বুধবার   ২৩ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৭ ১৪২৬   ২৩ সফর ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
একজন মায়ের গল্প ইমিগ্রেশন: চোখের আইরিশের তথ্য দেবে ইসি তরুণদের দেখে আমি গর্বিত: সজীব ওয়াজেদ তিন হাজার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির ঘোষণা বুধবার বাংলাদেশকে উন্নয়নের মডেল করেছে স্থিতিশীল সরকার- আইন মন্ত্রী সেতু বিভাগ, পাট ও পিএসসিতে নতুন সচিব ঘুষের টাকাসহ দুদকের হাতে রাজস্ব কর্মকর্তা আটক আবারও ১৪ ভারতীয় জেলে আটক সাতটি অভ্যাস মানুষের ধ্বংস ডেকে আনে দেশজুড়ে তরুণদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে: সজীব ওয়াজেদ চিফ হুইপের সঙ্গে ত্রিপুরা কংগ্রেসের চিফ হুইপের সাক্ষাৎ বাড়তি সুযোগের আশায় ভাসানচর যেতে রাজি রোহিঙ্গারা সরকার গঠনে ব্যর্থ হয়ে শেষমেশ পথ ছাড়লেন নেতানিয়াহু একনেকে ৫ প্রকল্পের অনুমোদন, ব্যয় হবে ৪৬৩৬ কোটি কানাডায় আবারও জয়ী জাস্টিন ট্রুডো নকশা না মেনে গাড়ি নামালে কঠোর ব্যবস্থা: প্রধানমন্ত্রী গতিশীল নেতৃত্বের জন্য প্রধানমন্ত্রী এখন বিশ্ব নেতা- কাদের বছরের প্রতিটি দিনই সড়ক নিরাপদ রাখতে হবে: পলক অস্ত্র মামলায় কারাগারে পাগলা মিজান দৃশ্যমান হলো পদ্মাসেতুর ২২৫০ মিটার
১১

পড়াশোনায় শিশুর মনোযোগ বাড়ানোর দারুণ উপায়

প্রকাশিত: ৬ অক্টোবর ২০১৯  

পড়াতে বসালে শিশুদের মনোযোগ টিকিয়ে রাখা আজকাল মায়েদের জন্য অসাধ্য হয়ে গেছে। তাদের মনোযোগ পড়ার দিকে রাখা বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে মায়েদের জন্য। পড়তে বসালেই শিশুদের মন পড়ার দিকে না থেকে খেলার জন্য অস্থির হয়ে ওঠে। আবার কখনো শুরু হয় তাদের দুষ্টুমি।

এক্ষেত্রে পড়াশোনায় শিশুদের মনোযোগ বাড়াতে সাহায্য করবে কিছু বিষয়। এই বিষয়গুলো অনুসরণ করলেই খুব সহজে আপনি শিশুর মনোযোগ বাড়াতে সক্ষম হবেন। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক সেই বিষয়গুলো-

> শিশুকে গান শেখাতে পারেন। তবে সবচেয়ে ভালো হয় যন্ত্রসঙ্গীত শেখালে। পিয়ানো, সিন্থেসাইজার, তবলা, মাউথ অর্গান জাতীয় কিছু শেখালে আপনার সন্তান মনোযোগী হবে।

> শিশুকে জোর করবেন না। এতে মনোযোগ আসে না। শিশুকে খেলার ছলে শেখাতে পারেন।

> শোয়ার আগে শিশুর সঙ্গে কিছুটা সময় গল্প করুন। ওরা প্রশ্ন করলে উত্তর দিন, বিরক্ত হবেন না।

> দিনে অন্তত একটা ঘণ্টা শিশুকে ছুটাছুটি করতে দিন। এতে তার শরীর থেকে এনডরফিন হরমোন বেশি পরিমাণে নিঃসৃত হবে। ফলে ঘামও ঝরবে । শরীর থেকে ঘাম ঝরার পর শিশুকে পড়াতে বসালে অনেকটা লাভ হয়। কারণ এনডরফিন হরমোন নিঃসরণের ফলে অন্তত এক ঘন্টা থেকে দেড় ঘন্টা শিশুর মনোযোগ ঠিক থাকবে।

> সন্তানের বয়স অনুযায়ী তার মনোযোগ বাড়ানোর চেষ্টা করুন। ৪ থেকে ৫ বছরের শিশুর যে মনোযোগ থাকবে ১০ বছরের শিশুর তার চেয়ে বেশি থাকবে এটাই স্বাভাবিক। আপনার সন্তান ছোট হলে তার থেকে খুব বেশি মনোযোগ প্রত্যাশা করবেন না।

> শিশুকে ইলেকট্রনিক গ্যাজেট যেমন- মোবাইল, ল্যাপটপ এসব থেকে যত দূরে রাখবেন ততই ভালো। কারণ ছোট বয়সে মানুষের মস্তিষ্কে এগুলোর প্রভাব পড়ে মনোযোগ নষ্ট হয়। নিজেরা বাড়িতে সারাক্ষণ টিভি দেখবেন না। তাহলে শিশুদের ওপরও এর প্রভাব পড়বে।