মঙ্গলবার   ১৯ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৫ ১৪২৬   ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
লবণের দাম বাড়ালে জেল-জরিমানা : বাণিজ্যমন্ত্রী লবণ নিয়ে গুজবে কান দিবেন না: শিল্প মন্ত্রণালয় ২০২১ সালের মধ্যে ১০০০ উদ্যোক্তা তৈরিতে সহায়তা দেবে সরকার পদ্মাসেতুর প্রায় আড়াই কিলোমিটার দৃশ্যমান সেনা কল্যাণ সংস্থার চারটি স্থাপনা উদ্বোধন মালিতে জঙ্গি হামলায় ২৪ সেনা নিহত কন্যা সন্তানের জনক হলেন তামিম কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সভা আজ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী : ৫৪ স্থানে বসছে ক্ষণ গণনার ডিসপ্লে পদ্মা সেতুর ১৬তম স্প্যান বসছে আজ কার্গো বিমানে পেঁয়াজের প্রথম চালান আসছে আজ আজ দেশে ফিরবেন প্রধানমন্ত্রী আইসিসি রায় দিলে সু চি অন্য দেশে পালালেও গ্রেফতার হবেন: শাহরিয়ার পেঁয়াজ পৌঁছাবে মঙ্গলবার, নাগালে আসবে দাম : বাণিজ্য সচিব রিফাত হত্যা: পেছালো ১৪ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন নতুন সড়ক আইন বাস্তবায়নে বাড়াবাড়ি না করার নির্দেশ গ্রামীণফোনের কাছে বিটিআরাসির পাওনা: আপিলে আদেশ রোববার আবরার হত্যা : চারজনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা মঙ্গলবার ১৪ দলের সভা আবরার হত্যা : চার্জশিট গ্রহণের শুনানি দুপুরে
৮৩

বিএনপির রাজনীতি থেকে অবসর নিচ্ছেন ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ

প্রকাশিত: ৬ নভেম্বর ২০১৯  

বিএনপির রাজনীতি থেকে অবসর নিচ্ছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ। একাধিক গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ বিভিন্ন সংবাদের উপাত্ত বিশ্লেষণ করে এই তথ্যের সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদের হঠাৎ রাজনীতি ছাড়ার বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে লন্ডন বিএনপি নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ রাজনীতিতে অনেক সিনিয়র একজন ব্যক্তি। খুব চতুর শ্রেণির মানুষ। সুযোগ পেলেই তার হৃদয়ে দল পাল্টানোর বাতাস প্রবাহিত হয়। যখন জাতীয় পার্টির জয় জয়কার, তখন তিনি এরশাদের খোলে বাসা বেঁধেছিলেন। এরপর বিএনপির রমরমা অবস্থায় খালেদা জিয়ার আশেপাশে থেকে নেতা সাজেন। বিভিন্ন কমিটিতে পছন্দমতো ব্যক্তিদের মনোনয়ন দিয়ে হাজার হাজার কোটি টাকাও কামিয়ে নিয়েছেন তিনি।

এ বিষয়ে ব্যারিস্টার মওদুদের মতামত জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি চিন্তা করেছি অবসর নেব। কিন্তু সেটি হয়তো এখনই কিনা বলতে পারছি না। রাজনীতিতে অবসর বলে কিছু নেই। আপনি বড়জোর দলত্যাগ করতে পারেন বা নির্জীব থাকতে পারেন। দলত্যাগ আর নির্জীব থাকা এক নয়। যদিও আমি দলত্যাগের কথা একটিবারও বলিনি। বিষয়টি শুনতে খারাপ লাগলেও এটি সত্য যে, বিএনপির রাজনীতিতে আর ক্রেজ খুঁজে পাই না। দলের অভ্যন্তরেও নানা বানোয়াট মিথ্যাচার ছড়ানো হচ্ছে আমাকে নিয়ে। আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলেও বিএনপির রাজনীতি প্রশ্নবিদ্ধ হচ্ছে। আর এ কারণে নিজেকে গুটিয়ে নেবার চিন্তা করছি।

মওদুদ আহমেদ আরো বলেন, যে আশা, যে আদর্শকে সামনে রেখে বিএনপিতে যোগদান করেছিলাম, সে আদর্শ থেকে বিএনপির বিচ্যুতি ঘটেছে। যে কারণে শমসের মুবিন চৌধুরী বিএনপিকে ত্যাগ করেছেন। সঙ্গে ব্যারিস্টার আন্দালিব পার্থ’র বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি ২০ দলীয় জোট থেকে সরে গিয়েছে। অনেকটা সেসব দুঃখ, কষ্ট, ক্লেশ নিয়ে আমি আপাতত বিএনপির রাজনীতি থেকে দূরে থাকতে চাই।

এই বিভাগের আরো খবর