• রোববার   ১১ এপ্রিল ২০২১ ||

  • চৈত্র ২৮ ১৪২৭

  • || ২৮ শা'বান ১৪৪২

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
বাজেটে স্বাস্থ্য ও কৃষি খাত গুরুত্ব পাবে: অর্থমন্ত্রী ২৪ ঘণ্টায় আরো ৭৮ জনের মৃত্যু আ. লীগের নিজস্ব ইতিহাস তৈরির কারখানা নেই: কাদের লকডাউনে কোথাও উন্নয়ন কাজ বন্ধ থাকবে না: পরিকল্পনামন্ত্রী ফেসবুকে ‘উসকানিমূলক’ স্ট্যাটাস: গ্রেফতার হেফাজতের লোকমান আমিনী পুরো বিশ্বেই শান্তির সংস্কৃতি ছড়িয়ে দিতে চায় বাংলাদেশ: মোমেন ১২-১৩ এপ্রিল চলমান লকডাউনের নির্দেশনা জারি থাকবে: সেতুমন্ত্রী করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ ৭৭ জনের মৃত্যু অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা : আইনমন্ত্রী আমাদের সামনে নির্ঘাত অশনি সংকেত : কাদের সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে হচ্ছে দ্বিতীয় আমিনবাজার সেতু: সেতুমন্ত্রী দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী মানুষ বাঁচাতে আরও কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী রফিকুল ইসলাম মাদানী আটক জনগণের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখেই লকডাউন দেয়া হয়েছে: অর্থমন্ত্রী টিকাদানে বিশ্বের শীর্ষ ২০ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী করোনায় আরো ৬৬ জনের মৃত্যু ৮ এপ্রিল শুরু হচ্ছে টিকার দ্বিতীয় ডোজ: স্বাস্থ্য সচিব রাজধানীতে চলাচল করা গাড়ি গণপরিবহন নয়: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ২৪ ঘণ্টায় ৭০৭৫ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ৫২

পাড়ায় পাড়ায় সভা পথে পথে মিছিল মাইকে মাইকে বক্তৃতা

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৪ মার্চ ২০২১  

স্বাধীন বাংলাদেশে প্রথম নির্বাচনের আর তিন দিন বাকি। নির্বাচনি প্রচারণার আর মাত্র দু’টি দিন হাতে নিয়ে সারা দেশে নির্বাচনি জোয়ারে উদ্বেল ছিল। মিছিলে, স্লোগানে ও সমাবেশে গোটা দেশ যেন মেতে উঠেছিল। ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় নানা দলের বৈচিত্র্যপূর্ণ প্রচার মিছিল আর স্লোগানে সরগরম হয়ে ওঠে।

জাতীয় সংসদের ২৮৮টি নির্বাচনি এলাকায় প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রায় ১১শ’ প্রার্থী এখন সবচেয়ে ব্যস্ততম শেষ মুহূর্ত কাটাচ্ছিলেন। ভোটারদের নিজেদের পক্ষে প্রভাবিত করতে আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা হাতে ছিল। এরপর নির্বাচনি প্রচারণা বন্ধ হয়ে যাবে। এরইমধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানের যাবতীয় প্রস্তুতির কাজ শেষ হয়েছে বলে জানানো হয়। ভোটের বাক্স ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ভোটকেন্দ্রগুলোতে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য পুলিশ, রক্ষীবাহিনী ও বিডিআরকে ভোটকেন্দ্রগুলোতে পাঠানো হয়।

 দৈনিক বাংলা, ৫ মার্চ ১৯৭৩

বেতন কমিশন রিপোর্ট এ মাসেই

এই দিন (৪ মার্চ) গণভবনে প্রশাসনিক চাকরি পুনর্গঠন কমিটি ও বেতন কমিশনের এক যুক্ত বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এতে সভাপতিত্ব করেন। বৈঠকে বিভিন্ন চাকরির কাঠামো এবং বিভিন্ন শ্রেণির চাকরির বেতনের স্কেল নির্ধারণ ও কাজের অগ্রগতি সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। বৈঠকটি দুই ঘণ্টা স্থায়ী হয়। বেতন স্কেল নির্ধারণ বিশেষ করে নিম্ন শ্রেণির কর্মচারীদের বেতন স্কেল নির্ধারণে সংশ্লিষ্ট সকল বিষয়ে বিবেচনা নিশ্চিত করার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশেষ আগ্রহ প্রকাশ করেন। বঙ্গবন্ধু কমিশনকে তাদের কাজ ত্বরান্বিত করার নির্দেশ দিয়েছেন বলে খবরে প্রকাশ করা হয়। বৈঠকের পর বেতন কমিশনের চেয়ারম্যান হাফিজ আহমেদ জানান, রিপোর্ট প্রকাশ করা হবে সম্ভবত এ মাসেই। চাকরি পুনর্গঠন কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, ‘বৈঠকে বিভিন্ন  স্তরের বিষয় নিয়ে কথা বলা হয়।’

