রোববার   ১৯ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৫ ১৪২৬   ২৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
ফাইভজির স্বপ্ন বাস্তবে পরিণত হবে শিগগির: অর্থমন্ত্রী ঢাকা সিটি ভোট পিছিয়ে ১ ফেব্রুয়ারি করার সিদ্ধান্ত ইসির এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা পিছিয়ে ৩ ফেব্রুয়ারি সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় সোমবার মান্নানের জানাজা এমপি আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে গভীর শোক রাষ্ট্রপতির পদ্মা সেতুর ২২তম স্প্যান বসছে এ মাসেই আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে ওবায়দুল কাদেরের শোক এমপি মান্নানের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক বয়ানে চলছে দ্বিতীয় দিনের ইজতেমা,কাল আখেরী মোনাজাত বিপিএলে প্রথম শিরোপার স্বাদ পেলো রাজশাহী আদালতে মজনুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাউন্ড সিস্টেমে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা যাবে ১ ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি শুরু প্রথম আলোর সম্পাদকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা আমরা ক্রসফায়ারকে সাপোর্ট করতে পারি না : ওবায়দুল কাদের পোশাক রপ্তানিকে ছাড়িয়ে যাবে আইসিটি : জয় বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু কাল বিশ্ব ইজতেমার ২য় পর্বে ময়দানে আসতে শুরু করেছেন মুসল্লিরা অন্ধকার ভেদ করে আলোর পথে বাংলাদেশ: সংসদে প্রধানমন্ত্রী রিফাত হত্যা : দুই আসামি জামিনে মুক্ত
৩৪৩

নষ্ট হওয়া খাবারেই ২০০ কোটি লোকের ক্ষুধা মেটানো সম্ভব

প্রকাশিত: ৫ নভেম্বর ২০১৯  

বিশ্বে প্রতিবছর ১৪০ কোটি টন খাবার নষ্ট হয় বলে জানিয়েছে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও)। সংস্থাটির মতে, এই নষ্ট হওয়া খাবার দিয়ে প্রতি বছর ২০০ কোটি মানুষকে পেট ভরে খাওয়ানো সম্ভব।

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, ২০১৪ সালে ১৩ হাজার ৩০০ কোটি পাউন্ড খাদ্য নষ্ট হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে, যা জনপ্রতি বছরে ৪২৯ পাউন্ড এবং দেশটির মোট খাদ্য সরবরাহের ৩১ শতাংশ। আর ২০১০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে নষ্ট হয়েছে প্রায় ১৬ হাজার ২০০ কোটি ডলার মূল্যের খাবার। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ ১৩ লাখ ৭৭ হাজার কোটি টাকা।

জাতিসংঘের পরিবেশসংক্রান্ত ওয়েবসাইটে পাওয়া তথ্যতে দেখা যায়, শিল্পোন্নত দেশগুলোতে বছরে খাদ্য নষ্টের আর্থিক মূল্য ৬ হাজার ৮০০ কোটি ডলার। আর উন্নয়নশীল দেশে এর পরিমাণ ৩ হাজার ১০০ কোটি ডলার। ধনী দেশগুলোতে ভোক্তারা বছরে ২২ কোটি ২০ লাখ টন খাবার নষ্ট করেন।

ওয়েবসাইটটিতে আরও উল্লেখ আছে, ইউরোপ ও উত্তর আমেরিকায় বছরে মাথাপিছু খাবার নষ্ট করার পরিমাণ প্রায় ১১৫ কেজি। আর বছরে মাথাপিছু ৬-১১ কেজি খাবার নষ্ট করা হয় সাবসাহারা, দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায়।

এই বিভাগের আরো খবর