শুক্রবার   ১৫ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ১ ১৪২৬   ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
আয়কর দিলেন অর্থমন্ত্রী, রিটার্ন দাখিল প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার নির্দেশনায় পুলিশ এখন দক্ষ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কলকাতা টেস্ট দেখতে আমন্ত্রণ জানিয়ে শেখ হাসিনাকে মোদীর চিঠি কৃষি জমি রক্ষায় কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী চার বছরের মধ্যে দারিদ্র্র্যের হার কমবে : প্রধানমন্ত্রী আজ ঝালকাঠির দুই বিচারক হত্যা দিবস পিকেএসএফ উন্নয়ন মেলার উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী আয়কর মেলা: ১১৩ কোটি থেকে লক্ষ্যমাত্রা তিন হাজার কোটি টাকা রোহিঙ্গা নিপীড়নে এবার সুচি’র বিরুদ্ধে আর্জেন্টিনায় মামলা টেস্ট বিশ্বকাপ অভিষেকে টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ রোহিঙ্গা সমস্যার পেছনে জিয়াউর রহমানের হাত ছিল: প্রধানমন্ত্রী খেলাপি ঋণ অবশ্যই আদায় করা হবে: অর্থমন্ত্রী ধেয়ে আসছে ‘বুলবুলে’র চেয়েও ভয়ানক ঘূর্ণিঝড় ‘নাকরি’ দেশের কল্যাণে প্রয়োজনে বাবার মতো জীবন দেবো: শেখ হাসিনা বিমানে উড়ে বাংলাদেশ এল ২২৫টি গরু! দেশে রফতানি বাড়াতে দরকার পরিবহন খাতে উন্নয়ন: বিশ্বব্যাংক মা হারানো সেই শিশুর দায়িত্ব নিলেন উপমন্ত্রী শামীম মালয়েশিয়ায় বীমার আওতায় দুই লাখ বাংলাদেশি কর্মী আওয়ামী লীগে দূষিত রক্তের প্রয়োজন নেই: সেতুমন্ত্রী ঘুরে দাঁড়িয়ে দুর্দান্ত জয় বাংলাদেশের মেয়েদের
১৪২

বিষাক্ত কেমিক্যাল ও রঙ দিয়ে তৈরি হচ্ছে জুস !

প্রকাশিত: ১৪ অক্টোবর ২০১৯  

দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলায় অনুমোদনহীন শিফাত ফুড প্রোডাক্টস নামে একটি নকল জুস ফ্যাক্টরির সন্ধান পেয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। রোববার দুপুরে ওই ফ্যাক্টরিতে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ নকল জুস উদ্ধার, ফ্যাক্টরি সিলগালা ও মালিককে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

ফ্যাক্টরির মালিকের নাম আলমগীর হোসেন। তিনি চিরিরবন্দর উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের আব্দুল হাই সরকারের ছেলে।

ফুলবাড়ী উপজেলার উত্তর সুজারপুর সরকারপাড়া গ্রামে ওই ফ্যাক্টরিতে অভিযান চালান ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দিনাজপুর ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মমতাজ বেগম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা মো. এরশাদ আলী ও উপজেলা স্বাস্থ্য পরিদর্শক জগদিশ মহন্ত।

স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন থেকে আলমগীর হোসেন স্থানীয় আব্দুর রহমানের বাসায় ভাড়া থাকতেন। গোপনে স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর জুসের ফ্যাক্টরি তৈরি করে ব্যবসা করার বিষয়টি জানা ছিল না স্থানীয়দের।

বাসার মালিক আব্দুর রহমান বলেন, আলমগীর তিন বছর থেকে পরিবারসহ আমার বাসা ভাড়া নিয়ে বাস করছেন। কিন্তু গোপনে আলমগীর নকল জুস তৈরি করছেন বিষয়টি আমি জানতাম না।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মমতাজ বেগম বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়। অনুমোদনহীন ওই ফ্যাক্টরিতে বিষাক্ত কেমিক্যাল ও রঙ দিয়ে নকল জুস তৈরি করছেন আলমগীর। ভোক্তা অধিকার আইনে তাকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একই সঙ্গে লক্ষাধিক টাকার নকল জুস ধ্বংস করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর