শুক্রবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৪ ১৪২৬   ২০ মুহররম ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
ছাত্রলীগের পর যুবলীগকে ধরেছি : প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগকে সংযমের সঙ্গে চলার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর প্রধানমন্ত্রীর সাথে যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি দলের সাক্ষাত অবৈধ জুয়ার আড্ডা বা ক্যাসিনো চলতে দেওয়া হবে না: ডিএমপি কমিশনার পটুয়াখালীতে ধর্ষণ মামলার বাদীকে পেটানো প্রধান আসামিসহ গ্রেপ্তার-৪ শাহজালালে বিমানের জরুরি অবতরণ শুক্রবার নিউইয়র্ক যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী রাজধানীর তিনটি ক্যাসিনোতে র‌্যাবের অভিযান জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে বাংলাদেশ টস হেরে ব্যাটিং এ বাংলাদেশ রিফাত হত্যা : পলাতক ৯ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা রোহিঙ্গা সংকট : ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে বসছে চীন-মিয়ানমার-বাংলাদেশ আমাদের কাজই হচ্ছে জনগণকে সেবা দেয়া : প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা ইস্যুতে চীন বাংলাদেশের পক্ষে: মোমেন আজ গাজীপুর যাবেন প্রধানমন্ত্রী পরিবেশ দূষণ: ৪ প্রতিষ্ঠানকে কোটি টাকা জরিমানা স্বর্ণজয়ী রোমান সানার মায়ের চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন প্রধানমন্ত্রী আরো দু’টি বোয়িং বিমান কেনার ইঙ্গিত দিলেন প্রধানমন্ত্রী কারাবন্দির তথ্য ডাটাবেজে থাকবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ: প্রধানমন্ত্রী
৪৪

বরগুনার উপকূলে ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে রুপালি ইলিশ

প্রকাশিত: ৩ আগস্ট ২০১৯  

উপকূলীয় বরগুনা জেলার বেতাগীর বিষখালি নদীতে জাল ফেললেই জেলেদের জালে ধরা পরছে ঝাঁকে ঝাঁকে রুপালি ইলিশ। ইলিশ শিকারে নিষেধাজ্ঞার টানা ৬৫ দিন পর এবার উপকূলীয় জেলেদের মুখে হাসি ফুটেছে।

দীর্ঘ অলস সময় কাটানোর পর এখন তারা ইলিশ আহরণের কর্মযজ্ঞে ব্যস্ত। বৈরী আবহাওয়াকে উপেক্ষা করেও মাছ শিকারে মরিয়া বিষখালির জেলেরা।

শুধু বিষখালি নয় বঙ্গোপসাগরে এবার বেশি পরিমাণ ইলিশ ধরা পরায় উপকূলীয় জেলা বরগুনার বেতাগী, বামনা, পাথরঘাটার জেলে এবং মৎস্য ব্যবসায়ীদের দিন কাটছে ব্যস্ততায়।

অপরদিকে ইলিশ বেশি পাওয়ায় দামও কমে আসছে, এতে স্বস্তি ফিরেছে ক্রেতাদের মনে।

বেতাগী উপজেলা মৎস্য অফিস সূত্রে জানা গেছে, প্রতি বছর সরকার ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ১২ অক্টোবর থেকে ২ নভেম্বর পর্যন্ত ইলিশ শিকারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। কারণ এ সময়ে গভীর সাগর থেকে নদীর মোহনায় এসে ডিম দেয় মা ইলিশ।

অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছরের নিষেধাজ্ঞার পদ্ধতি কিছুটা ভিন্ন ছিল। ২০ মে থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত টানা ৬৫ দিন ইলিশ শিকারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। এ নিয়ে হতাশা আর ক্ষোভে মুখ থুবড়ে পরেছিল বিষখালি নদী পাড়ের জেলেরা।

পুরো ৬৫ দিনই বেকার সময় পার করতে হয়েছে জেলেদের। জেলেদের দাবি ছিল ডিম দেওয়ার সঠিক সময় নির্ধারণ করে ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞা কমিয়ে আগের মতো ২২ দিন করার।

উপজেলার চরখালী এলাকার জেলে ফোরকান মিয়া জানান, বর্তমানে নদীতে জাল ফেললেই মাছ ওঠে, সবাই মিলে নদী পেরিয়ে সাগরে গেলে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ পাওয়া যায়। নদী ও সাগরের মোহনায় গেলে একেকটি বড় জেলে ট্রলারে প্রতিদিন ১০০-২০০ ইলিশ ধরা পড়ে; যা ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা বিক্রি করা যায়।

তিনি আরও বলেন, সাগরে এভাবে ইলিশ ধরা পড়লে খুব অল্প দিনেই দাদনের ঋণ শোধ করা যাবে। সব জেলের সংসারের অভাব দূর হবে। তবে আবার হঠাৎ করে যদি ইলিশের পরিমাণ কমে যায় তাহলে জেলেদের দুঃখ-দুর্দশার শেষ থাকবে না। কারণ এ সব এলাকার জেলেদের বিকল্প কোনো আয়ের সুযোগ নেই।

বেতাগী উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. মোস্তফা আল রাজিব বলেন, ৬৫ দিন নিষেধাজ্ঞা থাকাকালীন সময়ে বেতাগীর জেলেরা ইলিশ শিকার থেকে বিরত থেকেছেন। এ জন্য বেতাগী উপজেলা মৎস্য দফতর ইলিশ রক্ষায় মডেল হিসেবে’প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে জাতীয়ভাবে পুরস্কারও পেয়েছেন। আর যথাসময়ে ইলিশ রক্ষার কারণেই বর্তমানে নদী ও সাগরে ঝাঁকে ঝাঁকে রূপালী ইলিশ ধরা পড়ছে।

তিনি বলেন, বর্তমানে যেভাবে ইলিশের দেখা মিলছে এভাবে কয়েক দিন মাছ ধরা পড়লে তাতে জেলেদের দুর্দশা থাকার কথা নয়। আমরা মনে করি, এভাবে সামনের কয়েক মাস প্রচুর ইলিশ ধরা পড়বে।

এই বিভাগের আরো খবর