বৃহস্পতিবার   ২৪ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৮ ১৪২৬   ২৪ সফর ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
ধর্মঘট প্রত্যাহার, শনিবার অনুশীলনে যোগ দেবেন সাকিবরা বরগুনায় কলেজছাত্রী হত্যায় বিএনপির সাবেক নেতার যাবজ্জীবন তুরস্কে ফিকাহ-বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে বাংলাদেশি গবেষক ডিসেম্বরে মুক্তি পাচ্ছে পরমব্রত-কোয়েলের নতুন সিনেমা মশা-ছারপোকা দূর করবে কর্পূর অছাত্ররা কোনোভাবেই ঢাবির হলে অবস্থান করতে পারবে না-উপাচার্য ধনী-দরিদ্রের বৈষম্য কমার প্রত্যাশা পরিকল্পনামন্ত্রীর আগামী ১ নভেম্বর থেকে সড়ক পরিবহন আইন কার্যকরে গেজেট প্রকাশ ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন জানুয়ারিতে! ২০৪০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে অধূমপায়ী রাষ্ট্র : তথ্যমন্ত্রী মহাকাশে তোলা সেলফি প্রকাশ বাংলাদেশ সফরে জাপানের সম্রাটকে আমন্ত্রণ রাষ্ট্রপতির এমপিও: ১৭৫ ভোকেশনাল প্রতিষ্ঠানের তালিকা  পরিবেশ সুরক্ষা নিশ্চিতে সরকার কাজ করছে : গণপূর্তমন্ত্রী প্রযুক্তি ব্যবহারে আফ্রিকায় ‘কৃষি বিপ্লব’ দুদক এখন অনেক শক্তিশালী: কমিশনার মোজাম্মেল ‘পায়ের বেড়ি’ খুলছে না সৌদি নারীদের বৃক্ষরোপণে ইসলামের উৎসাহ ও নির্দেশনা পদ্মাসেতুর অবশিষ্ট জমিতে মিলিটারি ফার্ম করবে সেনাবাহিনী শাহজালালে ১ কোটি ২০ লাখ টাকার স্বর্ণসহ যাত্রী আটক

ঢাকাবাসীর জন্য পদ্মার পানি আনার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার

প্রকাশিত: ১০ অক্টোবর ২০১৯  

রাজধানীর ঢাকার পাশ্ববর্তী জেলা মুন্সীগঞ্জ থেকে পানি আনার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। প্রকল্পের নাম পদ্মা (যশলদিয়া) পানি শোধনাগার নির্মাণ (ফেজ-১) (২য় সংশোধিত)।

রাজধানীর পানির চাহিদা মেটাতে পদ্মা নদী থেকে পানি সরবরাহের লক্ষ্যে ৩ হাজার ৬৭০ কোটি টাকা ব্যয়ে এ প্রকল্পটির কাজ শেষ হয়েছে। এ প্রকল্পে ঢাকা ওয়াসা পদ্মার পানি শোধনাগার প্ল্যান্টের মাধ্যমে দৈনিক ৪৫ কোটি লিটার পানি পরিশোধন করে রাজধানী ঢাকায় সরবরাহ করবে।আজ ১০ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রকল্পটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করবেন।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, রাজধানীর পানির চাহিদা মেটাতে ভূগর্ভস্থ পানি উত্তোলন না করার পরিকল্পনা নিয়েছে ঢাকা ওয়াসা। এ প্রকল্পের অংশ হিসেবে মুন্সীগঞ্জ জেলার লৌহজং উপজেলার যশলদিয়া এলাকা থেকে পানি পরিশোধন করে রাজধানীতে আনা হবে। সম্প্রতি জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় অনুমোদন দেয়া হয়।

সূত্র জানায়, ভূগর্ভস্থ পানি উত্তোলনের ফলে প্রতি বছর ভূগর্ভস্থের স্তর ২ থেকে সোয়া ৩ মিটার নিচে নেমে যাচ্ছে। এর ফলে শুধু পরিবেশের জন্য নয়, ভবিষ্যতে খাবার পানির জন্যও হুমকি। এসব দিক বিবেচনায় নিয়ে ভূপৃষ্ঠস্থ পানি ব্যবহারের লক্ষ্যে এ প্রকল্পটি গ্রহণ করা হয়। প্রকল্পপের ব্যয় নির্ধারণ করা হয় ৩ হাজার ৬৭০ কোটি টাকা। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে সরকারের নিজস্ব তহবিল (জিওবি) থেকে বরাদ্দ ছিল ১ হাজার ২৬৫ কোটি ৫৮ লাখ টাকা এবং চায়না এক্সিম ব্যাংক (চীন) প্রকল্প সাহায্য হিসেবে প্রদান করে ২ হাজার ৪০৪ কোটি ৯২ লাখ টাকা।

ঢাকায় দৈনিক ২৩৫ কোটি লিটার পানির চাহিদার বিপরীতে ২৩৫ কোটি লিটার সরবরাহ করা সম্ভব হচ্ছে। এর মধ্যে ভূ-গর্ভস্থ উৎস থেকে ৭৮ শতাংশ এবং সারফেস ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট থেকে বাকি ২২ শতাংশ চাহিদার জোগান দিচ্ছে। প্রকল্পটি পুরোপুরি বাস্তবায়িত হলে এ প্রকল্পের আওতায় নির্মাণাধীন ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্টের মাধ্যমে ভূ-পৃষ্ঠস্থ উৎস থেকে প্রতিদিন ৪৫ কোটি লিটার পরিশোধিত পানি ঢাকায় সরবরাহ সম্ভব হবে।

প্রকল্পের উদ্দেশ্য: ট্রিটমেন্টের মাধ্যমে দৈনিক ৪৫ কোটি লিটার খাবার পানি উৎপন্ন করে ঢাকা মহানগরীতে সরবরাহ করা। এ বিষয়ে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ঢাকা ওয়াসার পদ্মা (যশলদিয়া) পানি শোধনাগার প্ল্যান্টের মাধ্যমে দৈনিক ৪৫ কোটি লিটার পানি পরিশোধন করে ঢাকায় সরবরাহ করা হবে। আগামী ১০ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রকল্পটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করবেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই প্রকল্পের উদ্বোধন করার আগে প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি সরেজমিনে পরিদর্শন করা হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, পদ্মা পানি শোধনাগার নির্মাণ আমাদের জন্য একটি বড় অর্জন। এই প্রকল্পের কাজ ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। এখান থেকে ৫০ শতাংশ পানি ঢাকা শহরের বিভিন্ন জায়গায় সরবরাহ করা হবে।

উল্লেখ্য, ঢাকা ওয়াসা বুড়িগঙ্গা, শীতলক্ষ্যা ও ধলেশ্বরী নদীর পানি বিভিন্ন সময়ে রাজধানীতে সরবরাহ করেছে। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ প্রকল্পটির প্রথম পর্যায়ের কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, যশলদিয়ায় এখন যেটা নির্মিত হচ্ছে, সেটা প্রথম পর্যায়। দ্বিতীয় পর্যায়টি নির্মিত হলে আরো ৪৫ কোটি লিটার পানি পাওয়া যাবে।

এই বিভাগের আরো খবর