বুধবার   ১৩ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ২৯ ১৪২৬   ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
বাংলাদেশ থেকে কেউ বিচ্ছিন্নতাবাদী তৎপরতা চালাতে পারবে না সমুদ্রের ঢেউয়ে ভেসে আসছে কোটি কোটি টাকার কোকেন! বাবার সঙ্গে কঙ্গনার সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন সুরাজ! ব্যাটসম্যানদের টেস্ট মেজাজে ব্যাট করতে হবে: দুর্জয় অপরাধী সরকারি কর্মচারী হলেও ব্যবস্থা -প্রধানমন্ত্রী ৫০০ ক্যাম্প-কারাগারে বন্দী চীনের উইঘুর মুসলিমরা সেনাবাহিনীর ৫ ইউনিটকে রেজিমেন্টাল কালার প্রদান মেঘনার চরে আটকে পড়া লঞ্চ যাত্রীদের উদ্ধার আবরার হত্যার বিচার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী শিক্ষার সঙ্গে খেলাধুলাতেও নজর দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী বিজয়ের অনুষ্ঠানে যুদ্ধাপরাধীদের আমন্ত্রণ না দিতে নির্দেশ আবরার হত্যা: ২৫ জনকে আসামি করে আদালতে চার্জশিট দাখিল র‌্যাব-৮ এর অভিযানে জেএমবি’র আঞ্চলিক কমান্ডার গ্রেফতার শেখ রাসেল টেনিস টুর্নামেন্ট উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী বশেমুরবিপ্রবির সাবেক ভিসি এবার দুদকের মুখোমুখি আবরার হত্যা : ২৫ জনকে আসামি করে চার্জশিট আজ পদ্মায় এ মাসেই বসছে ৪ স্প্যান, শেষ হচ্ছে রেলের স্ল্যাব তৈরির কাজ ২০২১ সালের মধ্যে দেশের সব ঘরে বিদ্যুৎ: প্রধানমন্ত্রী ৭টি বিদ্যুৎকেন্দ্র উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী মীর মশাররফ হোসেনের আজ ১৭২তম জন্মবার্ষিকী
৪৬

পরিবেশ ঠিক রেখে শিল্পায়ন করতে হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৯ নভেম্বর ২০১৯  

 

ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য বাসযোগ্য দেশ গড়তে টেকসই উন্নয়নে জোর দিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। একই সঙ্গে পরিবেশ ঠিক রেখে শিল্পায়ন করার পরামর্শও দিয়েছেন তিনি। 

শনিবার (৯ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেড মিলনায়তনে আয়োজিত ‘স্টিল/ইস্পাত শিল্পের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, পরিবেশ ঠিক রেখে আমাদের শিল্পায়ন করতে হবে। এসডিজি অর্জনের অন্যতম শর্ত সবুজ পরিবেশ। ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য বাসযোগ্য দেশ গড়তে টেকসই উন্নয়ন করতে হবে। 

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিনরাত কাজ করেন। মন্ত্রীদেরও প্রচুর কাজ করান। সবকিছু অতিক্রম করে দেশটাকে এগিয়ে নিতে হবে। কারণ, দেশ আপনার আমার সবার। সুতরাং, সবাই মিলেই দেশটাকে গড়বো।

মাথাপিছু স্টিল ব্যবহারে বাংলাদেশ পাকিস্তানকে পেছনে ফেলেছে বলে উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, একটা দেশের উন্নয়ন বিবেচনা করা হয় সেদেশের মাথাপিছু স্টিল ব্যবহার কত, সেটা গণনা করে। যে দেশকে আমরা যুদ্ধ করে হারিয়েছি, মাথাপিছু স্টিল ব্যবহারে ইতোমধ্যে সেই দেশকেই পেছনে ফেলেছি। বাংলাদেশের মাথাপিছু স্টিল ব্যবহারের গড় ৪৫ কেজি, যা পাশের দেশ নেপাল-শ্রীলঙ্কার চেয়েও বেশি। 

তিনি আরও বলেন, দেশকে এগিয়ে নিতে বড় বাজেট দেওয়া হচ্ছে। ব্যবসায়ীদের সেদিকে লক্ষ্য রেখে ভ্যাট দিতে হবে। স্টিল বাইরে রপ্তানির চিন্তাও করতে হবে। সেজন্য নতুন প্রোডাক্ট উৎপাদনে গুরুত্ব দিতে হবে। এতে দাম বেশি হবে, আয়ও বেশি হবে। 

কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলনের সঞ্চালনায় বৈঠকে আরও বক্তব্য রাখেন পত্রিকাটির ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মোস্তফা কামাল, বিএসটিআইয়ের উপপরিচালক মো. রিয়াজুল হক, বুয়েটের অধ্যাপক ড. ফাহমিদা গুলশান, বাংলাদেশ স্টিল ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. মনোয়ার হোসেন, শাহরিয়ার স্টিল মিলস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেখ মাসুদুল ইসলাম মাসুদ, বাংলাদেশ শিপ ব্রেকার্স অ্যান্ড রিসাইকেলার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য মো. আবুল কাশেম, রানিং রি-রোলিং মিলসের চেয়ারম্যান সুমন চৌধুরী, দেশীয় স্ক্র্যাব সাপ্লায়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আজহার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ওসমান ভূঁইয়া, তিতাস গ্যাসের জিএম আব্দুল ওহাব তালুকদার, রিহ্যাবের সহসভাপতি লিয়াকত আলী, এনার্জি প্যাকের এমডি হুমায়ুন রশিদ, পিডিপির সদস্য সাঈদ আহমেদ, বিএসটিআইয়ের পরিচালক সাজ্জাদুল বারি প্রমুখ। 

এই বিভাগের আরো খবর