• রোববার   ০৫ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২০ ১৪২৭

  • || ১৪ জ্বিলকদ ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ২৯ মৃত্যু, শনাক্ত ৩২৮৮ বেতন-ভাতা পরিশোধে মালিকরা সহমর্মিতার নজির দেখাবেন : কাদের পাটকল শ্রমিকরা দুই ধাপে সব পাওনা পাবে: পাটমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৪০১৯, মৃত্যু ৩৮ চালের বাজার অস্থিতিশীল করলে কঠোর ব্যবস্থা : খাদ্যমন্ত্রী গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৩৭৭৫, মৃত্যু ৪১ যত্রতত্র পশুরহাটের অনুমতি দেওয়া যাবে না- ওবায়দুল কাদের জঙ্গিবাদ দমনে সফলতা ধরে রাখতে কাজ করে যাচ্ছি: র‌্যাব ডিজি ৩৮তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৬৪ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৬৮৩ শিগগিরই আরও ৪ হাজার নার্স নিয়োগ: প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৪৫ মৃত্যু, শনাক্ত ৪০১৪ অর্ধশত যাত্রী নিয়ে বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি, উদ্ধার কাজ চলছে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৪৩ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৮০৯ ফ্লাইট পরিচালনার অনুমোদন পাচ্ছে ৪ বিদেশি এয়ারলাইন্স অপরাধী ক্ষমতাবান হলেও ছাড় দেয়া হবে না: কাদের গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ৩৫০৪ করোনা রোগী শনাক্ত, মৃত্যু ৩৪ গণপরিবহনে বেশি ভাড়া নিলে কঠোর ব্যবস্থার হুমকি সেতুমন্ত্রীর করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৩৯ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৯৪৬ মানুষকে বাঁচানোই এখন একমাত্র রাজনীতি : কাদের
২০

ভারতে কাছে বিশ্বকাপ ‘বিক্রি’: ফেঁসে যাচ্ছেন লঙ্কান ক্রীড়ামন্ত্রী

বরগুনার আলো

প্রকাশিত: ২৯ জুন ২০২০  

২০১১ সালের বিশ্বকাপ ফাইনাল ম্যাচ ভারতের কাছে বিক্রি করে দিয়েছিল শ্রীলঙ্কা - এমন গুরুতর অভিযোগ এনেছিলেন খোদ সাবেক লংকান ক্রীড়ামন্ত্রী মাহিন্দানন্দা আলুথগামাগে।

সেই ম্যাচটি পাতানো ছিল দাবি করে গত ১৮ জুন সিরিসা টিভিকে তিনি বলেছিলেন, আমরা ২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনাল বিক্রি করেছি। আমি তখনকার ক্রীড়ামন্ত্রী ছিলাম। আর এই কথাটা আমি বিশ্বাস করি।
মাহিন্দানন্দার এমন বক্তব্যে ক্রিকেটবিশ্বে তোলপাড় শুরু হয়। এমন দাবির সপক্ষে প্রমাণ চান সেই ম্যাচের লংকান দলের অধিনায়ক কুমার সাঙ্গাকারা।

প্রমাণ সাপেক্ষে মাহিন্দানন্দা বলেছিলেন, ফাইনালের আগে স্কোয়াডে কিছু পরিবর্তন আনা হয়। সে সব পরিবর্তনের ব্যাপারে ক্রীড়া মন্ত্রণালয় থেকে কোনো ধরনের অনুমতি নেয়া হয়নি তখন। ক্রীড়ামন্ত্রী হয়েও তিনি কিছুই জানতেন না।
উদাহরণ দিতে গিয়ে সাবেক এই ক্রীড়ামন্ত্রী বলেছিলেন, ‘একদম শেষ দিকে গিয়ে হুট করেই শ্রীলঙ্কা থেকে দুইজন ক্রিকেটারকে নিয়ে যাওয়া হয়। ক্রিকেট বোর্ড কিংবা ক্রীড়া মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে কোনো অনুমতিও নেয়া হয়নি।’

আর এমন বক্তব্যের পরই ফেঁসে যাচ্ছেন মাহিন্দানন্দা আলুথগামাগে। মাহিন্দানন্দা সেই বক্তব্য আংশিক সত্য কিন্তু অনেকটাই মিথ্যাচার বলে রিপোর্ট দিয়েছে তদন্তকারী দল।

সানডে টাইমসের এক প্রতিবেদনে প্রকাশ, ফাইনালের আগে ইনজুরি সমস্যায় ভুগছিলেন দলের দুই তারকা ক্রিকেটার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস ও মুত্তিয়াহ মুরালিধরন। তাই তাদের ব্যাকআপ হিসাবে বাঁহাতি পেসার চামিন্দা ভাস ও অফস্পিনার সুরজ রান্দিবকে উড়িয়ে নেয়া হয়।

কিন্তু এ দুজনকে নেয়ার ব্যাপারে ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অনুমতি নেয়া হয়েছিল বলে প্রমাণ মিলেছে। এ প্রসঙ্গে ২০১১ সালের ৩০ মার্চ ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের কাছে একটি অনুমতিপত্র দিয়েছিল বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে।
এই তথ্য প্রমাণের পর মাহিন্দনন্দারের সেই বক্তব্য পুরোপুরি মিথ্যা হয়ে যাচ্ছে।

উল্টো প্রশ্ন উঠেছে, যদি ফাইনাল বিক্রির জন্যই সেই দুই খেলোয়াড়কে উড়িয়ে নেয়া হয়, তাহলে সেটির অনুমতি কেন দিলেন তখনকার ক্রীড়ামন্ত্রী মাহিন্দনন্দার?

নিজের অভিযোগে এখন নিজেই ফেঁসে যাচ্ছেন মাহিন্দনন্দার।

তথ্যসূত্র: সানডে টাইমস, নিউজ ওয়ার

বরগুনার আলো
খেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর