রোববার   ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১১ ১৪২৬   ২৮ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
পতাকার মর্যাদা ধরে রাখতে সেনা সদস্যদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান জুয়ার আসর থেকে আটক ২৬ দুই ইউনিভার্সিটিকে ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা দৃশ্যমান পদ্মা সেতুর পৌনে চার কিলোমিটার সারা দেশে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত ইংরেজি উচ্চারণে বাংলা বলার সমালোচনা প্রধানমন্ত্রীর উন্নত দেশ গড়তে বেসরকারি সহযোগিতা প্রয়োজন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুজিববর্ষে বিএনপিকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে: কাদের ভণ্ডপীরসহ ৯ জনের কারাদণ্ড প্রধানমন্ত্রী সব সময় শিক্ষাকে গুরুত্ব দেন: পরিকল্পনামন্ত্রী মুজিব বর্ষে নতুন শিল্প কারখানা স্থাপন করা হবে: শিল্প প্রতিমন্ত্রী আসন্ন সেচ মৌসুমে লোডশেডিংয়ের শঙ্কা নেই : বিদ্যুৎ বিভাগ একুশে পদক হাতে তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস শুক্রবার একুশে পদক মেধা ও মনন চর্চার ক্ষেত্র সম্প্রসারিত করবে : রাষ্ট্রপতি আজ একুশে পদক প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী এনামুল বাছিরের পদোন্নতির আবেদন হাইকোর্টে খারিজ ডাকঘর সঞ্চয়ের সুদহার পুনর্বিবেচনা করা হবে : অর্থমন্ত্রী মুঠোফোন প্রতারক জিনের বাদশা গ্রেফতার করোনাভাইরাস নিয়ে গুজবে কান দিবেন না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
২৫৮

প্রশ্ন ফাঁসের সুযোগ নেই,অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলে বিতরণ হবে প্রশ্নপত্র

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২৩ জানুয়ারি ২০১৯  

আগামী ২ ফেব্রুয়ারি থেকে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষা ২০১৯। আসন্ন এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁস ঠেকাতে প্রথমবারের মত অ্যালুমিনিয়ামের ফয়েল পেপারের খামে প্রতিটি কেন্দ্রে প্রশ্নপত্র পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এ বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, ‘এবার এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় অ্যালুমিনিয়ামের ফয়েল পেপারের খামে প্রশ্নপত্র প্রতিটি কেন্দ্রে পাঠানো হবে। এটি বিশেষ ধরণের খাম, যেটা দেখে বোঝা যাবে খামটি এর আগে কখনও খোলা হয়েছে কি না। এর আগে প্রশ্নফাঁস রোধে কাগজের খামে উন্নতমানের টেপ ব্যবহার করে কেন্দ্রে কেন্দ্রে প্রশ্নপত্র পাঠানো হতো। এই প্রথম অ্যালুমিনিয়ামের ফয়েল পেপারে মুড়িয়ে প্রশ্নপত্র কেন্দ্রে কেন্দ্র পাঠানো হবে। এই খাম এমনভাবে তৈরি এবং এতে এমনভাবে প্রশ্নপত্র মোড়ানো থাকবে যে, খাম দেখলেই বোঝা যাবে আগে খামটি খোলা হয়েছে কি না?’

এদিকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, এসএসসি পরীক্ষার প্রতিটি হলের আশপাশে যতটুকু সম্ভব ১৪৪ ধারা জারি রাখা হবে। এছাড়া প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে গুজব রটনাকারীদের শনাক্ত করে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ইতোমধ্যে নজরদারি শুরু হয়ে গেছে। যারা আগেও এ কাজ করেছে বা প্রশ্নফাঁসে যুক্ত ছিল তাদের বিরুদ্ধেও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এছাড়া পরীক্ষা সংশ্লিষ্টরা ছাড়া কেউ পরীক্ষা কেন্দ্রে ঢুকতে পারবে না। কেউ মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না। ছবি তোলা বা ইন্টারনেট সংযোগ নেই এমন একটি ফোন শুধু কেন্দ্রসচিব ব্যবহার করতে পারবেন। কেউ মোবাইল ফোন ব্যবহার করলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কোনভাবেই যেন প্রশ্নপত্র ফাঁস না হয় এবং এ সম্পর্কিত গুজব না ছড়ায় তা নিশ্চিত করতে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা গ্রহণ করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

জানা গেছে, গুজব প্রতিহত করতে তথ্য মন্ত্রণালয় ও বিটিআরসির বিশেষ সেল এই পরীক্ষার সময় দায়িত্ব পালন করবে।

বরগুনার আলো
এই বিভাগের আরো খবর