বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৮ ১৪২৬   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
আজকের নবীন কর্মকর্তারাই হবেন ৪১ সালের সৈনিক : প্রধানমন্ত্রী ঘুষ-দুর্নীতির বিরুদ্ধে সজাগ থাকার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর বয়স্ক বাবা-মাকে না দেখলে জেল চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোতে যারা ফখরুল-রিজভীসহ ১৩৫ জনের বিরুদ্ধে দুই মামলা সবার জন্য উন্মুক্ত থাকছে ‘কনসার্ট ফর ডিজিটাল বাংলাদেশ’ এসক্যাপ অধিবেশনে যোগ দিতে শেখ হা‌সিনা‌কে আমন্ত্রণ রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির ন্যায়বিচার-নিরাপত্তা দাবি অক্সফামের কৃষি আধুনিক হলেই মাথাপিছু আয় বাড়বে: কৃষিমন্ত্রী মাওলানা ভাসানীর জন্মবার্ষিকী আজ কাল নেতাকর্মীদের সতর্ক থাকতে বললেন ওবায়দুল কাদের ‘ফুড চেইনের মাধ্যমে প্লাস্টিক শরীরে প্রবেশ করছে’ বিশাল জয়ে শুরু কুমিল্লার বঙ্গবন্ধু বিপিএল মিশন টাইম ম্যাগাজিনের ‘পারসন অব দ্য ইয়ার’ গ্রেটা থানবার্গ বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নে ৩০ কোটি ডলার দেবে এডিবি ‘বিদেশগামীদের জন্য চালু হচ্ছে প্রবাসী কর্মী বিমা’ প্রেষণে বদলি রাষ্ট্রীয় ব্যাংকের ৯ জিএম জনতা ব্যাংকের অর্থ আত্মসাৎ: আসামিকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ মাদককে দেশ ছাড়া করবো: আইজিপি বিটিসিএলের সব স্কুলের প্রাথমিক শাখা হবে ডিজিটাল
৯৮

ফেসবুক স্ট্যাটাসই কাল হলো প্রতারক দম্পতির !

প্রকাশিত: ১৯ নভেম্বর ২০১৯  

নিজেকে কখনো ব্যবসায়ী, কখনো প্রবাসী, চাকরীজীবী পরিচয় দিয়ে স্ত্রী ফাতেমা বেগমকে সঙ্গে নিয়ে দেশের বিভিন্ন জেলায় ফ্ল্যাট ভাড়া নিতেন জুয়েল মাহমুদ (৪৫)। তারপর পরিকল্পনা করে কৌশলে বাড়ির মালিকের কাছ থেকে স্বর্ণালঙ্কার, টাকা হাতিয়ে চম্পট দেন। এরপর থেকে তাদের খোঁজ মিলে না।


দীর্ঘদিন ধরেই বিভিন্ন এলাকায় ওই কর্মকাণ্ড চালিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিলেন এ দম্পতি। কিছুদিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরে চলছিল তাদের প্রতারণামূলক কর্মকাণ্ড।

সোমবার (১৮ নভেম্বর) জেলা শহরের মুন্সেফপাড়ার একটি বাসা থেকে স্থানীয় লোকজন প্রতারক দম্পতিকে আটক করে পুলিশের কাছে সোর্পদ করে। আটক জুয়েল মাহমুদ কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামের বাসিন্দা।

পুলিশ জানায়, দেশের বিভিন্ন জায়গায় ফ্ল্যাটবাসা ভাড়া নেওয়ার কথা বলে কৌশলে এ দম্পতি সবকিছু লুটে নেয়। কিছুদিন আগে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের ফুলবাড়ীয়ায় মহিউদ্দিন আহমেদ নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নিতে আসেন এ দম্পতি। ফ্ল্যাটটি দেখে তারা পছন্দ করে দুই হাজার টাকা অগ্রিম ভাড়া পরিশোধ করেন। এর ক’দিন পর ১৩ নভেম্বর তারা আবারও আসেন। এ সময় তারা বাড়ির মালিক মহিউদ্দিনের পরিবারকে নিজেদের পুকুরের বলে কিছু মাছ উপহার দিয়ে তাদের মন জয় করে নেন। 

এরমধ্যে তারা স্বর্ণের কাজ জানেন বলে মহিউদ্দিনের স্ত্রী ও মেয়েকে বলেন, ঘরে বসেই তারা স্বর্ণালঙ্কার পরিষ্কার করে চকচকে করে ফেলতে পারেন। তাদের কথা শুনে মহিউদ্দিনের স্ত্রী ও মেয়ে তাদের স্বর্ণের গহনা পরিষ্কার করতে দেন। এ সময় তারা পানি পান করতে চাইলে মহিউদ্দিনের স্ত্রী পানি নিয়ে এসে দেখেন, প্রতারক দম্পতি স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে পালিয়েছেন। অন্যদিকে তার মেয়ে মাটিতে অচেতন হয়ে পড়ে আছেন। পরে ঘটনার বিস্তারিত উল্লেখ করে মহিউদ্দিনের মেয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন। 
    
এ ঘটনার ক’দিন পর শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) মহিউদ্দিনের বাড়ির পাশের এলাকা মুন্সেফপাড়ায় রফিকুল ইসলামের বাড়িতে একই কায়দায় বাসা ভাড়া নিতে যান এ দম্পতি। এ সময় ওই প্রতারক দম্পতি রফিকুলের পরিবারকে জানিয়ে আসেন তারা রোববার আসবেন বাসা ভাড়ার চুক্তি করতে। এরইমধ্যে মহিউদ্দিনের মেয়ের দেওয়া ফেসবুক স্ট্যাটাসটি রফিকুলের মেয়ের চোখে পড়ে। রফিকুল ইসলামের মেয়ে মহিউদ্দিনের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে কথা বলে তাদের সঙ্গে ঘটে যাওয়া ঘটনাটির মিল খুঁজে পান।

দু’পরিবার রোববার প্রতারক দম্পতিকে আটক করতে অপেক্ষা করতে থাকেন। কিন্তু রোববার তারা না আসায় ফোন দিয়ে সোমবার আসার জন্য বলা হয়। সোমবার দুপুরে প্রতারক দম্পতি রফিকুলের বাড়িতে ফলমূলসহ আসেন। এ সময় স্থানীয়দের সহায়তায় ওই প্রতারক দম্পতিকে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

এর আগে গত ৫ নভেম্বর কিশোরগঞ্জের ভৈরব থানা এলাকায় মাতৃকা জেনারেল হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হুমায়ুন কবির মিন্টুর বাড়িতে বাসা ভাড়া নিতে যান এ দম্পতি। পরে তারা তিন লাখ ৮০ হাজার টাকার স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে পালিয়ে যান। এছাড়া বিভিন্ন এলাকায় এই দম্পতি বাসা ভাড়ার কথা বলে প্রতারণা করে স্বর্ণালঙ্কার লুটে নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

সদর মডেল থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) শিমুল পারভেজ  জানান, প্রতারক এ দম্পতিকে আটকের খবর জেনে অনেক ভুক্তভোগী সদর থানায় এসেছেন। তারা তাদের শনাক্ত করেছেন। বিভিন্ন জায়গায় ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেছেন। তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

এই বিভাগের আরো খবর