বৃহস্পতিবার   ২৪ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৮ ১৪২৬   ২৪ সফর ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
ধর্মঘট প্রত্যাহার, শনিবার অনুশীলনে যোগ দেবেন সাকিবরা বরগুনায় কলেজছাত্রী হত্যায় বিএনপির সাবেক নেতার যাবজ্জীবন তুরস্কে ফিকাহ-বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে বাংলাদেশি গবেষক ডিসেম্বরে মুক্তি পাচ্ছে পরমব্রত-কোয়েলের নতুন সিনেমা মশা-ছারপোকা দূর করবে কর্পূর অছাত্ররা কোনোভাবেই ঢাবির হলে অবস্থান করতে পারবে না-উপাচার্য ধনী-দরিদ্রের বৈষম্য কমার প্রত্যাশা পরিকল্পনামন্ত্রীর আগামী ১ নভেম্বর থেকে সড়ক পরিবহন আইন কার্যকরে গেজেট প্রকাশ ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন জানুয়ারিতে! ২০৪০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে অধূমপায়ী রাষ্ট্র : তথ্যমন্ত্রী মহাকাশে তোলা সেলফি প্রকাশ বাংলাদেশ সফরে জাপানের সম্রাটকে আমন্ত্রণ রাষ্ট্রপতির এমপিও: ১৭৫ ভোকেশনাল প্রতিষ্ঠানের তালিকা  পরিবেশ সুরক্ষা নিশ্চিতে সরকার কাজ করছে : গণপূর্তমন্ত্রী প্রযুক্তি ব্যবহারে আফ্রিকায় ‘কৃষি বিপ্লব’ দুদক এখন অনেক শক্তিশালী: কমিশনার মোজাম্মেল ‘পায়ের বেড়ি’ খুলছে না সৌদি নারীদের বৃক্ষরোপণে ইসলামের উৎসাহ ও নির্দেশনা পদ্মাসেতুর অবশিষ্ট জমিতে মিলিটারি ফার্ম করবে সেনাবাহিনী শাহজালালে ১ কোটি ২০ লাখ টাকার স্বর্ণসহ যাত্রী আটক
১০

ভারত সফর সফল, অনেক কিছু পেয়েছি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৯ অক্টোবর ২০১৯  

এবারের ভারত সফর সফল হয়েছে, এ সফর থেকে বাংলাদেশ অনেক কিছু পেয়েছে বলে দাবি করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। একই সঙ্গে, ফেনী নদীতে বাংলাদেশ ‘উইন সিচুয়েশন’-এ (বিজয়ী অবস্থা) আছে বলেও দাবি করেন তিনি। 

বুধবার (৯ অক্টোবর) রাজধানীর একটি হোটেলে কূটনৈতিক বিষয়ক ম্যাগাজিন ডিপ্লোম্যাটস ম্যাগাজিন আয়োজিত সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। সেমিনার শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. মোমেন বলেন, এবারের ভারত সফর সবচেয়ে সফল হয়েছে। এই সফর থেকে আমরা অনেক কিছু পেয়েছি। বিশেষ করে, আমাদের ছেলেমেয়েরা সেখানে প্রশিক্ষণের জন্য যাবে, বিদেশ থেকে গ্যাস এখানে এনে তাদের দেশে বিক্রি করা হবে। এতে বিক্রির একটা জায়গা হলো, দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক আরও জোরালো হলো। 

এসময় ফেনী নদীর পানি নিয়ে প্রশ্ন করা হলে মোমেন বলেন, অনেকেই এটা নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে আর আপনারা (মিডিয়া) সেটাকে প্রমোট করছেন। ভারত আগেও পানি নিত, ভুটান থেকে নিত। এখন সেটা একটা লিগ্যাল রূপ পেলো। এটা তো আমাদের জন্য ভালো হয়েছে।

এর আগে ‘গত দশকে বাংলাদেশের কূটনৈতিক সাফল্য’ শীর্ষক এই সেমিনারে নিজ বক্তব্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, জাতিসংঘে প্রায় সাড়ে ছয় বছর স্থায়ী প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেছি। শুধু নিজের সময়ের কথা যদি বলি, প্রায় ৫২টি নির্বাচনে অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ, যার একটিতেও হারেনি। এর কারণ হচ্ছে, বাংলাদেশ সবার সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রেখেছে, কারও সঙ্গেই শত্রুভাবাপন্ন কিছু করেনি। আর নির্বাচনের আগে বাংলাদেশের যে প্রতিশ্রুতি ছিল, দায়িত্বের পাশাপাশি সেগুলোও রক্ষা করেছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন ছিল, এই দেশ বিশ্ববাসীর জন্য শান্তির দ্বীপ হবে (পিস আইল্যান্ড)। সত্যি সত্যি অদূর ভবিষ্যতে তাই হবে বাংলাদেশ। 

বাংলাদেশের কূটনৈতিক সাফল্যের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে তিনি বলেন, অন্য দেশ যেখানে সমস্যা সমাধানের জন্য বল প্রয়োগের পথ বেছে নেয়, বাংলাদেশ সেখানে আলোচনার পথে হাঁটে। ভারত ও মিয়ানমারের সঙ্গেও আগে আমরা আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করেছি। রোহিঙ্গা সমস্যাও আলোচনার মাধ্যমেই সমাধান করবো বলে আশা করছি। এর জন্য দ্বিপক্ষীয় ও অন্য বন্ধু রাষ্ট্র-সংস্থাকে সঙ্গে নিয়ে আমরা আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছি। 

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রনীতি প্রসঙ্গে ড. মোমেন বলেন, আমাদের পররাষ্ট্রনীতির একটি শক্তিশালী দিক হচ্ছে, আমরা নিরপেক্ষতা বজায় রাখি। কোনো একটি নির্দিষ্ট জোটের সঙ্গে আমরা পুরোপুরি মিলিয়ে যাই না। অনেকেই আমাকে প্রশ্ন করেন যে, আমরা ভারত-চীনের মতো দু’টি দেশের সঙ্গে কীভাবে সুসম্পর্ক বজায় রাখি? এর উত্তর হচ্ছে, ভারত ও চীনের সঙ্গে নিজেদের এবং দ্বিপক্ষীয় স্বার্থ-সম্পর্ক বজায় রাখি। তাদের দুই দেশের মধ্যে সমস্যা থাকতেই পারে, সেটা তাদের নিজেদের বিষয়। আমরা তার মধ্যে পড়ি না।

ডিপ্লোম্যাটস ম্যাগাজিনের সম্পাদক ও সাবেক রাষ্ট্রদূত শাহেদ আকবরের সভাপতিত্বে সেমিনারে আরও বক্তব্য রাখেন সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র বিষয়ক সংসদীয় কমিটির চেয়ারম্যান ফারুক খান, সাবেক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আবুল হাসান চৌধুরী, ডিপ্লোম্যাটস ম্যাগাজিনের নির্বাহী সম্পাদক নাজিনুর রহিম, উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ফারহানা চৌধুরী। সেমিনারে জার্মানি, ইংল্যান্ডসহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও কূটনীতিকরা উপস্থিত ছিলেন। 

এই বিভাগের আরো খবর