বৃহস্পতিবার   ১৭ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ১ ১৪২৬   ১৭ সফর ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
পর্দা নামলো ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড এক্সপোর কুষ্টিয়ায় শুরু হলো তিনদিন ব্যাপী লালনমেলা বাংলাদেশই বিশ্বসেরা, প্রবৃদ্ধি হবে ৭.৮ শতাংশ হাজার কোটি টাকার চেকের কপি প্রতারক চক্রের বাসায়! ৯ কর্মীকে তলব, একজনের বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ ইন্দোনেশিয়া থেকে সরাসরি পণ্য আমদানির সুযোগ চায় বাংলাদেশ পার্বত্য জেলায় সন্ত্রাস-মাদক নির্মূল করা হবে-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাবেক সহকারী কর কমিশনারকে গ্রেপ্তার করল দুদক র‌্যাগিংয়ের অভিযোগ পেলেই শাস্তি: আইনমন্ত্রী একাদশ সংসদের পঞ্চম অধিবেশন শুরু ৭ নভেম্বর যেখানে দুর্নীতি-টেন্ডারবাজি সেখানে অভিযান- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ফাহাদ হত্যা মামলায় বিশেষ প্রসিকিউশন টিম হবে: আইনমন্ত্রী ন্যাম সম্মেলনে যোগ দিতে বাকু যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী রিফাত হত্যা : প্রধান আসামির জামিন নামঞ্জুর বিএসএমএমইউয়ে বিশ্ব অ্যানেসথেসিয়া ও মেরুদণ্ড দিবস পালিত মুন্সিগঞ্জের ১৩টি সেতু উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেসের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী সরকারের ধারাবাহিকতার কারণেই উন্নয়ন প্রকল্প গতিশীল: প্রধানমন্ত্রী বরগুনায় বিশ্বহাত ধোয়া দিবস পালিত 

বিএনপি রাজনীতির কাক: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, আওয়ামী লীগের কাছে রাজনীতি ব্রত, বিএনপির কাছে ক্ষমতা, লোভ-লালসা। প্রকৃত রাজনীতিবিদরা আওয়ামী লীগ করেন আর উচ্ছিষ্টরা বিএনপির সঙ্গে জড়িত। বিএনপি রাজনীতির কাক, যাদের উচ্ছিষ্টই প্রিয়।

রোববার (২৯ সেপ্টেম্বর) আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী এম এ মান্নানের ১০ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে  রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত স্মরণানুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতার জন্য রাজনীতি করে না। দলের সব নেতারা সবসময় ক্ষমতা, লোভ-লালসার বাইরে। আওয়ামী লীগের সৃষ্টি হয়েছে আন্দোলন-সংগ্রামের মধ্য দিয়ে। আর রাজনীতির কিছু উচ্ছিষ্টদের নিয়ে বিএনপির সৃষ্টি।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি মাদক, দুর্নীতি, ক্যাসিনোর বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করছেন। আর বিএনপি দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দিতে নিজেরাই দলের ৭ ধারা সংশোধন করেছে। তাদের সে ধারায় লেখা ছিল, দুর্নীতির দায়ে সাজাপ্রাপ্ত কেউ দলের নেতা হতে পারবে না। তারা এ ধারা সংশোধন করে দুর্নীতিকে লালন করছে।

প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা এম এ মান্নানকে স্মরণ করে হাছান মাহমুদ বলেন, তার কাছ থেকে রাজনীতিবিদদের অনেক কিছু শেখার আছে। তিনি আমাদের শিখিয়েছেন কীভাবে রাজনীতিতে ধৈর্য ধরতে হয়, কীভাবে বিনয়ী হতে হয়। তিনি কখনো কর্মীদের সঙ্গে উচ্চস্বরে কথা বলতেন না। সবসময় হেসে কথা বলতেন, সবার কথা শুনতেন।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিরুল ইসলাম আমিন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদসহ দলের অঙ্গ সংগঠনের নেতারা।

এই বিভাগের আরো খবর