• সোমবার   ০১ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১৬ ১৪২৭

  • || ১৭ রজব ১৪৪২

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
দেশে কোনো গরিব মানুষ থাকবে না : তথ্যমন্ত্রী বেসরকারি চিকিৎসা সেবা ব্যয় নির্ধারণ শিগগিরই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাটকা সংরক্ষণে কাল থেকে ৬ জেলায় মাছ ধরা নিষিদ্ধ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৮, শনাক্ত ৩৮৫ আমরা শিক্ষিত ও দক্ষ মানবসম্পদ গড়তে বদ্ধপরিকর: প্রধানমন্ত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ৬০ কর্মদিবস পর পরীক্ষা: শিক্ষামন্ত্রী এ এক বদলে যাওয়া বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের কৃতিত্ব নতুন প্রজন্মের : প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৫, শনাক্ত ৪০৭ উৎসবমুখর পরিবেশে হবে ৫ম ধাপের পৌরসভা নির্বাচন: কাদের মুজিবনগর-কলকাতা স্বাধীনতা সড়কের কাজ শেষ পর্যায়ে: এলজিআরডি মন্ত্রী রেলে ১২ হাজার লোক নিয়োগ দেয়া হবে: রেলপথ মন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৫, শনাক্ত ৪১০ বঙ্গবন্ধুর পরিবার সততা, মেধা ও সাহসের প্রতীক: কাদের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ সাত কলেজের পরীক্ষা চলবে: শিক্ষা মন্ত্রণালয় কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে সাধারণ মানুষও চিকিৎসা পাবেন: আইজিপি জনগণ ভালোবেসে আমাদের সরকার গঠনের সু্যোগ দিয়েছে: কাদের সাত কলেজের বিষয়ে সিদ্ধান্ত সন্ধ্যায় বিএনপির অনেক নেতা গোপনে টিকা নিয়েছেন : তথ্যমন্ত্রী

জান্নাতি যে দুই ব্যক্তিকে দেখে হাসবেন আল্লাহ

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

জান্নাতি দুইজন ব্যক্তিকে দেখে মহান আল্লাহ হাসবেন। কারণ, তাদের একজন অপর জনের খুনি। যে খুন হয়েছেন আর যে খুন করেছেন; তারা উভয়েই জান্নাতের মেহমান হওয়ার সৌভাগ্য লাভ করবেন। আর তাদের দেখেই মহান আল্লাহ হাসবেন। তারা কারা?

সময়ের ব্যবধানে হত্যাকারীর জন্যও জান্নাতের ফয়সালা দেবেন আল্লাহ! যদিও হত্যাকারীর প্রতি রয়েছে আল্লাহর অভিশাপ। আল্লাহ তাআলা কত মেহেরবান!

মানুষ বা মানবতার হত্যা জঘন্যতম অপরাধ। তারপরও রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহিস সালামের হাদিসে হত্যাকারীর জন্য জান্নাত পাওয়া কথা এবং তাদের দেখে আল্লাহ হাসবেন বলে বর্ণনা করেছেন হাদিসে-
হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, নিশ্চয় রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, আল্লাহ তাআলা এমন দুই ব্যক্তির প্রতি (তাকিয়ে) হাসবেন, যাদের একজন অপরজনকে হত্যা করবে এবং উভয়েই জান্নাতে যাবে। তাদের একজন আল্লাহর পথে লড়াই করে শহিদ হবে। তারপর আল্লাহ হত্যাকারীর তাওবা কবুল করবেন এবং সে ইসলাম গ্রহণ করে (ইসলামের জন্য) শাহাদাত লাভ করবে। (বুখারি ও মুসলিম)

উক্ত হাদিস থেকে বুঝা যায় যে, প্রথম ব্যক্তি ইসলামের জন্য প্রথমে শহিদ হবেন। আর দ্বিতীয় ব্যক্তি হলো ওই ব্যক্তি যিনি ইসলাম গ্রহণের আগে প্রথম ব্যক্তিকে শহিদ করেছেন। তারপর ইসলাম গ্রহণ করেছেন। আল্লাহর কাছে কৃত অপরাধের জন্য তাওবাহ করেছেন। আর ইসলাম গ্রহণের পর নিজের জীবন বিসর্জন দিয়েছেন। আল্লাহ তাআলা উভয় শহিদকে জান্নাত দান করবেন। আর তাদের দেখে হাসবেন।

আসুন নিজের অপরাধের জন্য আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করি। তাওবাহ করে গোনাহমুক্ত জীবন লাভ করি। জান্নাতে আল্লাহর মেহমান হই। আল্লাহ তাআলা কবুল করুন। আমিন।

বরগুনার আলো