বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬   ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
অনার্স ২য় বর্ষের ২৫ নভেম্বরের পরীক্ষা স্থগিত কোন অপপ্রচারে কান না দিতে জনগণের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান ‘গোলাপি’ যাত্রা রাঙ্গাতে কাল মাঠে নামছে বাংলাদেশ সারাবিশ্বে বাংলাদেশ এখন সম্মানের দেশ: প্রধানমন্ত্রী সশস্ত্র বাহিনী দিবসের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী আজ সন্ধ্যায় আ. লীগের অভ্যর্থনা উপকমিটির সভা ইউনেস্কোর সাধারণ অধিবেশনে অংশ নিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী শিখা অনির্বাণে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা দুদকের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ সশস্ত্র বাহিনী নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবেন- প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সঙ্গে আইভোরি কোস্টের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ সশস্ত্র বাহিনী জাতির গর্বের প্রতীক : রাষ্ট্রপতি আজ বিশ্ব টেলিভিশন দিবস সারাদেশের পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন লিখতে হবে স্পষ্ট অক্ষরে: হাইকোর্ট আজ সশস্ত্র বাহিনী দিবস শাহজালালে পৌঁছেছে পাকিস্তানের ৮২ টন পেঁয়াজ ক্রিকেটের সঙ্গে টেনিসও এগিয়ে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী রিফাত হত্যা : চার্জ গঠন ২৮ নভেম্বর চালের দাম বাড়ানোর চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা: খাদ্যমন্ত্রী
৮৮৬

পাথরঘাটায় বিএনপির নেতা কর্মীরা দলে দলে আ’লীগে যোগদান

বরগুনা প্রতিনিধি ঃ

প্রকাশিত: ৯ ডিসেম্বর ২০১৮  

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বরগুনা-২ আসন (পাথরঘাটা-বামনা ও বেতাগী) ঐক্যফ্রোন্টের থেকে বিএনপির খন্দকার মাহবুব হোসেনকে ধানের শীষ প্রতিকে প্রার্থী করায় স্থানীয় বিএনপির অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে। ইতি মধ্যে বিএনপির সহস্রাধীক নেতা কর্মীরা নৌকা মার্কার প্রার্থীর সাথে নির্বাচনে নেমে পরেছেন। এলাকায় এমপি রাখার জন্য বিএনপির নেতা কর্মীরা নৌকা মার্কার প্রার্থী বর্তমান সাংসদ শওকত হাসানুর রহমান রিমনকে সমর্থন দিয়েছেন। তবে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পাড়ের টানে সব সমই পাথরঘাটা উপজেলায় এমপি রাখার জন্য এলাকার মানুষ বা ভোটাররা ভোট দিয়ে থাকেন। স্বাধীনতা-উত্তর সময় থেকে হিসাব করলে এ আসনে পাথরঘাটা থেকেই সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

জানা যায়, বরগুনা-২ আসনে তিনটি উপজেলার মধ্যে পাথরঘাটায় ভোটের সংখ্যা বেশী। এ আসনে বিএনপির শক্তিশালি প্রার্থী হিসাবে নুরুল ইসলাম মনি নির্বাচন করায় তিনি বার বার নির্বাচিত হয়। ২০০৮ সালের নির্বাচনে নুরুল ইসলাম মনি সরকারি টিন আত্মসাধ মামলা ও বিএনপি নির্বাচনে অংশ গ্রহন না করায় বিএনপির হাত থেকে এ আসনটি ফসকে যায়। ২০০ ৮ সালের নির্বাচনে আ’লীগ প্রার্থী প্রায়াত গোলাম সবুর টুলু চমক দেখীয়ে আ’লীগের সংসদ সদস্য হিসাবে নির্বাচিত হয়। দীর্ঘ ৪ বছর উন্নয়নের হাল ধরে এলাকায় জনগনের মাঝে আ’লীগের দুর্গ গড়ে তোলেন। তিনি. ২০১৩ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যাওয়ার পর উপ-নির্বচনে উত্তারসুরী হিসাবে নৌকার হাল ধরেন শওকত হাসানুর রহমান রিমন। তিনি আ’লীগের উন্নয়নের অংশীদার হিসাবে এলাকায় দলমত নির্বি শেষে জনগনের মাঝে আইন শৃঙ্খলাসহ উন্নয়ন মূলক কাজে বিশেষ অবদান রাখায় এলাকার ৩ উপজেলা ভোটারদের মাঝে ব্যাপক আস্থা অর্জন করেন। সাগরে দস্যু দমনে এই আ’লীগ সরকার বিশেষ অবদান রাখায় উপকুলীয় এলাকার বেশীর ভাগ জেলে ভোটাররা নৌকায় ভোট দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

পাথরঘাটা পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের বিএনপির সাবেক সভাপতি মোঃ সৈয়দ রিপন জানান, আমরা দীর্ঘ দিন ধরে বিএনপির রাজনীতি করেছি তবে বর্তমানে এই দলটা বরগুনা জেলায় এখন নেতা শুন্য। মনে করেছিলাম একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে বিএনপির জনপ্রিয় নেতা আবার আমদের মাঝে ফিরে পাব। কিন্তু স্থানী রাজনীতিতে খন্দকার মাহবুব সাহেব এ আসনে জন সমর্থনের দিক দিয়ে পিছিয়ে আছে। তাকে ধানেরশীষ প্রতিক দিয়ে বিএনপির নিশ্চিত আসনটি হারিয়েছে বিএনপির কেন্দ্রিয় নেতারা । তিনি বলেন, বরগুনাÑ ২ আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৬৮ হাজার ৩১৭ জন এর মধ্যে পাথরঘাটায়  ১ লক্ষ বিশ হাজার ৭১৪ ভোট। এই ভোটের সিংহ ভাগই এলাকায় এমপি রাখার জন্য দলমত নির্বি শেষে এলাকার প্রার্থীকে ভোট দেয়। খন্দকার মাহবুব হোসেন বামনা উপজেলার লোক বলে তাকে এখানকার মানুষ ভোট দিবে না। তা ছাড়া গত ৫ বছরে আ’লীগ আমাদের দক্ষিনাঞ্চরে যে উন্নয়ন করেছে। তাতে অনুপ্রানিত হয়ে এলাকায় নৌকা মার্কার ভোট বেড়েছে। তা ছাড়া নৌকার যে প্রার্থী তিনি একজন সত ও যোগ্য লোক হিসাবে আমরা ৩ উপজেলার সহস্রাধীক লোক নৌকা মার্কার প্রার্থী রিমনকে সমর্থন দিয়ে নির্বাচন কালীন সময় আ’লীগে যোগদান করেছি। তিনি বরগুনা-২ আসন থেকে বিপুল ভোটে বিজয় অর্জন করবেন।

পাথরঘাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মোস্তফা গোলাম কবির বলেন, পাথরঘাটায় বিএনপি থেকে যদি নুরুল ইসলাম মনিকে ধানের শীষে বিএনপির মনোনয়ন দেয়া হত তাহলে এই নির্বাচনে আ’লীগ ও বিএনপির মধ্যে প্রতিযোগিতা হত। এখন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেনকে মনোনয়ন দেয়ায় আমাদের নৌকা মার্কার বিজয় সহজ ভাবে অর্জন করতে পারব। তা ছাড়া নুরুল ইসলাম পন্থি বিএনপি’র অনেক নেতা কর্মীরা আমাদের সমর্থন জানিয়ে নৌকা মার্কার নিবাচনে নেমে পরেছেন।

 

এই বিভাগের আরো খবর