সোমবার   ২০ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৬ ১৪২৬   ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
শহীদ আসাদ দিবস আজ বৈষম্য বিলোপ আইনের খসড়া তৈরির কাজ চলছে: আইনমন্ত্রী মানবতার কল্যাণ কামনায় শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমা আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে লাখো মুসল্লি তুরাগতীরে আমতলীতে কন্যা সন্তান হওয়ায় হত্যা,পাষন্ড বাবা গ্রেফতার পুরো পরীক্ষাই পেছাবে, নতুন সূচি আজ : শিক্ষামন্ত্রী ফাইভজির স্বপ্ন বাস্তবে পরিণত হবে শিগগির: অর্থমন্ত্রী ঢাকা সিটি ভোট পিছিয়ে ১ ফেব্রুয়ারি করার সিদ্ধান্ত ইসির এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা পিছিয়ে ৩ ফেব্রুয়ারি সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় সোমবার মান্নানের জানাজা এমপি আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে গভীর শোক রাষ্ট্রপতির পদ্মা সেতুর ২২তম স্প্যান বসছে এ মাসেই আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে ওবায়দুল কাদেরের শোক এমপি মান্নানের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক বয়ানে চলছে দ্বিতীয় দিনের ইজতেমা,কাল আখেরী মোনাজাত বিপিএলে প্রথম শিরোপার স্বাদ পেলো রাজশাহী আদালতে মজনুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাউন্ড সিস্টেমে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা যাবে ১ ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি শুরু প্রথম আলোর সম্পাদকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা
১০৯

বিশ্ব মানের কফি বাংলাদেশে

প্রকাশিত: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

 

কৃষির বাণিজ্যিকিকরণে ধান নির্ভর কৃষির পাশাপশি অপ্রচলিত লাভবান কৃষির দিকে গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার।ধানের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছে না ফলে কৃষক ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। কফি,কাজুবাদাম,অ্যাবোকাডোসহ বিভিন্ন অধিক মূল্যের ফসল চাষে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে কৃষকদের।
বুধবার মন্ত্রণালয়ে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠান নর্থ এন্ড (প্রাইভেট) লিমিটেডের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর রিক হার্বাডের সাক্ষাতকালে এসব কথা বলেছেন কৃষি মন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক।
রিক হার্বাড বলেন, আমরা ২০১১ সালে বান্দরবানের রুমা উপজেলায় কৃষকদের মাধ্যমে ৫০০টি কফি গাছের চারা দিয়ে কফি চাষ শুরু করি। বর্তমানে সাজেক ভ্যালিসহ আমাদের মোট গাছের সংখ্যা ১ লাখ ৫০ হাজার টি। বিগত দুই বছর যাবত সম্পূর্ণ বাংলাদেশের কফি বাজারজাত করছি এবং রপ্তানি করছি। নর্থ এন্ড এবং জাতিসংঘের কৃষি ও খাদ্য সংস্থা (এফএও) মনে করে বাংলাদেশের কফি বিশ্ব মানের। এটার চাষ পরিবেশের জন্য উপযোগি পানি কম লাগে,পোকামাকড় ও রোগজীবাণূর আক্রমন নেই। কফি গাছ ৩ বছর বয়স থেকে ফলন দেয় এবং ৯০ বছর পর্যন্ত অব্যাহত থাকে।এছাড়া কফি প্রসেসিং মেশিন এর দাম ছিল মাত্র ৫শ' ডলার, কিন্তু এফ্এও এই মেশিন কৃষকদের ফ্রি দিচ্ছে।
মন্ত্রী বলেন, আমরা কফি উৎপাদন করছি এবং এটার উৎপাদন বাড়ানোর জন্য কাজ করছি। এর জন্য আমরা কিছুসংখ্যক কৃষকদের ভিয়েতনামে পাঠাবো হাতে কলমে অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য। আমরা চাই কৃষিজাত পন্য রপ্তানি করতে, বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করতে এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে।
মি. রিক বলেন, আমাদের কফি রপ্তানির ক্ষেত্রে ডিউটি ফি কমানো হলে আমাদের এই ব্যবসার জন্য ভালো হবে। এর প্রেক্ষিতে মন্ত্রী জানান কৃষিজাত পন্যের ওপর সরকার প্রণোদনা দিয়ে থাকে সেক্ষত্রে কফিকেও এর আওতায় আনা হবে। তিনি নর্থ এন্ডকে সবধরনের সহযোগিতা দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। এছাড়া ভিয়েতনাম থেকে উন্নত জাতের কফি চারা এনে দেশে চাষ করা হবে বলেও জানান।

এই বিভাগের আরো খবর