মঙ্গলবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১৫ ১৪২৬   ০২ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
মৌলভীবাজারে অগ্নিকাণ্ডে একই পরিবারের ৫ জন নিহত একনেকে ৯ প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী করোনা ভাইরাস: সর্বত্র সতর্ক থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর আমেরিকা ও ইসরায়েলের কমান্ডাররাও পালানোর পথ খুঁজে পাবে না সাকিবকে ওজন কমাতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী মুজিববর্ষে সব সরকারি কলেজে বসবে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য শিল্প-বৈদেশিক বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানের নামজারি ৭ দিনে মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করে যেসব খাবার নেহা-আদিত্যর বিয়ে ১৪ ফেব্রুয়ারি সোয়া ৯ কোটি টাকা আত্মসাতে তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা আড়ংয়ের ট্রায়াল রুমে গোপনে ভিডিও,গ্রেপ্তার -১ নৌকার গণজোয়ারে দিশেহারা বিএনপি প্রার্থী: তাপস এবার বিএনপি ছাড়ছেন কোষাধ্যক্ষ সিনহা! নারীর নিরাপত্তায় ৪৮ হাজার এলইডি লাইট লাগানোর প্রতিশ্রুতি আতিকের দেশে বর্তমানে মাদরাসার সংখ্যা সাড়ে ৯ হাজার সীমান্তে বিজিবির অভিযান, দেড় কেজি স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার আতিকের নির্বাচনী কার্যালয়ে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক হাতিরঝিল—বনশ্রী হয়ে চট্টগ্রাম রোডে মিলবে পৃথক চারলেন ব্যাংককের ইমিগ্রেশন হচ্ছে শাহ আমানত বিমানবন্দরেও চীনে আটকে পড়াদের দেশে ফেরাতে বিশেষ ফ্লাইট পাঠাবে সরকার
২৬

‘পেঁয়াজ বিক্রি করে অবৈধ সম্পদ অর্জন করলে ব্যবস্থা’

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৮ ডিসেম্বর ২০১৯  

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করার বিষয়টি দুদকের এখতিয়ারভুক্ত নয়। এ বিষয়ে শুল্ক গোয়েন্দা কাজ করছে। তাদের কাছ থেকে যদি কোনো তথ্য পাওয়া যায়, যাতে বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করে অবৈধ সম্পদের মালিক কেউ হয়ে থাকেন, তাহলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

রোববার (০৮ ডিসেম্বর) দুদক মিলনায়তনে রিপোর্টার্স অ্যাগেইনেস্ট করাপশন (র‌্যাক) আয়োজিত মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবস উপলক্ষে এ মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে সূচণা বক্তব্য রাখেন র‌্যাকের সভাপতি মোর্শেদ নোমান, সঞ্চালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আদিত্য আরাফাত।

সরকারের দুর্নীতি বিরোধী অভিযানের বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে ইকবাল মাহমুদ বলেন, অনেকেই বলছেন এ অভিযান বন্ধ হয়ে গেছে। কিন্তু দুদক কাজ করছে। এরইমধ্যে ১৮৭ জনের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। দুদক যাদের নিয়ে কাজ শুরু করেছে, আইনি প্রক্রিয়া ছাড়া তাদের বের হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। সুতরাং অভিযুক্তদের আনন্দে থাকার কোনো সুযোগ নেই। দুর্নীতি যেই করুন না কেন, তাকে দুদকের বারান্দায় আসতে হবে।

বেসিক ব্যাংকের তদন্ত কবে শেষ হবে প্রশ্নে তিনি বলেন, আমাদের কাছে চার্জশিট এসেছিলো। কিন্তু সেখানে টাকা কোথায় পাচার হয়েছে সে বিষয়ে কোনো তথ্য না থাকায় আমরা এগোতে পারিনি। তবে তদন্ত চলছে। মিউচুয়াল লিগ্যাল অ্যাসেসমেন্টের মাধ্যমে বিভিন্ন দেশে যোগাযোগ করা হচ্ছে, টাকা কোথায় গিয়েছে সে বিষয়ে।

বেসিক ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বাচ্চুর নাম কেন চার্জশিটে ছিলো না- প্রশ্নের জবাবে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, তিনি অপরাধ করেছেন কি করেননি, সে বিষয়ে আমরা এখনই কিছু বলতে পারছি না। তদন্ত চলছে। যদি চূড়ান্ত প্রতিবেদনে তার নাম আসে, তাহলে আপনাদের এ ধরনের প্রশ্ন আর করার প্রয়োজন হবে না।

বরগুনার আলো
এই বিভাগের আরো খবর