শনিবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৪ ১৪২৬   ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
বিপিএলে প্রথম শিরোপার স্বাদ পেলো রাজশাহী আদালতে মজনুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাউন্ড সিস্টেমে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা যাবে ১ ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি শুরু প্রথম আলোর সম্পাদকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা আমরা ক্রসফায়ারকে সাপোর্ট করতে পারি না : ওবায়দুল কাদের পোশাক রপ্তানিকে ছাড়িয়ে যাবে আইসিটি : জয় বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু কাল বিশ্ব ইজতেমার ২য় পর্বে ময়দানে আসতে শুরু করেছেন মুসল্লিরা অন্ধকার ভেদ করে আলোর পথে বাংলাদেশ: সংসদে প্রধানমন্ত্রী রিফাত হত্যা : দুই আসামি জামিনে মুক্ত দুর্নীতি মামলা : বিএনপি প্রার্থী ইশরাকের বিচার শুরু কাদেরের বাইপাস পরবর্তী স্বাস্থ্যের উন্নতি, দেশে ফিরছেন রাতেই  এসডিজি অর্জনে বাংলাদেশ সঠিক পথে রয়েছে : প্রধানমন্ত্রী আবুধাবি থেকে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী সরকারের জনপ্রিয়তা অনেক বেড়েছে: আইআরআই ওমানের সুলতানের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোকবার্তা আবুধাবি থেকে দেশের পথে প্রধানমন্ত্রী পদ্মাসেতুতে বসলো ২১তম স্প্যান,দৃশ্যমান হলো ৩ হাজার ১৫০ মিটার রিট খারিজ, নির্ধারিত তারিখেই হচ্ছে ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন
২৫

নাগরিকত্ব পেলে ফিরে যাবে রোহিঙ্গারা ইইউকে প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৩ ডিসেম্বর ২০১৯  

নাগরিকত্বের নিশ্চয়তা না পাওয়ায় রোহিঙ্গারা তাদের মাতৃভূমি মিয়ানমারে ফিরছে না বলে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের (ইইউ) প্রেসিডেন্ট ডেভিড মারিয়া সাসোলিকে জানিয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার (০২ ডিসেম্বর) কপ-২৫ সম্মেলনে যোগদান উপলক্ষে স্পেনে সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাদ্রিদে ইইউ প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে রোহিঙ্গা পরিস্থিতি নিয়ে জানতে চাইলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কথা জানান। পরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, মিয়ানমারের সঙ্গে আমরা যোগাযোগ করে যাচ্ছি। তবে সমস্যা হচ্ছে নাগরিকত্বের নিশ্চয়তা না পাওয়ায় রোহিঙ্গারা যাচ্ছে না। এটা না হলে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশ থেকে যাবে না।
 
‘চীন কিভাবে রোহিঙ্গা ইস্যুতে সহায়তা করছে’ ইইউ প্রেসিডেন্টের এমন প্রশ্নে প্রধানমন্ত্রী বলেন, চীন, ভারত, জাপান এরা সবাই আমার সঙ্গে একমত। এছাড়া আশপাশের দেশ থাইল্যান্ডও চায় রোহিঙ্গারা তাদের নিজ দেশে ফেরত যাক। মিয়ানমারের উচিত আমাদের সহযোগিতা করা। কারণ আমরা শান্তিপূর্ণ সমাধান চাই। আমি চাই এলাকাটা শান্তিপূর্ণ এলাকা হবে। সেটা আমার মিশন। আমার বাবা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এই একই মিশন ছিল।
 
সংবাদ সম্মেলনের সময় প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম, প্রধানমন্ত্রীর স্পিচ রাইটার নজরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরো খবর