• বুধবার   ১৫ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ৩০ ১৪২৭

  • || ২৪ জ্বিলকদ ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৩১৬৩, মৃত্যু ৩৩ রিজেন্টের সাহেদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৩৯ মৃত্যু, শনাক্ত ৩০৯৯ চলতি মাসেই নিউজ পোর্টালের নিবন্ধন শুরু : তথ্যমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৪৭ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬৬৬ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৩০ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬৮৬ লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিকে হত্যার ঘটনায় চক্রের দুই সদস্য কারাগারে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৪১ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৩০৭ এইচএসসিতে ভর্তি কার্যক্রম শুরু শিগগিরই: শিক্ষামন্ত্রী করোনায় মৃত প্রবাসীর পরিবার পাবে ৩ লাখ টাকা করে: প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৪৬ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৪৮৯ করোনা শনাক্তে প্রতারণায় কঠোর অবস্থানে সরকার : ওবায়দুল কাদের করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৫৫ মৃত্যু, শনাক্ত ৩০২৭ চলে গেলেন বরেণ্য সংগীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোর করোনায় আরও ৪৪ মৃত্যু, শনাক্ত ৩২০১ ভিসার মেয়াদ বাড়ালো সৌদি আরব: পররাষ্ট্রমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ২৭৩৮, মৃত্যু ৫৫ কাউকেই ভূতুড়ে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে হবে না: বিদ্যুৎ সচিব আজ থেকে অধস্তন আদালতে আত্মসমর্পণ করা যাবে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ২৯ মৃত্যু, শনাক্ত ৩২৮৮
৬৭

বিএনপির এমপিদের একহাত নিলেন গয়েশ্বর!

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ৭ অক্টোবর ২০১৯  

বিএনপির কারান্তরীণ চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তিতে কোনো আন্দোলন গড়ে তুলতে না পেরে দিকভ্রান্ত হয়ে পড়েছে বিএনপি। সম্প্রতি কারামুক্তির উপায় হিসেবে বিএনপির এমপিরা খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করে প্যারোলে মুক্তির প্রসঙ্গ সামনে আনেন। যার দরুন রাজনৈতিক মহলে সমালোচিত হচ্ছে বিএনপি।

যদিও বিএনপির শীর্ষ নেতারা বলছেন, কোনোভাবেই বেগম জিয়ার মুক্তি প্যারোলে নিতে রাজি নয় বিএনপি। এ নিয়ে দলের মধ্যে বাড়ছে বিভ্রান্তি। একপক্ষ বলছে প্যারোল, অন্যপক্ষ বলছে ‘না’।

এমন প্রেক্ষাপটে বিএনপির এমপিদের প্যারোল নিয়ে বালখিল্যে বিরক্তি প্রকাশ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। জানা গেছে, দুর্নীতির দুই মামলায় দণ্ড নিয়ে কারাবন্দী খালেদা জিয়াকে দেখে এসে বিএনপির সাত সংসদ সদস্য তার জামিনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। তারা এটাও বলেন যে মুক্তি পেলে খালেদা জিয়া বিদেশে যাবেন।

বিএনপি চেয়ারপারসনের মুক্তির দাবিতে শনিবার (৫ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বিরক্তি প্রকাশ করে বলেন, ‘অতি দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে আমাদের দলের সাংসদরা ইতিমধ্যে ম্যাডামের সাথে হাসপাতালে দেখা করেছেন। উনাদেরকে নিয়ে অনেকে অনেক কথা বলছে। উনারা যে খুব বেশি আন্তরিক ম্যাডামের মুক্তির জন্য, সেটা আমাদের সামনে এবং জনগণের সামনে আশ্বস্ত করার চেষ্টা করেছেন। আর সেটি করতে গিয়ে- ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) যে আপসহীন উপাধিটা আছে- এটা খারিজ করতে গিয়ে ধরা পড়েছে।’

তিনি আরও বলেন, যে উদ্দেশ্যে তাদের সংসদে পাঠানো হলো তা না করে তারা ম্যাডামের কাছে গিয়ে প্যারোলের বার্তা নিয়ে এসেছেন- এটা তাদের জন্য লজ্জার। তারা অথর্ব রাজনীতির উদাহরণ দিচ্ছে প্রতিনিয়ত। আসলে তাদের নিয়ে কথা বলার মতো আগ্রহও হারিয়ে ফেলেছি আমরা। তাদের কাছে যে প্রত্যাশা জনগণের ছিলো তা ধূলায় মিশিয়ে দিয়েছে। কোথায় তারা মুক্তির জন্য বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করবে, তা না করে তারা প্যারোলের বার্তা নিয়ে এসেছেন। এটি নিতান্তই লজ্জার।

বরগুনার আলো
রাজনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর