• রোববার   ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১৬ ১৪২৭

  • || ১৬ রজব ১৪৪২

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
দেশে কোনো গরিব মানুষ থাকবে না : তথ্যমন্ত্রী বেসরকারি চিকিৎসা সেবা ব্যয় নির্ধারণ শিগগিরই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাটকা সংরক্ষণে কাল থেকে ৬ জেলায় মাছ ধরা নিষিদ্ধ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৮, শনাক্ত ৩৮৫ আমরা শিক্ষিত ও দক্ষ মানবসম্পদ গড়তে বদ্ধপরিকর: প্রধানমন্ত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ৬০ কর্মদিবস পর পরীক্ষা: শিক্ষামন্ত্রী এ এক বদলে যাওয়া বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের কৃতিত্ব নতুন প্রজন্মের : প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৫, শনাক্ত ৪০৭ উৎসবমুখর পরিবেশে হবে ৫ম ধাপের পৌরসভা নির্বাচন: কাদের মুজিবনগর-কলকাতা স্বাধীনতা সড়কের কাজ শেষ পর্যায়ে: এলজিআরডি মন্ত্রী রেলে ১২ হাজার লোক নিয়োগ দেয়া হবে: রেলপথ মন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৫, শনাক্ত ৪১০ বঙ্গবন্ধুর পরিবার সততা, মেধা ও সাহসের প্রতীক: কাদের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ সাত কলেজের পরীক্ষা চলবে: শিক্ষা মন্ত্রণালয় কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে সাধারণ মানুষও চিকিৎসা পাবেন: আইজিপি জনগণ ভালোবেসে আমাদের সরকার গঠনের সু্যোগ দিয়েছে: কাদের সাত কলেজের বিষয়ে সিদ্ধান্ত সন্ধ্যায় বিএনপির অনেক নেতা গোপনে টিকা নিয়েছেন : তথ্যমন্ত্রী

টিকা নিরাপদ, ভয় পাওয়ার দরকার নেই: মোদি

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২৩ জানুয়ারি ২০২১  

ভারতের জনগণকে ভ্যাকসিন নেয়ার জন্য উৎসাহ দিতে গিয়ে দেশটির দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, বিজ্ঞানীদের সবুজ সঙ্কেত পাওয়ার পরেই ভ্যাকসিন বাজারে ছাড়া হয়েছে। তাই অযথা ভয় পাওয়ার প্রয়োজন নেই। খবর- আনন্দবাজার।

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) এক ভিডিওবার্তায় তিনি এ কথা বলেন। তবে এদিনও ভ্যাকসিন নেয়ার পরে মৃত্যুর ঘটনার খবর জানা গেছে। বিষয়টি নিয়ে কোনো কথা বলেনি দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

গত ১৬ জানুয়ারি থেকে ভারতে শুরু হয় করোনার টিকাদান কর্মসূচি। প্রতিদিন তিন লাখ মানুষকে টিকা দেয়ার লক্ষ্যমাত্রা থাকলেও একদিনও তা পূরণ হয়নি। গত সাত দিনে প্রতিষেধক নিলেন মোট ২১ লাখ লোকের টিকা নেয়ার কথা থাকলেও নিয়েছেন মাত্র ১২ লাখ ৭২ হাজার ৯৭ জন।

ভ্যাকসিন নেয়ার পর শনিবার ২৬৭ জনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার খবর জানা গেছে। শোনা গেছে মৃত্যুর কথাও। গত শনিবার গুরুগ্রামে ৫৬ বছর বয়সী এক ব্যক্তি কোভিশিল্ড প্রতিষেধক নিয়েছিলেন। আজ সকালে ঘুমের মধ্যে তিনি মারা যান। তার মৃত্যুর সঙ্গে প্রতিষেধকের যোগ আছে কি না, ময়নাতদন্তের আগে সে বিষয়ে কথা বলতে নারাজ স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা। তবে এই ঘটনার বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তারা।

ভারতে প্রথম দফায় ব্যবহৃত হচ্ছে কোভিশিল্ড ও কোভ্যাক্সিন নামে দুটি ভ্যাকসিন। এদের মধ্যে দেশটিতে তৈরি কোভ্যাক্সিন পরীক্ষামূলক প্রয়োগের তিনটি ধাপ শেষ হওয়ার আগেই ছাড়পত্র পেয়ে যায়। ফলে এর কার্যকারিতা নিয়ে সংশয় দেখা দেয়। বহু চিকিৎসক কোভ্যাক্সিন নিতে আপত্তি জানানোর কারণে গণটিকাদানের উদ্দেশ্য ব্যাহত হচ্ছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

কোভ্যাক্সিনের নির্মাতা ভারত বায়োটেকের বিরুদ্ধে অন্যতম অভিযোগ ছিলো যে, তাদের গবেষণা কোনো আন্তর্জাতিক জার্নালে প্রকাশিত হয়নি। চলতি সপ্তাহেই কোভ্যাক্সিনের গবেষণা সংক্রান্ত একটি প্রবন্ধ আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য বিষয়ক জার্নাল ল্যানসেটে প্রকাশিত হয়েছে।

ব্রিটিশ ওই জার্নালে কোভ্যাক্সিনের প্রথম দফার পরীক্ষামূলক প্রয়োগের রিপোর্টের ভিত্তিতে বলা হয়েছে, ভ্যাকসিনটি নেয়া ৩৭৫ জন স্বেচ্ছাসেবকের শরীরে কোনো নেতিবাচক প্রভাব দেখা যায়নি। বরং করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে শরীরে প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে।

 

বরগুনার আলো