• শনিবার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ৪ ১৪২৭

  • || ০১ সফর ১৪৪২

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
নারায়ণগঞ্জের মসজিদে বিস্ফোরণে মৃত্যু বেড়ে ৩৩ আহমদ শফী কওমি শিক্ষার আধুনিকায়নে ভূমিকা রেখেছেন: প্রধানমন্ত্রী না.গঞ্জে মসজিদে বিস্ফোরণে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩২ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৬, শনাক্ত ১৫৯৩ সরকার ওজোনস্তর রক্ষায় কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে: পরিবেশ মন্ত্রী শামুকের পাশাপাশি ঝিনুকও সংরক্ষণ করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৪৩, শনাক্ত ১৭২৪ পাটকল শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধের কার্যক্রম শুরু তুরস্কে বাংলাদেশ চ্যান্সারি ভবন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২৬, শনাক্ত ১৮১২ এবার দুদকের মামলায় ওসি প্রদীপ গ্রেপ্তার প্রধানমন্ত্রী কাল আঙ্কারায় বাংলাদেশ চ্যান্সেরির উদ্বোধন করবেন প্রতিবেশীদের সাথে বাংলাদেশের আস্থার সম্পর্ক: ওবায়দুল কাদের ইউএনও’র ওপর হামলা: মালি রবিউল ৬ দিনের রিমান্ডে ২০২২ সালের মধ্যে ঢাকা-কক্সবাজার সরাসরি ট্রেন চলবে: রেলমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৪, শনাক্ত ১২৮২ শিক্ষার্থীদের আমরা এক হাজার করে টাকা দেব: প্রধানমন্ত্রী সিনহা হত্যা: জবানবন্দি শেষে কারাগারে চার পুলিশ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৬, শনাক্ত ১৮৯২ বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ মোস্তফা কামালের মা আর নেই
৮৩

পাকিস্তানের চেয়েও এগিয়ে বাংলাদেশ!

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২৩ জানুয়ারি ২০২০  

টি-টোয়েন্টিতে র‍্যাঙ্কিংয়ের ১ নম্বর দল পাকিস্তান। অন্যদিকে বাংলাদেশের অবস্থান ৯ নম্বরে। তবে একটি জায়গায় এগিয়ে আছে মাহমুদউল্লাহরা। সেটি হলো ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা। অন্যদিকে, রান কিংবা উইকেটে প্রায় সমান অবস্থানে দু’দল।

পরিসংখ্যান বলছে, বাংলাদেশ দলের ১৫ সদস্য মিলে ৩৭০ টি-টোয়েন্টি খেলেছেন, পাকিস্তানের ক্ষেত্রে সংখ্যাটি ৩৫৩। দুই অধিনায়কের অভিজ্ঞতার পার্থক্যটাও দেখার মতো, বাংলাদেশের অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহর থেকে ৯ বছরের ছোট বাবার আজমের বয়স ২৫। তবে রিয়াদের ৮৩ ম্যাচে মাহমুদউল্লাহর রান ১৪৩০ হলে মাত্র ৩৬ ম্যাচে সেটি প্রায় ছুঁ ফেলেছেন বাবর আজম। তার রান ১৪০৫।

দুই দলের দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার তামিম ইকবাল আর শোয়েব মালিকের বয়সের পার্থক্য ৭। ৭৫ ম্যাচে তামিমের রান ১৬১৩, আর ১১১ ম্যাচে শোয়েবের ২২৬৩। অভিজ্ঞতা বিবেচনায় শোয়েব মালিকই পাকিস্তানের তুরুপের তাস।

দু’দলেই একশোর বেশি স্ট্রাইক রেট আছে ৬ জনের। বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে সবেচেয়ে বেশি স্ট্রাইক রেট লিটন দাসের- ১৩৮। অন্যদিকে, পাকিস্তানের ইফতেখারের স্ট্রাইকরেট ১৪৪। সৌম্যর ৬ উইকেটের সাথে রান যেখানে ৭৯১। সেখানে ইমাদ ওয়াসিমের ৪২ উইকেট; রান ২৬১।

দলের ১৫ জন মিলে বাংলাদেশের মোট রান ৫২৫৪ আর উইকেটে শিকার ১৮৩। বিপরীতে পাকিস্তানের করেছে মোট ৬৩০২ রান আর উইকেট ১৮৭।

পাকিস্তানের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী মোহাম্মদ হাফিজ, অন্যদিকে টাইগার মোস্তাফিজের সংগ্রহ ৫২ উইকেট। স্বাগতিকদের ৪ অভিষেকের বিপরীতে টাইগাররদের নতুন মুখ হাসান মাহমুদ।

বরগুনার আলো
খেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর