বুধবার   ১৩ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ২৯ ১৪২৬   ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
বাংলাদেশ থেকে কেউ বিচ্ছিন্নতাবাদী তৎপরতা চালাতে পারবে না সমুদ্রের ঢেউয়ে ভেসে আসছে কোটি কোটি টাকার কোকেন! বাবার সঙ্গে কঙ্গনার সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন সুরাজ! ব্যাটসম্যানদের টেস্ট মেজাজে ব্যাট করতে হবে: দুর্জয় অপরাধী সরকারি কর্মচারী হলেও ব্যবস্থা -প্রধানমন্ত্রী ৫০০ ক্যাম্প-কারাগারে বন্দী চীনের উইঘুর মুসলিমরা সেনাবাহিনীর ৫ ইউনিটকে রেজিমেন্টাল কালার প্রদান মেঘনার চরে আটকে পড়া লঞ্চ যাত্রীদের উদ্ধার আবরার হত্যার বিচার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী শিক্ষার সঙ্গে খেলাধুলাতেও নজর দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী বিজয়ের অনুষ্ঠানে যুদ্ধাপরাধীদের আমন্ত্রণ না দিতে নির্দেশ আবরার হত্যা: ২৫ জনকে আসামি করে আদালতে চার্জশিট দাখিল র‌্যাব-৮ এর অভিযানে জেএমবি’র আঞ্চলিক কমান্ডার গ্রেফতার শেখ রাসেল টেনিস টুর্নামেন্ট উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী বশেমুরবিপ্রবির সাবেক ভিসি এবার দুদকের মুখোমুখি আবরার হত্যা : ২৫ জনকে আসামি করে চার্জশিট আজ পদ্মায় এ মাসেই বসছে ৪ স্প্যান, শেষ হচ্ছে রেলের স্ল্যাব তৈরির কাজ ২০২১ সালের মধ্যে দেশের সব ঘরে বিদ্যুৎ: প্রধানমন্ত্রী ৭টি বিদ্যুৎকেন্দ্র উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী মীর মশাররফ হোসেনের আজ ১৭২তম জন্মবার্ষিকী
৩৫

‘পাকিস্তান, চীনের ছড়ানো বিষাক্ত গ্যাসে দিল্লিদূষণ’

প্রকাশিত: ৭ নভেম্বর ২০১৯  

ভারতের নয়াদিল্লিতে বিপজ্জনক বায়ুদূষণের জন্য প্রতিবেশী দুই শত্রু দেশ পাকিস্তান ও চীনকে দায়ী করেছেন ক্ষমতাসীন বিজেপির এক নেতা। বিনীত আগরওয়াল সারদা নামের উত্তর প্রদেশ রাজ্যের ওই নেতা বলেছেন, দিল্লির বায়ু দূষিত করতে ইসলামাবাদ ও বেইজিং বিষাক্ত পদার্থ ছড়িয়ে দিয়েছে। আর সেই কারণেই দিল্লির আকাশ–বাতাস বিষাক্ত হয়ে যাচ্ছে।

সারদাকে উদ্ধৃত করে ভারতের বার্তা সংস্থা এএনআইয়ের একটি প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।

দিল্লি ও এর আশপাশের এলাকাগুলো বায়ুদূষণের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে বিজেপির এই নেতা বলেন, ‘এটা দেখে (বায়ুদূষণ) মনে হচ্ছে যে পাশের কোনো দেশ বিষাক্ত গ্যাস ছড়িয়ে দিয়েছে। পাকিস্তান ও চীন ভয়ে আতঙ্কিত। তারা আমাদের এখন ভয় পায়।’

সারদা বলেন, নরেন্দ্র মোদি ও অমিত শাহ ক্ষমতায় আসার পর থেকেই তাঁদের বিরুদ্ধে সব ধরনের কৌশল প্রয়োগ করছে পাকিস্তান। পাকিস্তান এখন হতাশ। তারা কখনোই ভারতের বিরুদ্ধে একটি যুদ্ধেও জেতেনি।

গত ২৭ অক্টোবর দেওয়ালির অনুষ্ঠানের পর রাজধানী নয়াদিল্লি ও এর আশপাশের এলাকাগুলো মারাত্মক বায়ুদূষণের শিকার। এতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে ওই এলাকার জনজীবন। গত শুক্রবার থেকে দিল্লিতে জারি রয়েছে জনস্বাস্থ্যগত জরুরি অবস্থা। ওই দিন থেকেই বন্ধ এখানকার বিদ্যালয়গুলো। হরিয়ানা, পাঞ্জাবসহ আশপাশের রাজ্যগুলোতে কৃষকদের খড় পোড়ানোর ধোঁয়া দিল্লির বায়ুদূষণের অন্যতম কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালসহ বিভিন্ন পরিবেশ সংস্থা।

তবে খড় পোড়ানোর জন্য দিল্লির বায়ুদূষণ হচ্ছে, কেজরিওয়ালের এমন মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন সারদা। তিনি বলেন, দিল্লির অবস্থার জন্য কৃষক ও কারখানাগুলোকে দায়ী করা উচিত নয়।

এই বিভাগের আরো খবর