শনিবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৪ ১৪২৬   ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

বরগুনার আলো
ব্রেকিং:
বিপিএলে প্রথম শিরোপার স্বাদ পেলো রাজশাহী আদালতে মজনুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাউন্ড সিস্টেমে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা যাবে ১ ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি শুরু প্রথম আলোর সম্পাদকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা আমরা ক্রসফায়ারকে সাপোর্ট করতে পারি না : ওবায়দুল কাদের পোশাক রপ্তানিকে ছাড়িয়ে যাবে আইসিটি : জয় বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু কাল বিশ্ব ইজতেমার ২য় পর্বে ময়দানে আসতে শুরু করেছেন মুসল্লিরা অন্ধকার ভেদ করে আলোর পথে বাংলাদেশ: সংসদে প্রধানমন্ত্রী রিফাত হত্যা : দুই আসামি জামিনে মুক্ত দুর্নীতি মামলা : বিএনপি প্রার্থী ইশরাকের বিচার শুরু কাদেরের বাইপাস পরবর্তী স্বাস্থ্যের উন্নতি, দেশে ফিরছেন রাতেই  এসডিজি অর্জনে বাংলাদেশ সঠিক পথে রয়েছে : প্রধানমন্ত্রী আবুধাবি থেকে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী সরকারের জনপ্রিয়তা অনেক বেড়েছে: আইআরআই ওমানের সুলতানের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোকবার্তা আবুধাবি থেকে দেশের পথে প্রধানমন্ত্রী পদ্মাসেতুতে বসলো ২১তম স্প্যান,দৃশ্যমান হলো ৩ হাজার ১৫০ মিটার রিট খারিজ, নির্ধারিত তারিখেই হচ্ছে ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন
৮৭

রিফাত হত্যা : ৬ কিশোর আসামির জামিন নামঞ্জুর

প্রকাশিত: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

 

বরগুনার বহুল আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার চার্জশিটভুক্ত ৬ কিশোর আসামির জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত। শুনানি শেষে রোববার দুপুরে বরগুনার শিশু আদালতের বিচারক মো. হাফিজুর রহমান অভিযুক্ত তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন।

তারা হলো- চার্জশিটভুক্ত ১ নম্বর আসামি রাশিদুল হাসান রিশান ফরাজী, ৪ নম্বর আসামি মো. অলিউল্লাহ অলি, ৫ নম্বর আসামি জয় চন্দ্র সরকার চন্দন, ৭ নম্বর আসামি মো. তানভীর হোসেন, ৮ নম্বর অভিযুক্ত মো. নাজমুল হাসান এবং ১৩ নম্বর আসামি রাতুল সিকদার জয়।

জামিন নামঞ্জুর হওয়া এসব আসামির সবাই যশোর শিশু কিশোর সংশোধনাগারে রয়েছে।

এ বিষয়ে আসামি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট নার্গিস পারভীন সুরমা বলেন, আদালতের নির্দেশে শিশু কিশোর সংশোধনাগারে থাকা এ মামলার চার্জশিটভুক্ত ৬ অপ্রাপ্তবয়স্ক আসামির আইনজীবীরা জামিনের আবেদন করেছিলেন বরগুনার শিশু আদালতে। পরে শুনানি শেষে আদালত সবার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন।
উল্লেখ্য, গত ২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে প্রকাশ্যে রামদা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করা হয় রিফাত শরীফকে। স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি হামলাকারীদের সঙ্গে লড়াই করেও সন্ত্রাসীদের ঠেকাতে পারেননি। গুরুতর অবস্থায় রিফাতকে ওইদিন বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রিফাত শরিফের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় রিফাতের বাবা দুলাল শরীফ বাদী হয়ে ১২ জনের নাম উল্লেখ ও পাঁচ-ছয়জনকে অজ্ঞাত করে বরগুনা থানায় হত্যা মামলা করেন। মামলায় রিফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে প্রথমে সাক্ষী করা হলেও পুলিশি তদন্তে এ হত্যাকাণ্ডে তার সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়ায় পরবর্তিতে তাকেও আসামি করা হয়।

এ মামলার তদন্ত শেষে তদন্তকারী কর্মকর্তা বরগুনা সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্তকর্তা (ওসি-তদন্ত) মো. হামায়ুন কবির চার্জশিটে উল্লেখ করেন, মামলার এজহার ও তদন্তে যাওয়া অভিযুক্তদের বয়সের বিবেচনায় দুভাগে ভাগ করে চার্জশিটটি দাখিল করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রাপ্তবয়স্ক অভিযুক্তদের নিয়ে গঠিত চার্জশিতে মোট অভিযুক্তের সংখ্যা ১০ জন আর অপ্রাপ্তবয়স্ক অভিযুক্তদের নিয়ে গঠিত চার্জশিটে মোট অভিযুক্তের সংখ্যা ১৪ জন।

এই বিভাগের আরো খবর