সোমবার   ২১ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৫ ১৪২৬   ২১ সফর ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
কাউন্সিলর রাজীব ১৪ দিনের রিমান্ডে সোনাদিয়া দ্বীপে শিল্পকারখানা না করতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ রুশ ভাষায় প্রকাশিত বই প্রধানমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর যুবলীগের সম্মেলন কমিটির আহ্বায়ক চয়ন, সদস্য সচিব হারুন ওমর বহিষ্কার, যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তাপস বোরহানউদ্দিনে সংঘর্ষের ঘটনায় তদন্ত কমিটি মাছের খাদ্যে শূকরের উপাদান আছে কিনা পরীক্ষার নির্দেশ স্পিকারের সঙ্গে পাঁচ মার্কিন সিনেটরের সাক্ষাৎ বৃদ্ধাশ্রম নয়, মা-বাবার জায়গা হোক হৃদয়ের মণিকোঠায় মিঠাপানিতে রুপালি ইলিশ ভারতের বিপক্ষে বিশ্ব একাদশে সাকিব-তামিম! হিন্দু ছেলের আইডি হ্যাক, ফেসবুকের কাছে তথ্য চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ডিআইজি বজলুরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ সৈকতঘেরা জাকার্তায় প্রকৃতির অপার সৌন্দর্য নেপাল ভ্রমণের খুঁটিনাটি জাপান সম্রাটের অভিষেকে যোগ দিতে ঢাকা ছেড়েছেন রাষ্ট্রপতি শিশুর জন্মের পর ইসিতে জানানোর আইন চান সিইসি গণভবনে যুবলীগ নেতাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক আপনার ইমেইলেও থাকবে বসের নজরদারি! জঙ্গি হামলার শঙ্কা: নজরদারিতে দিল্লির ৪ শতাধিক স্থাপনা
১০

জমি অধিগ্রহণে তিনগুণ ক্ষতিপূরণের অপব্যবহার হচ্ছে : ভূমিমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৯ অক্টোবর ২০১৯  

জমি অধিগ্রহণে তিনগুণ ক্ষতিপূরণ দেয়ার সিদ্ধান্ত সময়োপযোগী ও গণমুখী হলেও এর অপব্যবহার করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী। বুধবার সচিবালয়ে ভূমি জরিপ ও ভূমি অধিগ্রহণ সম্পর্কিত দুটি সফটওয়্যার সিস্টেমের অগ্রগতি উপস্থাপনা (প্রেজেন্টেশন) পর্যবেক্ষণ করার পর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাতের দিকনির্দেশনা দিতে গিয়ে মন্ত্রী এ কথা বলেন। ভূমি মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, জরিপ সম্পর্কিত এপ্লিকেশনে (আবেদনে) একই সিস্টেমে ম্যাপ ও খতিয়ান দেখা যাবে। ভূমি অধিগ্রহণ সম্পর্কিত সিস্টেমে জমির মালিক নিজ অ্যাকাউন্ট থেকে ফাইল ট্র্যাকিং করতে পারবেন, এতে হয়রানি কম হবে। ফলে অধিগ্রহণের পুরো প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা আসবে।

ভূমিমন্ত্রী বলেন, ‘কোনো এলাকায় ভূমি অধিগ্রহণের খবর পেলেই কিছু অসাধু চক্র যোগসাজশ করে ওই এলাকার জমি কিনে ঘরবাড়ি নির্মাণ করে। ফলে জমি অধিগ্রহণে সরকারের অতিরিক্ত ব্যয় হচ্ছে। প্রকল্প ব্যয় বৃদ্ধি পেয়ে দেশের সার্বিক অর্থনীতিতেও খারাপ প্রভাব পড়ছে। এ ছাড়া প্রকৃত মালিকরা বঞ্চিত হয়।’

সাইফুজ্জামান চৌধুরী বলেন, ‘এই অপকর্ম রোধ করতে জমির মালিকানার সময়কাল ও বসতবাড়ির ভূমির আয়তন নির্ধারণসহ আরও কিছু ব্যবস্থা গ্রহণের চিন্তা করা হচ্ছে। প্রকৃত মালিকদের ক্ষতির হাত থেকে বাঁচানো এবং অর্থের অপব্যয় রোধ করতেই এ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

তিনি বলেন, ‘আগামীকাল (১০ অক্টোবর) থেকে ভূমি সেবা হটলাইন ১৬১২২ চালু হলে জন ভোগান্তি অনেকাংশে লাঘব হবে।’

প্রেজেন্টেশনের সময় মন্ত্রীকে এপ্লিকেশন (আবেদন) দুটির বিভিন্ন দিক নিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা অবহিত করেন। সংক্ষিপ্ত ব্যবহার শুরু হলেও এপ্লিকেশন দুটি এখনও এখনও উন্নয়ন পর্যায়ে আছে।

এ সময় ভূমি সচিব মো. মাকছুদুর রহমান পাটওয়ারী, ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. তসলীমুল ইসলাম, ঢাকার জেলা প্রশাসক আবু ছালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খানসহ এপ্লিকেশন ডিজাইনে যুক্ত সংশ্লিষ্ট ভেন্ডরের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরো খবর