রোববার   ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১১ ১৪২৬   ২৮ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
পতাকার মর্যাদা ধরে রাখতে সেনা সদস্যদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান জুয়ার আসর থেকে আটক ২৬ দুই ইউনিভার্সিটিকে ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা দৃশ্যমান পদ্মা সেতুর পৌনে চার কিলোমিটার সারা দেশে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত ইংরেজি উচ্চারণে বাংলা বলার সমালোচনা প্রধানমন্ত্রীর উন্নত দেশ গড়তে বেসরকারি সহযোগিতা প্রয়োজন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুজিববর্ষে বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে: কাদের ভণ্ডপীরসহ ৯ জনের কারাদণ্ড প্রধানমন্ত্রী সব সময় শিক্ষাকে গুরুত্ব দেন: পরিকল্পনামন্ত্রী মুজিব বর্ষে নতুন শিল্প কারখানা স্থাপন করা হবে: শিল্প প্রতিমন্ত্রী আসন্ন সেচ মৌসুমে লোডশেডিংয়ের শঙ্কা নেই : বিদ্যুৎ বিভাগ একুশে পদক হাতে তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস শুক্রবার একুশে পদক মেধা ও মনন চর্চার ক্ষেত্র সম্প্রসারিত করবে : রাষ্ট্রপতি আজ একুশে পদক প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী এনামুল বাছিরের পদোন্নতির আবেদন হাইকোর্টে খারিজ ডাকঘর সঞ্চয়ের সুদহার পুনর্বিবেচনা করা হবে : অর্থমন্ত্রী মুঠোফোন প্রতারক জিনের বাদশা গ্রেফতার করোনাভাইরাস নিয়ে গুজবে কান দিবেন না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
৭৪৮

জেএসসি ও পিইসিতে বরগুনায় তাসলিমা মেমোরিয়াল একাডেমি সেরা

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২৫ ডিসেম্বর ২০১৮  

পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি
সারাদেশে জেএসসি ও পিইপি পরিক্ষায় ফলাফলের দিক থেকে বরগুনা জেলায় পাথরঘাটা তাসলিমা মেমোরিয়াল একাডেমী স্কুল প্রথম স্থান অধীকার করেছে। স্কুলের জেএসসি/ পিএসসি অংশ গ্রহনকারি পরিক্ষার্থীরা শতভাগ পাস করেন। জেএসসি পরিক্ষায় ছিয়াত্তর জনের মধ্যে ২৮ জন জিপিএ-৫ এবং পিএসসিতে ৬২ জনের মধ্যে ৫২ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে। গত ১০ বছর ধরে এই স্কুলটি বরগুনা জেলায় সেরা স্কুল হিসাবে সাফাল্য অর্জন করেন।

স্কুলের প্রধান শিক্ষক আবুল বাসার আজাদ বলেন, এই স্কুলটি বরিশাল বিভাগে প্রতি বছর দক্ষিনাঞ্চলের সেরা স্কুল হিসাবে নির্বাচিত হই। এটা আওয়ামী লীগ সরকারের একটা সাফল্য। এই সরকারের আমলে আমাদে শিক্ষার মান বেড়েছে। ১৯৮৫ সালে স্কুলটি প্রতিষ্ঠা হলেও সরকারি ভাবে কোন সুযোগ সুবিধা পাওয়া যায়নী। ২০০৮ সালে শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আসার পর আমরা দীর্ঘ দিন ধরে ভবনের জন্য সরকারের কাছে দাবী করে একটি ভবনের জন্য বরাদ্ধ পেয়েছি। ভবনটি ৩ বছর ধরে নির্মান কাজ চলছে। ঠিকাদারের খামখেয়ালী পনার কারনে এখন পর্যন্ত কাজ শেষ হচ্ছে না। ঝরা ঝির্ণ টিন শেডের ঘরে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া করতে হয়। যদি শিক্ষার পরিবেশ ভাল হত তা হলে বরিশাল বিভাগে আমরা প্রথম স্খান অধীকার করতাম। আশা করি ভবনের নির্মান কাজ শেষ হলে শিক্ষার মান বাড়বে।
 

বরগুনার আলো
এই বিভাগের আরো খবর