• রোববার   ০৫ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২১ ১৪২৭

  • || ১৪ জ্বিলকদ ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ২৭৩৮, মৃত্যু ৫৫ কাউকেই ভূতুড়ে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে হবে না: বিদ্যুৎ সচিব আজ থেকে অধস্তন আদালতে আত্মসমর্পণ করা যাবে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ২৯ মৃত্যু, শনাক্ত ৩২৮৮ বেতন-ভাতা পরিশোধে মালিকরা সহমর্মিতার নজির দেখাবেন : কাদের পাটকল শ্রমিকরা দুই ধাপে সব পাওনা পাবে: পাটমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৪০১৯, মৃত্যু ৩৮ চালের বাজার অস্থিতিশীল করলে কঠোর ব্যবস্থা : খাদ্যমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৩৭৭৫, মৃত্যু ৪১ যত্রতত্র পশুরহাটের অনুমতি দেওয়া যাবে না- ওবায়দুল কাদের জঙ্গিবাদ দমনে সফলতা ধরে রাখতে কাজ করে যাচ্ছি: র‌্যাব ডিজি ৩৮তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৬৪ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৬৮৩ শিগগিরই আরও ৪ হাজার নার্স নিয়োগ: প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৪৫ মৃত্যু, শনাক্ত ৪০১৪ অর্ধশত যাত্রী নিয়ে বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি, উদ্ধার কাজ চলছে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৪৩ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৮০৯ ফ্লাইট পরিচালনার অনুমোদন পাচ্ছে ৪ বিদেশি এয়ারলাইন্স অপরাধী ক্ষমতাবান হলেও ছাড় দেয়া হবে না: কাদের গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ৩৫০৪ করোনা রোগী শনাক্ত, মৃত্যু ৩৪
২৪৩২

জনসন বেবি পাউডার ও শ্যাম্পু বিক্রিতে সতর্কতা

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২৭ এপ্রিল ২০১৯  

জনসন অ্যান্ড জনসন বেবি টেলকম পাউডার ও শ্যাম্পুতে ক্যান্সার সৃষ্টিকারী পদার্থের উপস্থিতি পাওয়ার অভিযোগের ভিত্তিতে এ দু’টি পণ্য বিক্রিতে সতর্কতা দিয়েছে ভারতের জাতীয় শিশু অধিকার সুরক্ষা কমিশন (এনসিপিসিআর)। একইসঙ্গে প্রসাধনী দু’টির গুণমান পরীক্ষার রিপোর্টও যত শিগগির জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে।

আমেরিকান বহুজাতিক কোম্পানি জনসন অ্যান্ড জনসনের বেবি টেলকম পাউডার ও শ্যাম্পুতে বিষাক্ত অ্যাসবেস্টস ও কারসিনোজেনিকের মতো ক্যান্সার সৃষ্টিকারী পদার্থ রয়েছে বলে অভিযোগ ওঠার পর এনসিপিসিআর এমন পদক্ষেপ নিয়েছে।

সম্প্রতি জনসন অ্যান্ড জনসনের বেবি শ্যাম্পুর নমুনা পরীক্ষা করে রাজস্থানের ড্রাগস কন্ট্রোল অর্গানাইজেশন জানায়, শ্যাম্পুটি একেবারেই নিরাপদ নয়, এতে এমন পদার্থ রয়েছে, যাতে শ্যাম্পুটির ব্যবহারে ক্যান্সার পর্যন্ত হতে পারে শিশুর। 

এরপর জনসনের বেবি টেলকম পাউডার ও শ্যাম্পুর মান পরীক্ষার ফলাফল রিপোর্ট এনসিপিসিআরে দেওয়ার জন্য রাজস্থানের পাশাপাশি আসাম, অন্ধ্র প্রদেশ, মধ্য প্রদেশ ও ঝাড়খণ্ডের মুখ্য সচিবকে নির্দেশ দেওয়া হয়।

যদিও প্রস্তুতকারক সংস্থা শুরু থেকেই দাবি করে আসছে, জনসন অ্যান্ড জনসন প্রসাধনী একেবারেই নিরাপদ এবং সমস্ত নিয়ম মেনেই তা তৈরি হয়েছে। 

এ বিষয়ে এনসিপিসিআরের প্রধান প্রিয়াঙ্ক কানুনগো সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আমাদের শিশুদের জন্য মানহীন বা ক্ষতিকর কোনো পণ্য আমরা কাউকে বেচতে দেবো না। শিশুদের গ্রাহক হিসেবে গণ্য করে সে মোতাবেক আচরণ করা কোনো কোম্পানিরই উচিত নয়, কারণ শিশুরা ভারতের ভবিষ্যৎ। শিশুর সুরক্ষা নিশ্চিত করা এনসিপিসিআরের প্রধান করণীয়গুলোর একটি।’

বরগুনার আলো
আন্তর্জাতিক বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর