সোমবার   ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯   ভাদ্র ৩১ ১৪২৬   ১৬ মুহররম ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপের জন্মদিন আজ আজ থেকে ট্রাকে পেঁয়াজ বিক্রি করবে টিসিবি বিশ্ব ওজন দিবস আজ শিগগিরই বন্দর-ট্রেনে যুক্ত হচ্ছে ত্রিপুরা-বাংলাদেশ দিল্লিতে শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠক ৫ অক্টোবর সারাদেশে ৭৫ প্রতিষ্ঠানকে পাঁচ লক্ষাধিক টাকা জরিমানা প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের ফল প্রকাশ এ পি জে আব্দুল কালাম স্মৃতি পুরস্কারে ভূষিত শেখ হাসিনা টস হেরে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করুন : প্রধানমন্ত্রী রাজশাহীর পুলিশ একাডেমিতে কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী গণপরিবহনে মাসিক বেতনে চালক নিয়োগের নির্দেশ হাইকোর্টের সারদার পথে প্রধানমন্ত্রী হাজিদের দেশে ফেরার শেষ ফ্লাইট আজ আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবস আজ শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ইনস্টিটিউটের কার্যক্রম আজ শুরু বিভিন্ন সংস্থা ও ব্যক্তিকে ১৩ কোটি টাকা দিলেন প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগের নেতৃত্বে জয়-লেখক ছাত্রলীগের পদ হারালেন শোভন-রাব্বানী যাদের আন্দোলনে স্বাধীনতা, সেই দল ক্ষমতায় থাকলে উন্নয়ন হয়
৪১৭

জুনে মাধ্যমিকে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা

প্রকাশিত: ২১ মে ২০১৯  

সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের আবেদন কার্যক্রম শেষ হয় সাত মাস আগে। কিন্তু এতোদিন পার হওয়ার পরও এ নিয়োগ পরীক্ষার দিন-তারিখ নির্ধারণ করা হয়নি। ফলে প্রায় আড়াই লাখ আবেদনকারী নিয়োগ পরীক্ষার অপেক্ষায় দিন পার করছেন। তবে আগামী জুন মাসের শেষের দিকে এ পরীক্ষার আয়োজন করা হতে পারে বলে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (বিপিএসসি) সূত্রে জানা গেছে।

এ পরীক্ষা আয়োজনের বিষয়ে জানতে চাইলে বিপিএসসির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (নন-ক্যাডার) নজরুল ইসলাম বলেন, মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার দিন-তারিখ নির্ধারণ করা হয়নি। তবে পরীক্ষা সংক্রান্ত অন্যান্য কার্যক্রম শেষ করা হয়েছে। তিনি বলেন, পরীক্ষার দিন নির্ধারণে পিএসসিতে এক সভায় আলোচনা হয়েছে। সভায় এই পরীক্ষা আগামী জুনের শেষের দিকে নেয়ার নীতিগত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এ লক্ষ্য নিয়ে আমরা কাজ করছি। দ্রুত এ পরীক্ষার দিন ধার্য করতে ফাইল তোলা হবে। এরপর পরীক্ষার দিন নির্ধারণ করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।

জানা গেছে, সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদটি দ্বিতীয় শ্রেণির মর্যাদা দেয়ার পরে গত বছর প্রথমবারের মতো সরাসরি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বিপিএসসি। গত বছরের ১০ সেপ্টেম্বর থেকে আবেদন গ্রহণ শুরু হয়ে ৮ অক্টোবর শেষ হয়।

গত বছরের ৯ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, বাংলায় ৩৬৫ জন শিক্ষক, ইংরেজিতে ১০৬, গণিতে ২০৫, সামাজিক বিজ্ঞানে ৮৩, ভৌতবিজ্ঞানে ১০, জীববিজ্ঞানে ১১৮, ব্যবসায় শিক্ষায় ৮, ভূগোলে ৫৪, চারুকলায় ৯২, শারীরিক শিক্ষায় ৯৩, ইসলাম শিক্ষায় ১৭২ এবং কৃষি শিক্ষায় ৭২ জন সহকারী শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে। মোট ১,৩৭৮ পদের বিপরীতে ২ লাখ ৩৫ হাজারের বেশি আবেদন জমা পড়ে।

এই বিভাগের আরো খবর