলার বিষয়ে কোনো গোয়েন্দা তথ্য নেই। তারপরও দিওয়ালিকে সামনে রেখে শহরের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। 

পুলিশের পক্ষ থেকে জঙ্গি হামলার হুমকির কথা সরাসরি স্বীকার না করলেও গত সপ্তাহ থেকেই শহরের সব থানার গেট বন্ধ রাখা হয়েছে। প্রতি মুহূর্তে গেটে থাকছেন অন্তত একজন নিরাপত্তারক্ষী। একমাত্র সরকারি গাড়িগুলোকেই ভেতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে। ডগ স্কোয়াড ও কুইক রেসপন্স টিমকেও ২৪ ঘণ্টা প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে।

বরগুনার আলো
আন্তর্জাতিক বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর