বুধবার   ১৩ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ২৯ ১৪২৬   ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
নকল মুদ্রা দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতার ৯ বাংলাদেশ থেকে কেউ বিচ্ছিন্নতাবাদী তৎপরতা চালাতে পারবে না সমুদ্রের ঢেউয়ে ভেসে আসছে কোটি কোটি টাকার কোকেন! বাবার সঙ্গে কঙ্গনার সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন সুরাজ! ব্যাটসম্যানদের টেস্ট মেজাজে ব্যাট করতে হবে: দুর্জয় অপরাধী সরকারি কর্মচারী হলেও ব্যবস্থা -প্রধানমন্ত্রী ৫০০ ক্যাম্প-কারাগারে বন্দী চীনের উইঘুর মুসলিমরা সেনাবাহিনীর ৫ ইউনিটকে রেজিমেন্টাল কালার প্রদান মেঘনার চরে আটকে পড়া লঞ্চ যাত্রীদের উদ্ধার আবরার হত্যার বিচার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী শিক্ষার সঙ্গে খেলাধুলাতেও নজর দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী বিজয়ের অনুষ্ঠানে যুদ্ধাপরাধীদের আমন্ত্রণ না দিতে নির্দেশ আবরার হত্যা: ২৫ জনকে আসামি করে আদালতে চার্জশিট দাখিল র‌্যাব-৮ এর অভিযানে জেএমবি’র আঞ্চলিক কমান্ডার গ্রেফতার শেখ রাসেল টেনিস টুর্নামেন্ট উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী বশেমুরবিপ্রবির সাবেক ভিসি এবার দুদকের মুখোমুখি আবরার হত্যা : ২৫ জনকে আসামি করে চার্জশিট আজ পদ্মায় এ মাসেই বসছে ৪ স্প্যান, শেষ হচ্ছে রেলের স্ল্যাব তৈরির কাজ ২০২১ সালের মধ্যে দেশের সব ঘরে বিদ্যুৎ: প্রধানমন্ত্রী ৭টি বিদ্যুৎকেন্দ্র উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
৫৩

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’

প্রস্তুত বরিশাল বিভাগ : আজও চলছে দফায় দফায় সভা

প্রকাশিত: ৯ নভেম্বর ২০১৯  

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল এর কারণে বরিশাল ১, ৩, ৫, ৭ পেরিয়ে সর্বশেষ ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় আসায় এখন ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন এ বিভাগের ৬ জেলা প্রশাসন।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল এর তাণ্ডব থেকে উপকূলের বাসিন্দাদের রক্ষায় শুক্রবার থেকে শুরু করে আজ শনিবার দফায় দফায় সভা করে চলেছেন তারা।

পৃথক সভা সূত্রে জানা গেছে, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় প্রস্তুত রাখা হয়েছে ২ হাজার ৯৪টি সাইক্লোন শেল্টার। এছাড়া প্রস্তুত রয়েছে একাধিক মেডিকেল টিম ও খোলা হয়েছে জরুরী কন্ট্রোল রুম। পাশাপাশি ৪০ হাজারেরও বেশি স্বেচ্ছাসেবক ছাড়াও ফায়ার সার্ভিস, জেলা পুলিশ, নৌ-পুলিশ ও কোস্টগার্ড এবং প্রয়োজনে সেনা সদস্যদের এরইমধ্যে বিভিন্ন কাজে নিয়োজিত রাখা হয়েছে। ৬ জেলা প্রশাসকই বিষয়টিনিশ্চিত করেছেন।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল এর প্রভাবে শুক্রবারের মতো শনিবারও বরিশাল বিভাগজুড়ে বৈরী আবহাওয়া বিরাজ করছে। বন্ধ রয়েছে যাত্রীবাহী সব ধরনের লঞ্চ চলাচল।

বরিশালের আবহাওয়া অফিসের জানিয়েছে, সর্বশেষ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী শনিবার সকাল ৬টায় পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৩৭৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। যে কারণে এ বন্দরকে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি বন্দর সংলগ্ন উপকূলীয় জেলা পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি ও বরগুনা এবং তাদের অদূরবর্তী চর ও দ্বীপগুলোতে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে।

