শুক্রবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৪ ১৪২৬   ২০ মুহররম ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
ছাত্রলীগের পর যুবলীগকে ধরেছি : প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগকে সংযমের সঙ্গে চলার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর প্রধানমন্ত্রীর সাথে যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি দলের সাক্ষাত অবৈধ জুয়ার আড্ডা বা ক্যাসিনো চলতে দেওয়া হবে না: ডিএমপি কমিশনার পটুয়াখালীতে ধর্ষণ মামলার বাদীকে পেটানো প্রধান আসামিসহ গ্রেপ্তার-৪ শাহজালালে বিমানের জরুরি অবতরণ শুক্রবার নিউইয়র্ক যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী রাজধানীর তিনটি ক্যাসিনোতে র‌্যাবের অভিযান জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে বাংলাদেশ টস হেরে ব্যাটিং এ বাংলাদেশ রিফাত হত্যা : পলাতক ৯ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা রোহিঙ্গা সংকট : ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে বসছে চীন-মিয়ানমার-বাংলাদেশ আমাদের কাজই হচ্ছে জনগণকে সেবা দেয়া : প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা ইস্যুতে চীন বাংলাদেশের পক্ষে: মোমেন আজ গাজীপুর যাবেন প্রধানমন্ত্রী পরিবেশ দূষণ: ৪ প্রতিষ্ঠানকে কোটি টাকা জরিমানা স্বর্ণজয়ী রোমান সানার মায়ের চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন প্রধানমন্ত্রী আরো দু’টি বোয়িং বিমান কেনার ইঙ্গিত দিলেন প্রধানমন্ত্রী কারাবন্দির তথ্য ডাটাবেজে থাকবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ: প্রধানমন্ত্রী
১৫৫

মিন্নিরা ১৪ জন আদালতে, রাতুল সেভ হোমে

প্রকাশিত: ১৪ আগস্ট ২০১৯  

চাঞ্চল্যকর রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় প্রধান সাক্ষী থেকে আসামি বনে যাওয়া নিহতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিসহ এজাহারভুক্ত ১৪ আসামিকে আদালতে আনা হয়েছে।

বুধবার (১৪ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলার তৃতীয় ধার্য্য তারিখে তাদের নিয়মিত হাজিরায় আদালতে আনা হয়।

প্রায় ৩০ মিনিট আদালতের কার্যক্রম শেষে তাদের আবার জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। মামলার পরবর্তী তারিখ ২২ আগস্ট ধার্য করেন ম্যাজিস্ট্রেট গাজী সিরাজুল ইসলাম।

আজ হত্যা মামলার চার্জশিট দেওয়ার কথা থাকলেও তদন্ত সম্পন্ন না হওয়ায় চার্জশিট দেওয়া সম্ভব হয়নি। তবে কিছু দিনের মধ্যে তদন্ত কাজ সম্পন্ন করে চার্জশিট দেওয়া হবে জানিয়েছেন কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক আব্দুল কুদ্দুস মৃধা।

এর আগে সকাল ১০টা থেকে আদালত চত্বরে চেক পোস্টসহ নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেয় পুলিশ।

এ মামলার এজাহারভুক্ত ৫ নম্বর আসামি মুসা বন্ড, ৭ নম্বর আসামি মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত, ৮ নম্বর আসামি রায়হান ও ১০ নম্বর আসামি রিফাত হাওলাদারকে এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

এদিকে একই মামলায় গ্রেফতার রাতুল নামে এক আসামি অপ্রাপ্ত বয়স হওয়ায় সেভ হোমে রাখা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, বরগুনা সরকারি কলেজের মূল ফটকের সামনের রাস্তায় ২৬ জুন সকাল ১০টার দিকে স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির সামনে কুপিয়ে জখম করা হয় রিফাত শরীফকে। বিকাল ৪টায় বরিশালের শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

২৭ জুন রিফাত শরীফের বাবা আবদুল হালিম দুলাল শরীফ বরগুনা থানায় ১২ জনের নামে এবং চার-পাঁচজনকে অজ্ঞাত আসামি করে মামলা করেন। প্রধান আসামি নয়ন বন্ড ২ জুলাই ভোরে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়।

এ হত্যার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে দেশব্যাপী তোলপাড় শুরু হয়। পরে দ্বিতীয় একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে হত্যায় মিন্নির সম্পৃক্ততা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। পরে মিন্নিও গ্রেফতার হন।

এই বিভাগের আরো খবর