শুক্রবার   ১৫ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ১ ১৪২৬   ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
আয়কর দিলেন অর্থমন্ত্রী, রিটার্ন দাখিল প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার নির্দেশনায় পুলিশ এখন দক্ষ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কলকাতা টেস্ট দেখতে আমন্ত্রণ জানিয়ে শেখ হাসিনাকে মোদীর চিঠি কৃষি জমি রক্ষায় কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী চার বছরের মধ্যে দারিদ্র্র্যের হার কমবে : প্রধানমন্ত্রী আজ ঝালকাঠির দুই বিচারক হত্যা দিবস পিকেএসএফ উন্নয়ন মেলার উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী আয়কর মেলা: ১১৩ কোটি থেকে লক্ষ্যমাত্রা তিন হাজার কোটি টাকা রোহিঙ্গা নিপীড়নে এবার সুচি’র বিরুদ্ধে আর্জেন্টিনায় মামলা টেস্ট বিশ্বকাপ অভিষেকে টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ রোহিঙ্গা সমস্যার পেছনে জিয়াউর রহমানের হাত ছিল: প্রধানমন্ত্রী খেলাপি ঋণ অবশ্যই আদায় করা হবে: অর্থমন্ত্রী ধেয়ে আসছে ‘বুলবুলে’র চেয়েও ভয়ানক ঘূর্ণিঝড় ‘নাকরি’ দেশের কল্যাণে প্রয়োজনে বাবার মতো জীবন দেবো: শেখ হাসিনা বিমানে উড়ে বাংলাদেশ এল ২২৫টি গরু! দেশে রফতানি বাড়াতে দরকার পরিবহন খাতে উন্নয়ন: বিশ্বব্যাংক মা হারানো সেই শিশুর দায়িত্ব নিলেন উপমন্ত্রী শামীম মালয়েশিয়ায় বীমার আওতায় দুই লাখ বাংলাদেশি কর্মী আওয়ামী লীগে দূষিত রক্তের প্রয়োজন নেই: সেতুমন্ত্রী ঘুরে দাঁড়িয়ে দুর্দান্ত জয় বাংলাদেশের মেয়েদের
১৮২

ভুক্তভোগীর ভাই সেজে ঘুষখোর ভূমি কর্মকর্তাকে ধরলেন ডিসি

প্রকাশিত: ১৭ অক্টোবর ২০১৯  

ভুক্তভোগীর বড় ভাই সেজে মোকলেস আলী নামে এক ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তার ঘুষ চাওয়ার প্রমাণ পেয়ে তাৎক্ষণিক তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্তের নির্দেশ দিয়েছেন সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল।

বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) বিকেলে এ নির্দেশ দেন তিনি।

সাময়িকভাবে বরখাস্তকৃত মোকলেস আলী সদর উপজেলার ধুলিহর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা।

ওই ভুক্তভোগী জানান, তিনি ও তার বাবা বৃহস্পতিবার দুপুরে ধুলিহর ইউনিয়ন ভূমি অফিসে জমির মিউটেশন করতে যান। এজন্য নির্ধারিত ফি ১১৭০ টাকা হলেও তাদের কাছে পাঁচ হাজার টাকা চাওয়া হয়। অনেক দেন দরবার করলেও পাঁচ হাজারের এক টাকা কম হলেও কাজ হবে না বলে তাদের জানিয়ে জুয়েল নামে এক দালালকে দেখিয়ে দেন মোকলেস আলী।

এ সময় ওই ভুক্তভোগী সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের মোবাইলে কল করে ঘুষ চাওয়ার বিষয়টি জানান। জেলা প্রশাসক তাকে তার বড় ভাই পরিচয়ে ওই কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলিয়ে দিতে বলেন। এ সময় ওই ভুক্তভোগী ধুলিহর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোকলেস আলীর কাছে নিজের ফোনটি দিয়ে বলেন, আমার বড় ভাই আপনার সঙ্গে একটু কথা বলবেন।

এ সময় জেলা প্রশাসক নিজেকে ওই ভুক্তভোগীর বড় ভাই পরিচয় দিয়ে বলেন, ভাই চার হাজার টাকা নেন, আমরা গরীব মানুষ কাজটি করে দেন। উত্তরে ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোকলেস আলী বলেন, ঠিক আছে দেখবো।

এর পরপরই সেখানে সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আসাদুজ্জামানকে পাঠিয়ে দেন জেলা প্রশাসক।

সেখানে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় এবং ভূমি অফিসে বিভিন্ন কাজে আসা মানুষের সঙ্গে কথা বলে নিয়মিত ঘুষ গ্রহণের বিষয় সম্পর্কে নিশ্চিত হন তিনি।

এর পরপরই বিকেলে ধুলিহর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোকলেস আলীকে সাময়িকভাবে বরখাস্তের আদেশ দেন জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল।

জানা যায়, গত ১৩ অক্টোবর সাতক্ষীরা রাজস্ব প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শপথ বাক্য পাঠ করিয়ে জেলা প্রশাসনকে দুর্নীতিমুক্ত ঘোষণা করেন জেলা প্রশাসক। 

এই বিভাগের আরো খবর