বরিশালের জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান জানিয়েছেন, ঘুর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় বরিশাল জেলায় ২৩২টি সাইক্লোন শেল্টার কেন্দ্র প্রস্তুত রয়েছে। এছাড়া প্রয়োজনে বিভিন্ন বিদ্যালয় ভবন নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য ব্যবহার করা হবে। ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি), রেডক্রিসেন্টসহ বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের স্বেচ্ছাসেবকরা প্রস্তুত রয়েছেন। পাশাপাশি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী, ফায়ার সার্ভিস ও রোভার স্কাউটের সদস্যরাও যে কোনো ধরনের সহায়তা করবে। বরিশাল জেলা প্রশাসনের খোলা কন্ট্রোল রুমের নম্বর ০১৭৪১ ১৯৬৯৩৯ ও ০৪৩ ১৬৩৮৬৩।

বরগুনা জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ জানিয়েছেন, ঘুর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় বরগুনায় ৫০৯টি সাইক্লোন শেল্টার, ৪২টি মেডিক্যাল টিম, ৮টি জরুরি কন্ট্রোলরুমসহ সিপিপি, রেডক্রিসেন্ট ও বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ১০ হাজার স্বেচ্ছাসেবক প্রস্তুত রয়েছে।

ভোলা জেলা প্রশাসক মাসুদ আলম ছিদ্দিক জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় ভোলায় সর্বোচ্চ প্রস্তুতি হাতে নেয়া হয়েছে। জেলার ৬৪৮টি আশ্রয়কেন্দ্র খুলে দেওয়া হয়েছে। গঠন করা হয়েছে ৯২টি মেডিক্যাল টিম। এ ছাড়াও জেলা সদরসহ সাত উপজেলায় ৮টি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। মানুষকে সতর্ক করতে উপকূলে চলছে প্রচারণা। প্রস্তুত রাখা হয়েছে ১৩ হাজার স্বেচ্ছাসেবী। এছাড়াও মজুদ রাখা হয়েছে ত্রাণ।

ঝালকাঠী জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী জানান, ঝালকাঠীতে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় ৭৪টি সাইক্লোন শেল্টার প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়া জরুরি প্রয়োজনে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ভবনগুলো ব্যবহার করা হবে। এছাড়া চাল-শুকনো খাবারসহ পর্যাপ্ত ত্রাণ সামগ্রী রয়েছে। মেডিক্যাল টিম, উদ্ধারকারী দল প্রস্তুত রয়েছে। জেলার বিভিন্ন হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে জরুরি সেবাদানের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। জরুরি প্রয়োজনে ৫টি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। জেলাজুড়ে সতর্কতামূলক প্রচার-প্রচারণা চালানো হয়েছে।

পিরোজপুর জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় ২২৮টি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত করা হয়েছে। জেলায় মোট ৫১টি মেডিক্যাল টিম প্রস্তুত রয়েছে। এছাড়া জেলা হাসপাতাল ও প্রতিটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরি টিমের ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রতিটি উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশকে সব ধরনের উদ্ধার কাজের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়া ২শ মেট্রিক টন চাল ও শুকনো খাবারের ব্যবস্থা থাকছে।

পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম চৌধুরী জানিয়েছেন, প্রবল ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় পটুয়াখালীতে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। ৪০৩টি সাইক্লোন শেল্টার প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়া সার্বিক বিষয় মনিটরিং করতে ডিসি কার্যালয়ে একটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। কন্ট্রোল রুমের ফোন নম্বর- ০৪৪১৬২৩৯৪ এবং মোবাইল নম্বর- ০১৩১৭৩৬৫১১৩। দুর্যোগে মানবিক সহায়তার জন্য ১০০ মেট্রিক টন চাল, ২ লাখ ৭৫ হাজার টাকা, ১৬৬ বান্ডিল টিন এবং ৩ হাজার ৫০০টি কম্বল মজুদ রাখা হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর