শনিবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১২ ১৪২৬   ২৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
নাসিরুদ্দিন শাহ ও অনুপম খেরের বাকযুদ্ধ আকাশ থেকে মোবাইলে পদ্মাসেতুর ছবি তুললেন প্রধানমন্ত্রী চীনের রহস্যময় ভাইরাস বাদুড় ও সাপ হয়ে মানবদেহে! `শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বের কারণে পরিচয় দিতে গর্ববোধ করি` এত গুণ পুদিনা পাতার? হাঁসের মাংসের কালিয়া দেশ গঠনে ক্যাডেটদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে-সেনাপ্রধান মুজিববর্ষ ঘিরে বিদেশিদের মধ্যেও আগ্রহ বাড়ছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে পাখি মেলা শিক্ষার অন্যতম উদ্দেশ্য মানবসম্পদ তৈরি: শিক্ষা সচিব মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের লক্ষ্যেই আ’লীগ কাজ করে যাবে-শেখ হাসিনা সোলেইমানি হত্যার নিন্দা জানানোয় কসোভোতে নারীর কারাদণ্ড বরিশাল বোর্ডে এসএসসিতে অনিয়মিত পরীক্ষার্থী ২১ শতাংশ টুঙ্গিপাড়া যাত্রায় টোল পরিশোধ করলো আওয়ামী লীগ বিক্ষোভে জনসমুদ্র বাগদাদ, স্লোগানে কাঁপছে রাজপথ বিএনপি ভোট কারচুপির রাজত্ব সৃষ্টি করেছিল বলেই ইভিএম আনা হয়েছে বরগুনায় জেলেদের জালে ধরা পড়লো ৪শ কেজি ওজনের শাপলাপাতা মাছ বৈশ্বিক স্বাস্থ্যে এখনো ঝুঁকি নয় করোনা ভাইরাস: ডব্লিউএইচও সাকিবকে ছাড়িয়ে নতুন রেকর্ড গড়লেন তামিম বাবার কবরের পাশে বসে প্রধানমন্ত্রীর কোরআন তেলাওয়াত

দুরন্ত শিশু সামলাবেন যেভাবে

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারি ২০২০  

সন্তানের দুরন্তপনায় হতাশ না হয়ে ধৈর্য্য ধরতে হবে বাবা-মাকে। শিশুর সঙ্গে রাগ দেখালে হিতে বিপরীত হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। জেনে নিন দুরন্ত শিশুকে কীভাবে সামলাবেন।


পরিস্থিতি বুঝুন ঠাণ্ডা মাথায়
শিশুকে বারবার বলার পরও সে যখন কোনও কথাই শোনে না, তখন বেশিরভাগ বাবা-মা- ই রেগে যান, চিৎকার করেন। তবে সন্তানের সামনে এমনটা না করলেই ভালো করবেন। হঠাৎ রেগে গেলে মনে মনে এক থেকে পাঁচ পর্যন্ত গুণতে পারেন। এতে আপনার রাগ কমবে অনেকটা। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবারও আপনার সন্তানের সঙ্গে কথা বলুন, তাকে বুঝিয়ে বলুন তার ভালোর জন্যই কথাগুলো বলছেন আপনি।

 

করণীয় সম্পর্কে বলুন
বেশিরভাগ সময় আমরা শিশুকে কোনও একটি কাজ করতে নিষেধ করি, কিন্তু কোন কাজটি করতে হবে সে বিষয়ে কিছু বলি না। ধরুন জিনিসপত্র ছোঁড়াছুড়ি করছে শিশু। তাকে সেটি করতে নিষেধ না করে বলুন জিনিসটি যেন সুন্দর করে গুছিয়ে রাখা হয়।

 

বিকল্প কিছু বলুন
ধরুন শিশু ভাত না খেয়ে চিপস খেতে চাইছে। তাকে বলতে পারেন যে ভাত খাবার পর চিপস খাওয়া যেতে পারে।

 

সময় দিয়ে কথা বলুন
শিশুদের মস্তিষ্ক ধীরে ধীরে বিকশিত হয়। সেক্ষেত্রে তাকে বড়দের মতো বিবেচনা করে কথা বলা ঠিক না। শিশুর চারপাশ, পৃথিবীর সব কিছুই ধীরে ধীরে শেখে সে। তাই কিছু বলার পর শিশুকে তা বোঝার জন্য ৫-৮ সেকেন্ড সময় দিন। তাকে বুঝতে দিন কোনটা তার জন্য ভালো।

বরগুনার আলো