মতিঝিলে আ.লীগের জনসভা

আওয়ামী লীগ প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে কুৎসা রটনার পরিবর্তে দেশের বর্তমান সমস্যাগুলো সমাধান করে কীভাবে আগামী দিনের পথ চলতে হবে, তা নির্দেশ করছিল। সমাজ প্রতিষ্ঠার পথে গণতন্ত্র, সমাজতন্ত্র, ধর্মনিরপেক্ষতা ও জাতীয়তাবাদী আদর্শ বাস্তবায়নের ওপর বাংলাদেশের সম্মান নির্ভর করছে বলে আওয়ামী লীগ মনে করে। এদিন মতিঝিল কলেজ মাঠে নির্বাচনের প্রাক্কালে আয়োজিত আওয়ামী লীগের জনসভায় অতিথিরা ভাষণে উপরিউক্ত মন্তব্য করেন। শিল্পমন্ত্রী সৈয়দ নজরুল ইসলাম বলেন, ‘যারা বাংলাদেশকে সোনার বাংলায় পরিণত করতে চান, তাদের নৌকা মার্কায় ভোটদানের আহ্বান জানানো হচ্ছে।’ তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্ব বজায় থাকলে বাংলাদেশ সবরকম ষড়যন্ত্র প্রতিহত করতে পারবে এবং অন্যান্য দল সুসংগঠিত নয় বলে তাদের দুর্বল নেতৃত্ব সহজেই প্রভাবান্বিত হয়ে পড়বে।’ ১৯৪৮ সাল থেকে আওয়ামী লীগের ভূমিকা ও বঙ্গবন্ধুর কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে শিল্পমন্ত্রী বলেন, ‘নিশ্চিত মৃত্যুর সামনে দাঁড়িয়ে বঙ্গবন্ধু বাংলার জনগণের দাবিকে প্রতিষ্ঠা করার জন্য সংগ্রাম করেছেন।’ তিনি বলেন, ‘গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার ওয়াদা রক্ষার জন্য নির্বাচন দেওয়া হয়েছে। এই নির্বাচনের ওপরে বাংলাদেশের গণতন্ত্রের ভবিষ্যৎ নির্ভরশীল।’ অবাধ নির্বাচনের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তিনি বলেন, ‘ভোটারদের নিরাপত্তার জন্য সব রকম ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘গণতন্ত্র হচ্ছে জীবনবোধ ও মূল্যবোধ। এটা প্রতিষ্ঠিত করার দায়িত্ব সকলের।’

 বাংলাদেশ অবজারভার, ৫ মার্চ ১৯৭৩

ভূমিহীন কৃষকদের তালিকা প্রকাশ করা হবে

বর্তমানে ভূমিহীন কৃষকদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। ১৯৭৩ সালের ১৪ এপ্রিল তালিকা প্রকাশ করা হবে। বরিশালের এক জনসভায় ভূমি সংস্কার ও ভূমি প্রশাসন মন্ত্রী আব্দুর রব সেরনিয়াবাত এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘এখন বিষয়টি তদন্ত পর্যায়ে রয়েছে। স্থানীয় প্রশাসনকে এরইমধ্যে তালিকা তৈরির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’ শুধু প্রকৃত ভূমিহীন কৃষকরাই যাতে তালিকাভুক্ত হন, তার নিশ্চয়তা বিধানে সরকারকে সহযোগিতা করার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। এ প্রসঙ্গে মন্ত্রী উল্লেখ করেন যে সরকারের চার লাখ ৬২ হাজার একর খাস জমি এবং একশ’ বিঘা অবধি জমির সীমানা নির্ধারণের ফলে সরকারের হাতে যে জমি এসেছে, তা কোনোরকম সেলামি ছাড়াই ভূমিহীন কৃষকদের মধ্যে বণ্টন করা হবে।

বরগুনার আলো